চুয়াডাঙ্গা সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজের এসএসসি ’০৯ ব্যাচের ঈদ পূনর্মিলনী অনুষ্ঠিত

1182

চুয়াডাঙ্গা সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজের এসএসসি ’০৯ ব্যাচের ঈদ পূনর্মিলনী অনুষ্ঠিত
স্মৃতির রোমন্থন : ৮ বছর পরও বন্ধুদের বাধ ভাঙা উল্লাস
19621478_1982057965411440_1429280470_n

আনিছ বিশ্বাস: ৮ বছরের বন্ধুত্বের স্মৃতির রোমন্থনে, আবার আসছি ফিরে ঈদ পূনর্মিলনে’ – এই সেøাগানে প্রথমবারের মত চুয়াডাঙ্গা সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজের এসএসসি ২০০৯ ব্যাচের আয়োজনে ঈদ পূনর্মিলনী অনুষ্ঠিত হয়েছে। ঈদের দ্বিতীয় দিন মঙ্গলবার সকাল থেকে দিনব্যাপী চলে অনুষ্ঠানের আয়োজন। এদিকে, দীর্ঘ ৮ বছর পর ২০০৯ সালের এসএসসি ব্যাচের সকল শিক্ষার্থীদের মেলবন্ধনে উচ্ছাসে মেতে ওঠে সকলে। যেন ছাত্রজীবনের সেই দিন ফিরে পেয়েছিলো তারা। পুরনো স্মৃতি মনে করে আবেগ আপ্লুত হয়ে পড়ে অনেকেই। দীর্ঘদিনের পুরোনো বন্ধু-বান্ধবীদের কাছে পাওয়ার আনন্দে অনেকের চোখের কোনে জমে থাকা অশ্রু গড়িয়েও পড়ে।
সকাল ১০টায় সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজ চত্বর থেকে শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও অতিথিদের অংশগ্রহণে একটি বর্নাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়ে বড় বাজার শহীদ হাসান চত্ত্বর ঘুরে একই স্থানে শেষ হয়। পরে প্রতিষ্ঠান চত্বরে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। চুয়াডাঙ্গা সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ মাসরেকুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন আলুকদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইসলাম উদ্দীন। বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজবাড়ী সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজের চীফ ইন্সট্রাক্টর জহুরুল হক, চুয়াডাঙ্গা টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজের চীফ ইন্সট্রাক্টর প্রকৌশলী ইমরুল কাদির, প্রকৌশলী হালিম মাহমুদ ভূইয়া ও তহিদুল ইসলাম। আলোচনা সভা অনুষ্ঠানের উপস্থাপনায় ছিলেন অত্র প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক আব্দুর রহমান।
এসময় অতিথিরা তাদের বক্তব্যে বলেন, চুয়াডাঙ্গা টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজের ইতিহাসে এই প্রথম ঈদ পূনর্মিলনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। প্রতিষ্ঠানে এ ধরণের অনুষ্ঠানের আয়োজন করায় অত্র প্রতিষ্ঠানের এসএসসি ২০০৯ ব্যাচের সকল শিক্ষার্থীদের অভিবাদন জানান তারা।
এসএসসি ২০০৯ ব্যাচের ছাত্রছাত্রীরা তাদের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে বলেন, বন্ধুত্বের ৮ বছর পেরিয়ে গেলেও আমরা আমাদের বন্ধুত্বের বন্ধন এখনও অটুট রেখেছি এবং আগামীতেও অনুরুপ এভাবে ২০০৯ ব্যাচের সকলে মিলে আবারও পূনর্মিলনী অব্যাহত থাকবে। আলোচনা সভা শেষে দুপুর ২টার দিকে মধ্যাহ্নভোজের আয়োজন করা হয়।
বিকেল ৩টার দিকে অত্র প্রতিষ্ঠানে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে মডেল সাথীর সাথে গানেগানে অভিনয় করে দর্শকদের মাতিয়ে তোলেন ২০০৯ ব্যাচের শিক্ষার্থী শরীফুল ইসলাম শরীফ ও রাজীব হাসান। সঙ্গীত পরিবেশন করেন হিরন অর রশিদ শান্ত, মাটি সাগর, রিপা, মামতি, রাসেল, মজিদসহ আগত শিল্পীবৃন্দ। পরে সন্ধ্যা ৭টার দিকে দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের উপস্থাপনায় ছিলেন এসএসসি ২০০৯ ব্যাচের অটোমোটিভ ট্রেডের শিক্ষার্থী শরীফুল ইসলাম শরীফ এবং সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন ওয়েল্ডিং ট্রেডের আরজুল ইসলাম শুভ ও ইলেক্ট্রিক্যাল ট্রেডের অন্তু অধিকারী।