জাহাপুরে বাউল সাধক খোদা বকশ শাহের তিরোধান দিবস উপলক্ষে দুই দিনের স্মরণোৎসব সম্পন্ন

31

সমীকরণ প্রতিবেদন:
আলমডাঙ্গা উপজেলার নাগদহ ইউনিয়ের জাহাপুরে দুই দিনব্যাপী একুশে পদকপ্রাপ্ত ও বাংলা একাডেমির ফেলোশিপ বাউল সাধক খোদা বকশ শাহের ৩১তম তিরোধান উপলক্ষে দুই দিনব্যাপী স্মরণোৎসব সম্পন্ন হয়েছে। গতকাল শুক্রবার বিকেলে দুই দিনব্যাপী স্মরণোৎসব শেষে বাউলরা নিজ বাড়ি ফিরে যান। স্মরণোৎসবে বাউল আব্দুল লতিফ শাহ, সৃজনী তানিয়া, গঞ্জের শাহ, সুজন বাউল, মাজিদুল বাউল, সানোয়ার শাহ, শুভাষ বাউল, মিলন সাধুসহ বিভিন্ন বাউল শিল্পীরা গান পরিবেশন করেন।
খোদাবকশ শাহ ১৯২৮ সালের ১৩ এপ্রিল (১৩৩৪ বঙ্গাব্দের ৩০ চৈত্র) আলমডাঙ্গা উপজেলার জাহাপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। ১৩৯৬ সালের পহেলা মাঘ (১৯৯০) ইহলোক ত্যাগ করেন। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার ১৯৯১ সালে খোদাবকশ শাহকে (মরণোত্তর) একুশে পদক প্রদান করেন। বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির সংগীত শিক্ষক খোদা বকশ শাহ বাংলাদেশ বেতার ও বাংলাদেশ টেলিভিশনের তালিকাভুক্ত লালন সংগীত শিল্পী ছিলেন। জীবদ্দশায় তিনি নিজেই ৯৫০টি গান রচনা করেন। খোদা বকশ শাহ স্মৃতি সংসদ ও তাঁর অগণিত ভক্ত অনুরাগীরা প্রতি বছরই তাঁর জন্ম ও মৃত্যুদিন পালন করে আসছে। প্রসঙ্গত, গত বৃহস্পতিবার বাউল সাধক খোদা বকশ শাহের ৩১তম তিরোধান উপলক্ষে দুই দিনব্যাপী স্মরণোৎসব শুরু হয়।