চুয়াডাঙ্গা বৃহস্পতিবার , ২৪ আগস্ট ২০১৭
আজকের সর্বশেষ সবখবর

জাল টাকার কারবারিদের বিরুদ্ধে কঠোর হোন

সমীকরণ প্রতিবেদন
আগস্ট ২৪, ২০১৭ ৫:২৬ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

প্রতিবারই উৎসবকে কেন্দ্র করে সক্রিয় হয়ে ওঠে জাল টাকার কারবারিরা। সারাবছর তাদের কার্যক্রম সচল থাকলেও উৎসব উপলক্ষে তাদের কার্যক্রম পরিচালিত হয় জোরেশোরে। ভিড়ের সুযোগ নিয়ে মানুষকে ঠকানো সহজ। মানুষকে বিপদে ফেলা সহজ। এবারো পবিত্র ঈদুল আজহা সামনে রেখে সক্রিয় হয়ে উঠেছে জাল টাকা তৈরির চক্রগুলো। সাধারণত ঈদের সময় টাকার গতিপ্রবাহ বাড়ে। এই সুযোগটিই কাজে লাগায় জালিয়াত চক্র। জাল টাকা দেশের অর্থনীতির জন্য বিরাট হুমকি। কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে বাংলাদেশে এই জালিয়াত চক্র বর্তমানে ব্যাপকহারে তাদের জাল বিস্তার করেছে। অত্যন্ত নিপুণতার সঙ্গে তারা টাকা জাল করে বাজারে ছাড়ছে। দেখতেও এসব টাকা হুবহু আসলের মতো। সাধারণ মানুষকে তাই প্রতারনা করা সহজ। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনীর অভিযানের মাঝেও জাল টাকা ছড়িয়ে দেয়ার চক্রটি তাদের কাজ করে যাচ্ছে।
জাল নোটের অবারিত বিস্তারে আসল টাকার মূল্য কমে যায়। মূল্যস্ফীতি সৃষ্টি হয় এবং মুদ্রার ওপর আস্থা নষ্ট হয়। ফলে অর্থনীতিতে বিপর্যয় নেমে আসতে পারে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে এই জালিয়াত চক্রের বিরুদ্ধে কঠোর হতে হবে। যে কোনো মূল্যে তাদের অপতৎপরতা বন্ধ করতে হবে। টাকা জাল করার সঙ্গে জড়িত অপরাধীরা বিভিন্ন সময়ে আইনশৃঙ্খল রক্ষাবাহিনীর হাতে ধরা পড়ে। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই অল্প দিনের মধ্যে তারা জামিনে বেরিয়ে আসে। অপরাধী চক্রের বিরুদ্ধে মামলা হলেও সাক্ষীর অভাবে তা অনেক ক্ষেত্রে প্রমাণ করা দুরূহ হয়ে পড়ে। আর এভাবেই জালিয়াত চক্র সহজেই পার পেয়ে যায়। জাল টাকা জালিয়াতের সঙ্গে জড়িত চক্রের যথাযথ শাস্তি নিশ্চিত করার বিষয়টি নিয়ে তাই ভাবা প্রয়োজন। যাতে করে কেউ এ ধরনের অপরাধের সঙ্গে জড়ানোর সাহস না পায়। জাল টাকা তৈরি ও বিপণন ফৌজদারি অপরাধ। এতে জড়িতদের সর্বোচ্চ যাবজ্জীবন শাস্তির বিধান রয়েছে। কিন্তু আইনের ফাঁক গলে অপরাধী চক্র ঠিকই অপরাধ করে যাচ্ছে। এসব অপরাধীর সঙ্গে আন্তর্জাতিক চক্রের যোগাযোগ থাকার তথ্যও রয়েছে। অভিযোগ রয়েছে কিছু জঙ্গি সংগঠনের ব্যয় নির্বাহ হয় এই জাল টাকা দিয়ে। আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষে কোরবানির পশু কেনাবেচার হাটে জাল টাকা ছড়ানোর আশঙ্কার কথা বলা হয়েছে। সেই আশঙ্কা যেন অপরাধীরা সত্যি করতে না পারে সে ব্যাপারে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনীর আরো সতর্কতা প্রয়োজন এবং শুধু রাজধানীতেই নয়, জেলা পর্যায়েও জাল টাকা উদ্ধার ও এর সরবরাহ বন্ধে যথাযথ উদ্যোগ নিতে হবে। সীমান্ত এলাকাসহ জেলা পর্যায়ে জাল টাকার গতি রোধ করতে পারলেই প্রকৃত সুফল পাওয়া যাবে।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।