চুয়াডাঙ্গা রবিবার , ১১ জুলাই ২০২১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

জীবননগরে করোনায় আক্রান্ত রোগীদের সেবা করছেন জেবিএফ-এর সদস্যরা

সমীকরণ প্রতিবেদন
জুলাই ১১, ২০২১ ৮:৫২ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

Girl in a jacket

জীবননগর অফিস:
জীবননগর উপজেলায় প্রতিনিয়ত বাড়ছে করোনা রোগীর সংখ্যা। রোগীদের চিকিৎসাসেবা দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে ডাক্তার ও নার্সদের। যেখানে করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তিদের পাশে থাকতে ভয় পাচ্ছেন নিজের সন্তান, স্ত্রী, মা-বাবা। সেখানে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বিনা পারিশ্রমিকে জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তিরত করোনায় আক্রান্ত রোগীদের দিন-রাত সেবা করে যাচ্ছেন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন জীবননগর বন্ধু ফাউন্ডেশন (জেবিএফ)-এর একঝাঁক তরুণ-তরুণী। শুধু তাই নয়, এই সংগঠনের পক্ষ থেকে দরিদ্রদের জন্য বিনামূল্যে ‘হ্যালো জেবিএফ’ নামের একটি হটলাইন চালু করেছে। যেখানে ফোন দিলেই রোগীর বাড়িতে এই সংগঠনের সদস্যরা স্বেচ্ছাশ্রমে অক্সিজেন নিয়ে হাজির হচ্ছেন।
জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তিরত করোনায় আক্রান্ত রোগী কালু মিয়া বলেন, ‘আমি গত চার দিন হাসপাতালে করোনা ইউনিটে ভর্তি রয়েছি। ভর্তি হওয়ার পর থেকে জীবননগর বন্ধু ফাউন্ডেশনের ছেলে-মেয়েরা আমাকে সার্বিক খোঁজখবর নিচ্ছে। সময় মতো অক্সিমিটার দিয়ে অক্সিজেন লেবেল ঠিক আছে কি না, তা দেখছে, অক্সিজেন লাগলে তারা ব্যবস্থা করছে। তারা যেভাবে করোনা রোগীদের সেবা করছে, তা একটা মহতী কাজ। সকল যুব সমাজ যদি এই সংগঠনের সদস্যদের মতো মানুষের পাশে দাঁড়াত, তাহলে আরও ভালো হত।’
জীবননগর বন্ধু ফাউন্ডেশনের সদস্য সাদিয়া ইসলাম মাহি বলেন, ‘এই মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের পাশে থেকে তাঁদের সেবা করতে পারছি, এটাই আমাদের পাওয়া। আমরা কোনো অথের্র জন্য সেবা করছি না। আমাদের সংগঠনের উদ্দেশ্য মানুষের পাশে থাকা এবং তাদের সেবা করা, সেটাই আমরা করে যাচ্ছি।’
জীবননগর বন্ধু ফাউন্ডেশনের সভাপতি মিঠুন মাহমুদ বলেন, ‘এই করোনাকালীন সময়ে আমরা আমাদের সংগঠনের পক্ষ থেকে জীবননগর উপজেলায় স্বেচ্ছাশ্রমে সাধারণ মানুষকে স্বাস্থ্যসচেতন করাসহ বিভিন্ন ধরনের কাজ করে চলেছি। জীবননগরে প্রতিনিয়ত বাড়ছে করোনা রোগীর সংখ্যা। জীবননগর হাসপাতালে করোনায় আক্রান্ত যেসব রোগী আছে, আমাদের সংগঠনের সদস্যরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে তাদের সেবা করে চলেছে এবং যাদের অক্সিজেন প্রয়োজন, সংগঠনের পক্ষ থেকে আমাদের স্বেচ্ছাসেবক টিম তাদের বাড়িতে যেয়ে অক্সিজেন পৌঁছে দিচ্ছে। আমরা সাধারণ মানুষের পাশে থেকে আরও উন্নয়মূলক কাজ করতে চাই। কিন্তু সে অনুযায়ী আমাদের কোনো অর্থ নেই। আমরা যদি কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের সহযোগিতা পেতাম, তাহলে সমাজে আরও উন্নয়মূলক কাজ করতে পারতাম এবং সমাজে পিছিয়ে পড়া মানুষদের সেবা করতে পারতাম।’
জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. মাহমুদ বিন হেদায়েত সেতু বলেন, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন জীবননগর বন্ধু ফাউন্ডেশনের সদস্যরা স্বেচ্ছাশ্রমে এবং জীবনের ঝুঁকি নিয়ে জীবননগর হাসপাতালে ভর্তিরত করোনায় আক্রান্ত রোগীদের পাশে থেকে তাদের সেবা করে চলেছে, এটা একটি প্রশংসনীয় কাজ। যেখানে নিজের সন্তানরা পাশ থেকে চলে যাচ্ছে, সেখানে এই সংগঠনের সদস্যরা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এই সংগঠনের সদস্যরা আমাদের সহযোগিতা করায় আমরা অনেক সহজে মানুষকে চিকিৎসা দিতে পারছি।’

Girl in a jacket

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।