চুয়াডাঙ্গা মঙ্গলবার , ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৬
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ছাগলের জোড়া এক লাখ ২০ হাজার টাকা

সমীকরণ প্রতিবেদন
সেপ্টেম্বর ৬, ২০১৬ ১:২৭ অপরাহ্ণ
Link Copied!

werfdfসমীকরণ ডেস্ক: কোরবানির ঈদ আসন্ন। বাকি মাত্র আট দিন। সাধ্যের সবটুকু দিয়ে এবং সামর্থ্য অনুযায়ী শুরু হয়েছে কোরবানির পশু কেনা। স্বল্প বাজেটে ক্রেতারা চাচ্ছেন মোটা-তাজা গরু। স্বল্প আয়ের মানুষের ভাগ্যে অনেক সময় গরু কেনা বিলাসিতার মতো। এসব মানুষের প্রিয় পছন্দ তাই ছোট পশু ছাগল। ঈদকে সামনে রেখে ঢাকার একমাত্র স্থায়ী পশুর হাট গাবতলীতে উঠেছে কয়েক হাজার ছাগল। মানভেদে ছাগলেরও দাম চাওয়া হচ্ছে গরুতুল্য। সবচেয়ে বেশি দাম হাঁকা হয়েছে মানুষ মাথা কালো ছাগল এবং হরিণ মাথা সাদা-কালো ছাগলের জোড়ার দাম। এ ছাগল জোড়ার দাম হাঁকা হচ্ছে এক লাখ ২০ হাজার টাকা। বিক্রির উদ্দেশ্যে ছাগল দু’টি হাটে তুলেছেন রাজবাড়ী পাংশার বেপারি বাচ্চু শেখ। মানুষ মাথা কুচকুচে কালো রঙের ছাগলের দাম হাঁকা হচ্ছে ৭০ হাজার টাকা। বেপারির দাবি, এই খাসি ছাগল থেকে ৫০ কেজি মাংস পাওয়া যাবে। ছাগলটির কোনো শিং নেই। কয়েক মাস আগে পাবনা থেকে ছাগলটি কিনেছেন তিনি। খাসি ছাগলটির বয়স দুই বছর। অন্যদিকে সাদা-কালো হরিণ আকৃতির ছাগলের দাম হাঁকা হচ্ছে ৫০ হাজার টাকা। ছাগলটি কুষ্টিয়া থেকে কেনা। বেপারির দাবি, ৫০ কেজি মাংস পাওয়া যাবে এই ছাগল থেকে। ছাগলের মাথার অংশ ও শরীরের অংশ সাদা রঙের। এর সৌন্দর্য আরো বৃদ্ধির জন্য সাদা অংশে লাগানো হয়েছে মেহেদির রঙ। ছাগলটির বয়স দেড় বছর। ছাগল দু’টির খাবার ঘাস, কাঁঠাল পাতা, লতাপাতা, খড়, কুঁড়া, ভুসি, চাল, ডাল ইত্যাদি দানাদার খাবারও দিতে হয়। প্রতিদিন ছাগল দু’টির পাঁচ থেকে ছয় কেজি কাঁচা ঘাস এবং এক কেজি দানাদার খাদ্যের প্রয়োজন হয়, যার মূল্য প্রায় ২০০ টাকা। বাচ্চু শেখ বলেন, ‘মানুষ মাথা কালো ছাগলের দাম ৭০ হাজার টাকা এবং হরিণ মাথার দাম ৫০ হাজার টাকা। আমার ছাগল দু’টি বাজারের সবচেয়ে বড় ছাগল। প্রতিদিন ২০০ টাকা খরচ আছে ছাগলের খাবারের জন্য।’

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।