চুয়াডাঙ্গা সোমবার , ১৫ নভেম্বর ২০২১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ছেলের হাতে খুন হওয়া মায়ের দাফন সম্পন্ন

সমীকরণ প্রতিবেদন
নভেম্বর ১৫, ২০২১ ৯:২৬ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

নিজস্ব প্রতিবেদক:
চুয়াডাঙ্গায় ছেলের হাতে খুন হওয়া জবেদা খাতুনের লাশের ময়নাতদন্ত শেষে দাফনকার্য সম্পন্ন করা হয়েছে। গতকাল রোববার সকালে দুই সদস্যের মেডিকেল বোর্ড গঠন করে সদর হাসপাতাল মর্গে ময়নাতদন্ত সম্পন্ন করা হয়। ময়নাতদন্ত শেষে দুপুর ১২টার দিকে জবেদা খাতুনের লাশ পরিবারের সদস্যদের নিকট হস্তান্তর করা হয়। দুপুরেই পরিবারের সদস্যরা নিহতের লাশ পিরোজখালী গ্রামের কাজিপাড়ায় তাঁর নিজ বাড়িতে নেয়। নিহতের জানাজা নামাজ শেষে দুপুরেই গ্রাম্য কবরস্থানে লাশের দাফনকার্য সম্পন্ন করা হয়।
চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্তকর্তা ডা. এ এস এম ফাতেহ্ আকরাম জানান, ‘রোববার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে নিহত জবেদা খাতুনের লাশের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। চুয়াডাঙ্গা সদর হাপসাতালের দুই সদস্যের মেডিকেল টিম গঠন করে এই ময়নাতদন্ত সম্পন্ন করা হয়। সদর হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. ওয়াহেদ মাহমুদ রবিনকে সভাপতি করে মেডিকেল বোর্ডে সদস্য ছিলেন মেডিকেল অফিসার ডা. জান্নাতুল ফেরদৌস। মৃত্যুর সঠিক কারণ মেডিকেল বোর্ডের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ময়নাতদন্ত রিপোর্টে জানানো হবে।’
উল্লেখ্য, গত শনিবার বিকেলে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার পদ্মবিলা ইউনিয়নের পিরোজখালী গ্রামে জবেদা খাতুনকে (৪৫) কুপিয়ে হত্যা করে তাঁরই ছেলে মুকুল হোসেন। পরে মুকুলের ছেলে দাদীকে ঘরের মধ্যে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেথে বিষয়টি প্রতিবেশিদেরকে জানায়। এসময় স্থানীয়রা ব্যক্তিরা জবেদা খাতুনের লাশ মেঝেতে পড়ে থাকেত দেখে। পাশের ঘরেই চেয়ারে বসে থাকা জবেদার ছেলে মুকুলকে আটকে রেখে তারা পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে চুয়াডাঙ্গা সদর থানা পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাপসাতাল মর্গে প্রেরণ করে ও ঘাতক মুকুলকে আটক করে থানা হেফাজতে নেয়।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।