চুয়াডাঙ্গা সোমবার , ১৭ জানুয়ারি ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

জীবননগরে কৃষকের আড়াই বিঘা জমির পটল গাছ কেটে সাবাড়

সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
জানুয়ারি ১৭, ২০২২ ৫:৩৪ অপরাহ্ণ
Link Copied!

জীবননগর অফিস:

জীবননগর উপজেলার বেনীপুরে আশরাফুল ইসলাম নামের এক প্রান্তিক চাষির আড়াই বিঘা জমির পটল গাছ কেটে সাবাড় করে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। গতকাল রোববার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে জীবননগর উপজেলার সীমান্ত ইউনিয়নের বেনীপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী কৃষক আশরাফুল ইসলাম বেনীপুর গ্রামের বৃত্তি পাড়ার মৃত এলাহী মণ্ডলের ছেলে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, কৃষক আশরাফুল ইসলামের পটল খেতের সমস্ত গাছ কেটে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। পাশাপাশি জমিতে থাকা পটলের মাচা ও দড়ি কেটে রেখে গেছে। এটা পরিকল্পিতভাবে করা হয়েছে বলে ধারণা করছেন চাষি আশরাফুল ও গ্রামবাসী।

কৃষক আশরাফুল ইসলাম বলেন, ‘বেনীপুর মৌজার বডার মাঠে আমার আড়াই বিঘা জমিতে প্রতিবছরের ন্যায় এবছরও পটল চাষ করেছি। আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে ফসল বাজারে তুলতে পারতাম। কিন্তু আজ (গতকাল রোববার) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আমার খেতে গিয়ে দেখি জমির প্রায় সব পটল গাছ কাটা ও উপড়ে ফেলা। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে কেউ আমার জমির পটল গাছ কেটে সাবাড় করেছে। এবার আমার ২ লাখ টাকার ফসল হত। এই ফসল বিক্রি করে যে টাকা আয় হতো, সেটা দিয়ে ধার-দেনা পরিশোধ করে আমার সংসার চলত। পটল গাছ কেটে দেওয়ায় আমি একেবারে নিঃস্ব হয়ে গেছি।’

তবে এই ঘটনায় কৃষক আশরাফুল ইসলাম বেনীপুর গ্রামের গফুর, মুফা ও আছেরসহ বেশ কিছু ব্যক্তির বিরুদ্ধে পটল গাছ কাটার অভিযোগ করেন। তিনি জানান, ‘পূর্ব শত্রতার জেরে তারা আমার পটল গাছগুলো কেটে সাবাড় করেছে।’

এ বিষয়ে অভিযুক্ত মুফা বলেন, ‘আমি কারো পটল গাছ কাটিনি। আর পটল গাছ কেন কাটব? যারা আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছে, তা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট।’

স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আলী আহম্মদ বলেন, ‘আশরাফুল একজন প্রান্তিক কৃষক। চাষাবাদ তার একমাত্র আয়ের উৎস। আমি শুনেছি যে তার পটল কেটে সাবাড় করে দিয়েছে। যারা এ কাজটা করেছে, তারা ঠিক করেনি। ফসলের সাথে এ ধরনের শত্রুতা করা মোটেও ঠিক হয়নি।’

সীমান্ত  ইউপি সদস্য আরিফুল ইসলাম বলেন, ‘কৃষক আশরাফুলের জমির পটল গাছ কেটে দিয়েছে, এটা আমি শুনেছি। আসলে বিষয়টি খুবই দুঃখজনক। প্রকৃত দোষীদের বের করে এর উপযুক্ত সাজা হওয়া দরকার।’

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।