চুয়াডাঙ্গা হিজলগাড়ী ক্যাম্প পুলিশের অভিযান ডাকাত সন্দেহে আটক ৪

349

হিজলগাড়ী প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার হিজলগাড়ী ক্যাম্প পুলিশের ইনচার্জ এএসআই শফিকুর রহমানের নেত্বতে গত রোববার দিনগত রাতে বিভিন্ন স্থানে সাড়াসি অভিযান চালানো হয়েছে। এসময় ডাকাতিসহ বিভিন্ন অপরাধমুলক কর্মকান্ডে জড়িত সন্দেহে হত্যা মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী (জামিনে মুক্ত) সহ ৪জনকে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতার পর তাদেরকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করে গতকাল সোমবার ১২টার দিকে চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় সোর্পদ করা হয়েছে।
পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, গত পরশু রোববার দিনগত রাতে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার নবগঠিত নেহালপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে সাড়াসি অভিযান চালায় হিজলগাড়ী ক্যাম্প পুলিশ। রাত ১০টার দিকে রাস্তায় সন্দেহজনকভাবে ঘোরাঘুরি করার সময় পুলিশ হিজলগাড়ী কবরস্থান পাড়ার সিরাজুল ইসলামের ছেলে ফকির (৩০) ও নেহালপুর গ্রামের রমজান আলীর ছেলে জিনারুল (২২) আটক করে। আটককৃতদের দেয়া তথ্য মোতাবেক গ্রেফতার করা হয় হিজলগাড়ী কবরস্থান পাড়ার রাহিমনের ছেলে মুজাহিত (২৮) ও বোয়ালিয়া গ্রামের আব্দুল আজিজের ছেলে বিএনপি নেতা ছলিম হত্যা মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী বর্তমানে জামিনে মুক্ত নয়ন (৩৫) কে। গতকাল সোমবার দুপুর ১২টার দিকে তাদেরকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় সোর্পদ করা হয়েছে। এ বিষয়ে হিজলগাড়ী ক্যাম্প ইনচার্জ পুলিশ অফিসার শফিকুর রহমান  বলেন, আটকৃতের বেশ কিছুদিন গতিবিধি লক্ষ করা হচ্ছিল। এরা প্রায়ই রাতেই বিভিন্ন গ্রাম থেকে একত্রে মিলিত হয়। স্থানীয়দের অনেকেই এদেরকে গভীর রাতেও একত্রে দেখেছে একাধিকরা। গতকাল রাত ১০টার দিকে ফকির ও জিয়ারুল হিজলগাড়ী টু দর্শনা সড়কে অবস্থান করছিল। এসময় তাদের কথাবার্তায় অসংগতি পাওয়ায় তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে। পরে রাত ২টার দিকে তাদের দুই সহযোগীকে গ্রেফতার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাদের চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় সোর্পদ করা হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে এলাকায় সংঘটিত ডাকাতির সাথে এরা জড়িত থাকতে পারে। তবে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে বিস্তারিত জানা যাবে।