চুয়াডাঙ্গা বুধবার , ১০ জানুয়ারি ২০১৮
আজকের সর্বশেষ সবখবর

জীবননগরের কাশিপুরে দুই ছাত্রলীগ কর্মিকে কুপিয়ে জখম

সমীকরণ প্রতিবেদন
জানুয়ারি ১০, ২০১৮ ১০:৫৫ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

জীবননগর অফিস: জীবননগর উপজেলার কাশিপুর গ্রামে পূর্বশত্রুতার জের ধরে দুই ছাত্রলীগ কর্মিকে কুপিয়ে জখম করার ঘটনা ঘটেছে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাদেরকে উদ্ধার করে জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। আহতরা হলো- উপজেলার কাশিপুর গ্রামের বাগানপাড়ার নাসির উদ্দিনের ছেলে জীবননগর ডিগ্রী কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র সোহাগ (২১) এবং একই গ্রামের মুসা মোড়লের ছেলে রনি (১৯)। পরে সোহাগের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে রেফার করেন। গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে কাশিপুর ঈদগাহ মাঠে এ ঘটনা ঘটে।
জানা যায়, সোহাগ ও রনি কাশিপুর বাজারে রুবেল টেলিকমে মোবাইল ফোনে গান ডাউনলোড করতে যায়। ডাউনলোড শেষে দোকানের সামনে দুই বন্ধু দাড়িয়ে থাকা অবস্থায় পূর্বপরিকল্পনানুযায়ী একই এলাকার মিন্টু মোল্লার ছেলে নবিন ডাসা দিয়ে দুইজনকে এলোপাতাড়ি কুপাতে থাকে। এতে তারা দু’জনই রক্তাক্ত জখম হয়। পরে স্থানীয়রা তাদেরকে উদ্ধার করে জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক সোহাগের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে রেফার করেন।


ঘটনাটি সম্পর্কে জানতে চাইলে আহত সোহাগ বলেন, মঙ্গলবার বিকালে কাশিপুর খেলার মাঠে বন্ধুরা মিলে সবাই একসাথে বসে ছিলো। এসময় নবিনের সাথে কথা কাটাকাটির সৃষ্টি হয়। এর একপর্যায়ে সে সোহাগকে মারার হুমকি দিয়ে চলে যায়। সন্ধ্যায় সে ও তার বন্ধু রনি বাজারে মোবাইলে গান ডাউনলোড করতে যায় এবং ডাউনলোড শেষে দোকানের সামনে দাঁড়ালে পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী নবিন পিছন দিক থেকে তাদের উপরে দেশীয় অস্ত্র ডাসা দিয়ে এলোপাতাড়িভাবে কুপাতে থাকে।
এ বিষয়ে জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. রোকনুজ্জামান বলেন, মঙ্গলবার সন্ধ্যার সময় দুইজন রক্তাক্ত জখম অবস্থায় হাসপাতালে আসে। তাদের মধ্যে সোহাগ নামের একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে। কেডিকে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খাইরুল বাশার শিপলু ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আমি ঘটনাটি শুনে তাদেরকে হাসপাতালে ভর্তি করিয়েছি এবং গুরুতর জখম আহত সোহাগের সমস্ত চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছি।
এ দিকে এঘটনার সংবাদ শুনে জীবননগর হাসপাতালে ছুটে যান জীবননগর উপজেলা চেয়ারম্যান আবু মো. আব্দুল লতিফ অমলসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মিরা। আহত ছাত্রলীগ কর্মি সোহাগকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে রেফার করার পর তাকে দেখতে হাসপাতালে ছুটে আসেন জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জানিফ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মিরা। এ ব্যাপারে জীবননগর থানার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা (ওসি) এনামুল হক বলেন, কাশিপুর বাজারে যে ঘটনা ঘটেছে এ বিষয়টি আমি শুনেছি এবং ওই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের সাথে কথা বলেছি। এখনো পর্যন্ত আহতদের পরিবারের পক্ষ থেকে কোন অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলেই আমরা এর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করব।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।