চুয়াডাঙ্গা রবিবার , ১৭ এপ্রিল ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল চত্বর থেকে দালাল নির্মূলে অভিযান

আটক দালাল রুবেলকে বিনাশ্রম কারাদণ্ড
নিজস্ব প্রতিবেদক:
এপ্রিল ১৭, ২০২২ ২:২৪ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে দালাল নির্মূল অভিযান শুরু করেছে চুয়াডাঙ্গা সদর থানা ও উপজেলা প্রশাসন। গতকাল শনিবার দুুপুর ১২টার দিকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে দালাল নির্মূল অভিযানের নেতৃত্ব দেন সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক শামীম ভূইয়া। অভিযান পরিচালনাকালে হাসপাতালের বর্হিবিভাহে রোগীর থেকে টাকা নেওয়ার অভিযোগে রুবেল হোসেন (২৮) নামের এক দালালকে আটক করা হয়। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে তাকে ১০দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক শামীম ভূইয়া। সাজাপ্রাপ্ত রুবেল হোসেন চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার ভুলটিয়া গ্রামের মৃত রেণ্টু মিয়ার ছেলে।
ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা যায়, বিভিন্ন সময় সদর হাসপাতালে সেবা নিতে যেয়ে দালালদের দ্বারা রোগীদের প্রতারিত হওয়ার অভিযোগে হাসপাতালে দালাল নির্মূল অভিযান শুরু করা হয়েছে। গতকাল দুপুর ১২টায় সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ মহসীনের উদ্যোগে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামীম ভুইয়া হাসপাতালে দালাল বিরোধী অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযানে হাসপাতালের বর্হিবিভাগে ভাল সেবা পাইয়ে দেওয়ার কথা বলে রোগীর নিকট থেকে টাকা নিচ্ছিলেন দালাল রুবেল। এসময় তাকে হাতেনাতে আটক করা হয়। পরে অভিযোগ প্রমাণিত হলে তাকে ১০ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শামীম ভুইয়া বলেন, ‘বেশ কিছুদিন ধরে সদর হাসপাতালে দালালদের দ্বারা রোগী প্রতারিত হওয়ার বিভিন্ন অভিযোগ পাচ্ছি। হাসপাতালে দালালদের অত্যচারে রোগী ও তাদের স্বজনেরা অতিষ্ঠ হয়ে পরেছে। সদর হাসপাতাল থেকে দালাল চক্রকে সম্পূর্ণ নির্মূল করতেই হাসপাতালে দালাল নির্মূল অভিযান শুরু করা হয়েছে। আজকের (গতকাল) অভিযানে হাতেনাতে রুবেল হোসেন নামের এক দালালকে আটক করা হয়। পরবর্তীতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে তাকে ১০ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। হাসপাতাল থেকে দালাল নির্মূল করতে এখন থেকে প্রতি মাসে অন্তত দুই দিন এই অভিযান পরিচালনা করা হবে।’
চুয়াডাঙ্গায় সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসিন বলেন, ‘হাসপাতালে দালালের উৎপাতের বিষয়ে আমরা ইতোমধ্যেই জানতে পেরেছি। সদর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষও আমাদেরকে বিষয়টি জানিয়েছে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে হাসপাতালে দালাল নির্মূল অভিযান শুরু করা হয়েছে। আমরা চাই রোগীরা যেন স্বাচ্ছন্দে হাসপাতাল থেকে তাদের সেবা গ্রহণ করতে পারে।’

অভিযান পরিচালনাকালে উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের সিনিয়র সার্জারি কনসালট্যান্ট ডা. ওয়ালিউর রহমান নয়ন, শিশু কনসালট্যান্ট ডা. আসাদুর রহমান মালিক খোকন প্রমুখ। অভিযান পরিচালনা সহযোগীতায় ছিলেন সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আশিকুল ইসলাম, হাসান রাসেলসহ থানা পুলিশের একটি চৌকশ টিম।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।