চুয়াডাঙ্গা বুধবার , ১৩ অক্টোবর ২০২১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

জীবননগরে অনৈতিক কাজের সময় স্কুলশিক্ষক আটক

সমীকরণ প্রতিবেদন
অক্টোবর ১৩, ২০২১ ৮:০৬ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

জীবননগর অফিস:
জীবননগরে স্কুলশিক্ষক জহুরুল ইসলাম পরস্ত্রীর সঙ্গে অনৈতিক কাজের সময় জনতার হাতে আটক হয়েছেন। এসময় বেরসিক জনতা তাঁকে উত্তম-মধ্যম দেয়।
জানা গেছে, জীবননগর উপজেলার সীমান্ত ইউনিয়নের কয়া গ্রামের মৃত ধিরে কলুর ছেলে স্কুলশিক্ষক জহুরুল ইসলাম গতকাল মঙ্গলবার বেলা তিনটার দিকে স্থানীয় এক নারীর সাথে অনৈতিক কাজের সময় জীবননগর পৌরসভার ইসলামপুর গ্রামে বেরসিক জনতার হাতে আটক হন। একপর্যায়ে বেরসিক জনতা ঘরের মধ্যে থেকে দুইজনকে বাইরে বের করে উত্তম-মাধ্যম দিয়ে ওই শিক্ষকের নিকট থেকে ৫০ হাজার টাকা আদায় করেন।
স্থানীয়রা জানান, জহুরুল মাস্টার প্রায় ওই মহিলাসহ বেশ কিছু মহিলাদের নিয়ে বাড়িতে আসতো এবং বেশ কিছু সময় ওই ভাড়া বাড়িতে অবস্থান করে চলে যেত। সাধারণ মানুষের সন্দেহ হলে স্থানীয় কিছু যুবক ছেলেরা তাদের আটক করে উত্তম-মাধ্যম দিয়ে তাদের ছেড়ে দেয়। এদিকে, স্থানীয় কিছু যুবকরা ওই শিক্ষকের অনৈতিক কর্মকাণ্ড সোস্যাল মিডিয়াতে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয়-ভীতি দেখিয়ে তার নিকট থেকে ৫০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। তবে স্কুলশিক্ষক জহুরুল ইসলাম তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা সকল অভিযোগ অস্বীকার করেন এবং সাংবাদিকের কথা শোনামাত্র তাঁর ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটা বন্ধ করে রাখেন।
সীমান্ত ইউপি সদস্য আব্দুল মমিন বলেন, ‘জহুরুল মাস্টার জীবননগরে কোনো মহিলার সাথে অনৈতিক কর্মকাণ্ডের সময় ধরা পড়েছে, এটা শুনেছি আজাদের নিকট থেকে কারণ আজাদের বাড়ির পাশে এ ঘটনা ঘটে এবং সে আমাকে বিষয়টি মীমাংস করার জন্য যেতে বলে আমি আর যায়নি।’
এ ব্যাপারে আজাদের সাথে টাকার বিষয় জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘জহু মাস্টারের বাড়ি আমার গ্রামে। এ জন্য আমি সেখানে যায়, সেখানে গেলে ইসলামপুর গ্রামের উজ্বল আমাকে বলে এখান থেকে আপনি চলে যান, আমরা দেখছি তার কথা মতো আমি সেখান থেকে চলে যায়। টাকার বিষয়ে আমি কিছু জানি না।’

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।