চুয়াডাঙ্গা বৃহস্পতিবার , ২০ জুলাই ২০১৭
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চুয়াডাঙ্গা মেহেরপুর ঝিনাইদহের বিভিন্ন স্থানে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনাসভা : এবারের প্রতিপাদ্য ‘মাছ চাষে গড়বো দেশ, বদলে দেব বাংলাদেশ’

সমীকরণ প্রতিবেদন
জুলাই ২০, ২০১৭ ৪:৫৪ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

নিজস্ব প্রতিবেদক: ‘মাছ চাষে গড়বো দেশ, বদলে দেব বাংলাদেশ’ প্রতিপাদ্যে চুয়াডাঙ্গা, মেহেরপুর, ঝিনাইদহের বিভিন্ন স্থানে র‌্যালী, আলোচনা সভা, মাছ অবমুক্তকরণ আয়োজনের মধ্যে দিয়ে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ-২০১৭ উদ্বোধন করা হয়েছে।
‘মাছ চাষে গড়বো দেশ, বদলে দেব বাংলাদেশ’ প্রতিপাদ্য সারাদেশের ন্যায় চুয়াডাঙ্গায় জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ-২০১৭ উদ্বোধন উপলক্ষে পূর্বগৃহীত কর্মসূচীর মধ্যে র‌্যালী, আলোচনা সভা, উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ও মাছের পোনা অবমুক্ত করা হয়েছে। মৎস্য অধিদপ্তর, চুয়াডাঙ্গার আয়োজনে জেলা প্রশাসক জিয়াউদ্দীন আহামেদ’র নেতৃত্বে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালী শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে পরে উপজেলা পরিষদে গিয়ে শেষ হয়। পরে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে আলোচান সভা শেষে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহের উদ্বোধন করা হয় এবং চুয়াডাঙ্গা-৬ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়ান সদরের পুকুরে মাছের পোনা অবমুক্ত করা হয়।
জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ-২০১৭ উদ্বোধন উপলক্ষে র‌্যালী পরবর্তী আলোচনা সভায় চুয়াডাঙ্গা জেলা মৎস্য অফিসার ড. মাহবুবুর রহমান তালুকদারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক আনজুমান আরা।
তিনি বলেন, অর্থনৈতিক ভাবে দেশকে এগিয়ে নিতে হলে মৎস চাষের বিকল্প নাই। সারাদেশে মৎস চাষে খুলনা বিভাগ শীর্ষ স্থানে রয়েছে। তাই সকলকে মৎস্য চাষে এগিয়ে আসুন। মাছের প্রজনন মৌসুমে খাল, বিল, নদ-নদী গুলোতে অভয়াশ্রম তৈরী করুন। তবে দেশী প্রজাতির মাছ বিলুপ্তির হাত থেকে রক্ষা পাবে। প্রধান অতিথি বলেণ, চুয়াডাঙ্গা জেলায় বর্তমানে মাছের ঘাটতি রয়েছে, এ ঘাটতি পূরণে মাছ চাষীদের দায়িত্বশীল হতে হবে। সঠিক পরিকল্পনা ও পরিচর্যার মাধ্যমে বেশি বেশি মাছ চাষ করে এ ঘাটতি পূরণ করা সম্ভব।
সভাপতির বক্তব্যে মৎস্য কর্মকর্তা ড. মো. মাহবুবুর রহমান তালুকদার বলেন, এ জেলায় বার্ষিক মাছের চাহিদা ২৩,০৭৭ মে: টন। বার্ষিক উৎপাদন ১৭,০০৮ মে.টন। বার্ষিক ঘাটতি ৬,০৬৯ মে.টন। পরিসংখ্যানে আরো বলা হয়, এ জেলায় মোট জলায়তন ৬১৩৫.৪১ হেক্টর। নদী-১০টি, বিল-১১৪টি, খাল-১৩টি, বাওড়-১০টি, বা: খামার-১৭৮টি যার দৈর্ঘ্য ৫১৩.৫৭ হেক্টর এবং পুকুর-দিঘী-১০, ৮৩৭টি ১৩৮৫ হেক্টর মাছ চাষ হয়। মোট চাষী-৮,৫৬৮জন, জেলে-৫,০৬৪জন, নার্সারী ব্যবসায়ী-১৯৫জন ও পোনা ব্যবসায়ী-৫১২জন। তিনি বলেন, বর্তমানে বেনীপুর বাওড়ে মাছের অভয়াশ্রম করা হয়েছে। এরআগে রায়সা বিলে অভয়াশ্রম কার হয়েছে এবং শিঘ্রই মাথাভাঙ্গা নদীতে মাছের অভয়াশ্রম করা হবে। এ ছাড়াও প্রায় ২ কোটি টাকা ব্যয়ে নবগঙ্গা ও কুমারনদী এবং বড়তলী ও দারিয়াবিল খনন করা হয়েছে।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন পৌর মেয়র ওবায়দুর রহমান চৌধুরী জিপু, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আশাদুল হক বিশ্বাস, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মৃণাল কান্তি দে। এ ছাড়াও সদর ভূমি কর্মকর্তা পূলক কুমার মন্ডল, পরিবার পরিকল্পনা অফিসার মনিরুজ্জামান, সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অজিজুল হক হযরতসহ বিভিন্ন মৎস্যজীবি সমিতি ও সংগঠনের নেতা কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
এদিন দুপুর দেড়টার দিকে জেলা প্রশাসক জিয়াউদ্দীন আহমেদ, পুলিশ সুপার নিজাম উদ্দিন, জেলা মৎস্য অফিসার ড. মাহবুবুর রহমান তালুকদার, চুয়াডাঙ্গা-৬ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়ানের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক অতিরিক্ত পরিচালক মুহাম্মদ লুৎফুল কবীর, সহকারী পরিচালক মো. শাহজাহান আলী, পৌর মেয়র ওবায়দুর রহমান চৌধুরী জিপু, উপজেলা ও জেলা পর্যায়ের বিভিন্ন মৎস্য কর্মকর্তা কর্মচারীসহ কুষ্টিয়া সেক্টর কমান্ডার কর্নেল আবু সঈদ আল মাসউদ’র উপস্থিতিতে ৬ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়ান সদরের পুকুরে ৮০ কেজি মাছের পোনা অবমুক্ত করার মধ্যদিয়ে প্রথম দিনের কার্যক্রম শেষ হয়।
আলমডাঙ্গা অফিস জানিয়েছে, আলমডাঙ্গা উপজেলা মৎস্য অফিসের উদ্যোগে ‘মাছ চাষে গড়বো দেশ, বদলে দেব বাংলাদেশ’ প্রতিপাদ্যে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ’১৭ উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বুধবার সকাল ১০টায় উপজেলা মৎস্য অফিসের আয়োজনে উপজেলা চত্ত্বর থেকে এক র‌্যালী বের হয়ে শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে উপজেলা অডিটোরিয়ামে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপজেলা মৎস্য অফিসার মঈনুল ইসলাম। উপজেলা নির্বাহী অফিসারের আজাদ জাহানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন পৌর মেয়র উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসান কাদির গনু। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শামীম আরা, উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ইয়াকুব আলী মাস্টার, কৃষি অফিসার এ.কে.এম হাসিবুল হাসান, উপজেলা শিক্ষা অফিসার মৃনাল কান্তি সরকার, সমবায় অফিসার মৃনাল কান্তি মল্লিক আলমডাঙ্গা থানার পুলিশ পরিদর্শক লুৎফুল কবীর, ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম, আলমডাঙ্গা মৎস্য আড়ৎ সমিতির সভাপতি কাউন্সিলর মতিয়ার রহমান ফারুক। সমাজ সেবা অফিসার আবু তালেবের উপস্থাপনায় উপস্থিত ছিলেন আদনান, ওসমান আলী, আমজাদ হোসেন, দেলোয়ার হোসেনসহ উপজেলা সকল মৎস চাষী ও মৎস্য সমিতির নেতৃবৃন্দ।
জীবননগর অফিস জানিয়েছে, ‘মাছ চাষে গড়বো দেশ, বদলে দেব বাংলাদেশ’ প্রতিপাদ্যে জীবননগরে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ-২০১৭ উপলক্ষে গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে ১০টায় জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে উপজেলা পরিষদ থেকে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন শেষে, উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের সম্মেলন কক্ষে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সেলিম রেজার সভাপতিত্বে জনপ্রতিনিধি, মাছ চাষী, শিক্ষক, শিক্ষার্থী, মসজিদের ইমাম, আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্য ও সাংবাদিকদের নিয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জীবননগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবু মো.আ. লতিফ অমল। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান হাজী হাফিজুর রহমান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আয়েসা সুলতানা লাকী, উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডা. আনোয়ার হোসন, উপজেলা কৃষি অফিসার মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ, জীবননগর প্রেসক্লাবের সভাপতি আনোয়ারুল কবির, সাধারণ সম্পাদক এম.আর বাবু। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, জীবননগর উপজেলার সিনিয়ার মৎস্য অফিসার মনজুরুল ইসলাম। মৎস্য চাষীদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন মারুফদা বাওড়ের সভাপতি রফিকুল ইসলাম, বেনীপুর বাওড়ের সদস্য আ. রব প্রমূখ। উক্ত অনুষ্ঠানটি সার্বিক পরিচালনা করেন আ.কাদের। পরে উপজেলা পরিষদের জলাশয়ে মাছের পোনা অবমুক্ত করা হয়।
মেহেরপুর অফিস জানিয়েছে, ‘মাছ চাষে গড়বো দেশ’ বদলে দেব বাংলাদেশ’ প্রতিপাদ্যে আলোচনা সভা, র‌্যালী ও মাছের পোনা অবমুক্তকরণের মধ্যে দিয়ে মেহেরপুরে মৎস্য সপ্তাহ ২০১৭ এর উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে ৯টায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয় চত্বর থেকে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) রশিদুল মান্নাফ কবিরের নেতৃত্বে একটি র‌্যালী বের করা হয়। র‌্যালীটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন শেষে জেলা শিল্পকলা একাডেমী প্রাঙ্গনে গিয়ে শেষ হয়। পরে শিল্পকলা একাডেমির হলরুমে জেলা প্রশাসক পরিমল সিংহ’র সভাপতিত্বে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানের স্বাগত বক্তব্য দেন জেলা মৎস্য কর্মকর্তা ড. নাজমুল হাসান। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব গোলাম রসুল, জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ পরিচালক এসএম মোস্তাফিজুর রহমান, উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মীর মোহাম্মদ জাকির হোসেন।
খামার ব্যবস্থাপক ড. আসাদুজ্জামান মানিকের সঞ্চালনায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন চাঁদবিলা মৎস্য সমিতির সভাপতি ক্ষুদিরাম বিশ্বাস, হরিরামপুর বিলের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম, মৎস্য সমিতির প্রতিনিধি শহিদ সাদিক হোসেন বাবুল, মৎস্য চাষী মুহিত আলী। জেলা প্রশাসন ও জেলা মৎস্য অধিদপ্তরের আয়োজনে জেলার সকল মৎস্য চাষী ও ব্যবসায়ীরা র‌্যালি ও আলোচনা সভায় অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠান শেষে ভৈরব নদের পন্ডের ঘাট এলাকার ভৈরব নদে মাছের পোনা অবমুক্ত করা হয়।
মুজিবনগর অফিস জানিয়েছে, জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উদ্ভোধনী উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসন ও মৎস্য অফিসের উদ্যোগে র‌্যালী শেষে আলোচনা ও মৎস্য সপ্তাহ উদ্ভোধনী অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বুধবার সকাল ১১টার দিকে উপজেলা সিনিয়র মৎস্য অফিসার মো. শহিদুল ইসলামের নেতৃত্বে র‌্যালিটি উপজেলা চত্ত্বর থেকে বের হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। পরে উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়াম হলরুমে এক আলোচনাসভায় মিলিত হয়। সিনিয়র মৎস্য অফিসার মো. শহিদুল ইসলামের সভাপতিত্ব প্রধান অতিথি ছিলেন মেহেরপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য অধ্যাপক ফরহাদ হোসেন। সভায় বক্তব্য রাখেন কৃষি অফিসার মুহা: মোফাক্খারুল ইসলাম, প্রাণী সম্পদ অফিসার খোরশেদ আলম, যুবউন্নয়ন অফিসার বিপ্লব কুমার কুন্ড, বাগোয়ান ইউপি চেয়ারম্যান আয়ূব হোসেন, ইউনিয়ন আ.লীগের সভাপতি মুজিবর রহমান মধু, মোস্তাকিম হক খোকন কমান্ডার, মৎস্য চাষী রকিবুল ইসলাম প্রমূখ। শেষে উপজেলা পরিষদ পুকুরে মাছের পোনা অবমুক্ত করা হয়।
গাংনী অফিস জানিয়েছে, গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে দশটার দিকে উপজেলা সৎস্য অধিদপ্তর আয়োজিত আলোচনা সভায় আবুল কালামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন, সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মকবুল হোসেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন, গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরিফ উজ-জামান, থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি আনোয়ার হোসেন, প্যানেল মেয়র নবীর উদ্দীন, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক কৃষি বিষয়ক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম শাহ, জেলা জাতীয় পাটি জেপি সভাপতি আব্দুল হালিম প্রমুখ। অনুষ্ঠাটি পরিচালনায় ছিলেন উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শফি কামাল পলাশ। এর আগে সংসদ সদস্য মকবুল হোসেনের নেতৃত্বে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালী শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে উপজেলা শহীদ মিনার  চত্বরে  এসে শেষ হয়। পরে আনুষ্ঠানিকভাবে মাছের পোনা অবমুক্ত করন করা হয়েছে।
ঝিনাইদহ অফিস জানিয়েছে, ‘মাছ চাষে গড়বো দেশ, বদলে দেব বাংলাদেশ’ প্রতিপাদ্যে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষ্যে ঝিনাইদহে র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলা মৎস্য অফিসের আয়োজনে বুধবার সকালে শহরের পুরাতন ডিসি কোর্ট চত্ত্বর থেকে একটি র‌্যালী বের করা হয়। র‌্যালীটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে একই স্থানে এসে শেষ হয়। পরে পৌর কমিউনিটি সেন্টারে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। জেলা মৎস্য অফিসার আব্দুল আজিজ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আছাদুজ্জামান। বিশেষ অতিথি ছিলেন সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার এসএম সাহাবউদ্দিন আহমেদ, ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবের সভাপতি এম রায়হান, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইয়ারুল ইসলাম।
গতকাল বুধবার থেকে শুরু হওয়া এ সপ্তাহ শেষ হবে আগামী ২৪ জুলাই। মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষ্যে আয়োজন করা হয়েছে মাছের পোনা অবমুক্তকরণ, বিতর্ক প্রতিযোগী, পুরস্কার বিতরণসহ নানা অনুষ্ঠানের।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।