জীবননগরে দূর্ধর্ষ ডাকাতি : স্বামী-স্ত্রী-কন্যাকে কুপিয়ে জখম

336

জীবননগরে দূর্ধর্ষ ডাকাতি : স্বামী-স্ত্রী-কন্যাকে কুপিয়ে জখম
জীবননগর অফিস: জীবননগরে কৃষকের বাড়ীতে দুধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। উপজেলার মারুফদহ গ্রামে কৃষকের বাড়ীতে গত বৃহস্পতিবার দিনগত গভীররাতে এই দূর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটে। ডাকাতদল এসময় পরিবারের স্বামী, স্ত্রী ও কন্যাকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে মারাক্তক জখম করে ঘরে থাকা নগদ ৭০ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায়। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে। আহতরা চিকিৎসাধিন আছে। জানা যায়, জীবননগর উপজেলার রায়পুর ইউনিয়নের মারুফদহ গ্রামের বাটিকাপাড়ার মৃত আব্দুর রহমানের ছেলে প্রান্তিক কৃষক নবির হোসেন (৬৫) তার পরিবারের লোকজন প্রতিদিনের মত গত বৃহস্পতিবার রাতে খাওয়া-দাওয়া শেষে ঘুমিয়ে পড়ে। রাত আনুমানিক ১২টা ১টার দিকে একদল সশস্ত্র দূর্বৃত্ত্ব কৃষকের বাড়ীতে হানা দিয়ে ডাকাতি করে। কৃষক নবির সাংবাদিকদের জানান, আমরা সবাই ঘুমিয়ে পড়লে রাত ১২টার দিকে ৫-৭ জন মুখোশধারী ডাকাত সশস্ত্র অবস্থায় আমাদের বাড়ীতে প্রবেশ করে আমাদেরকে ঘুম থেকে ডেকে ওঠায় এবং ঘরের ভিতরে প্রবেশের চেষ্টা করলে আমরা বাঁধা দিই। এতে ডাকাত দলের সদস্যরা ক্ষীপ্ত হয়ে আমার আমার মাথায় অস্ত্র দিয়ে কোপ মারলে আমি মাটিতে পড়ে যাই। এই সময় আমার স্ত্রী জামেলা খাতুন (৫৫) ও কন্যা রেক্সোনা খাতুন (২২) প্রতিরোধের চেষ্টা করলে ডাকাতরা আমার স্ত্রীর মাথায়ও অস্ত্র দিয়ে কোপ মারে। এছাড়া আমার কন্যাকে ডাকাতরা লোহার রড দিয়ে বেদম পিটিয়ে জখম করে ঘরে থাকা গচ্ছিত ৭০ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায়। এবিষয়ে সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার আওয়ামীলীগ নেতা রওশন আলী সাংবাদিকদের বলেন, ঘটনাটি শুনেছি। ডাকাতির শিকার তিন জনই বর্তমানে জীবননগর হাসপাতালে ভর্তি আছেন। আমি পুলিশকে আমার এলাকায় টহল জোরদার করতে অনুরোধ জানিয়েছি। এবিষয়ে জীবননগর থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) আব্দুল্লাহ আল-মামুনের সাথে কথা বললে তিনি  বলেন, ঘটনাটি আমরা শুনেছি। এ ব্যাপারে খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে। অপরাদীদের ধরতে পুলিশি অভিযান অব্যাহত আছে। এঘটনায় মামলার প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে। ডাকাতির ঘটনায় এলাকাবাসীর মধ্যে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে।