চুয়াডাঙ্গা মেহেরপুর ও ঝিনাইদহসহ সারাদেশে বর্ণাঢ্য আয়োজনে মধ্য দিয়ে জাতীয় যুব দিবস পালিত সন্ত্রাসের পথ ছেড়ে যুবকদের উন্নয়নের পথে আসতে হবে : প্রধানমন্ত্রী

355

14591719_193282084455938_7780306462114259366_n

সমীকরণ ডেস্ক:  মাদকাসক্তি, সন্ত্রাস, উগ্রবাদ কখনোই সুফল বয়ে আনে না। জঙ্গি হয়ে হুরপরী পাওয়া যাবে না। এ পথ বেহেশত বা স্বর্গেও নিয়ে যাবে না। ইসলামে জঙ্গিবাদের স্থান নেই। সন্ত্রাসের পথ ছেড়ে যুবকদের উন্নয়নের পথে আসতে হবে। যুবকরাই উন্নয়নের চালিকা শক্তি। বললেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মঙ্গলবার রাজধানীর ওসমানী মিলনায়তনে যুব দিবসের অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি। শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের বিরাট কর্মক্ষম যুবসমাজ আছে। বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে যাবে। আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে কাজ করলে অসাধ্য সাধন করা যায়। প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশে অনেক শিল্প গড়ে উঠছে, তবে দক্ষ কর্মীর অভাব রয়েছে। পর্যটন শিল্পের বিকাশে ক্যাটারিং, হাউজকিপিংসহ আরো অনেক ট্রেনিং দেয়া হচ্ছে। স্বল্পকালীন প্রশিক্ষণের পর যুবকদের আরো উন্নত প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে যুবকদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। আমাদের বিশাল যুবসমাজকে মানবসম্পদে পরিণত করা হবে।
আমাদের শহর প্রতিনিধি জানিয়েছেন, চুয়াডাঙ্গায় বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে জাতীয় যুব দিবস-২০১৬ পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষ্যে সকাল সাড়ে ৯টায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে বর্ণাঢ্য যুবর‌্যালী শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে আলোচনা ও যুব ঋণের চেক ও গাছের চারা বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়। যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক জাহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক সায়মা ইউনুস। এবং বিশেষ অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আঞ্জুমান আরা, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট দেব প্রসাদ পাল, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মুন্সী আলমগীর হান্নান। স্বাগত বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম। অনুষ্ঠানে ২২জন যুবককে ৬৮,০২৮/- ও ৩ জন সাংগঠনিককে ৬০, ০০০/-  যুব চেক দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানটি সার্বিক পরিচালনা করেন যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের সিএম আসাদুজ্জামান আসাদ।
আলমডাঙ্গা অফিস জানিয়েছে, “আত্মকর্মী যুব শক্তি টেকসই উন্নয়নের মূল ভিত্তি” এই প্রতিপাদ্যে গতকাল সকাল সকাল সাড়ে ১০টায় আলমডাঙ্গা উপজেলা চত্ত্বর হতে একটি র‌্যালী শহর প্রদক্ষিণ শেষে উপজেলা পরিষদ হল রুমে, আলোচনা সভা যুব  চেক ও গাছের চারা বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার আজাদ জাহানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন আলমডাঙ্গা উপজেলা চেয়ারম্যান মো: হেলাল উদ্দিন। এছাড়া বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান কাজী খালেদুর রহমান অরুন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শামীম আরা, জেলা যুব উন্নয়নের সহকারী পরিচালক মাসুম আহম্মেদ, আলমডাঙ্গা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা শামীম উজ্জামান, আলমডাঙ্গা মৎস্য কর্মকর্তা মঈনুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে মোট ৭২জন যুবদের মাঝে ১৩, ৪০,০০০/- যুব ঋণের চেক এবং প্রত্যেককে একটি করে গাছের চারা বিতরণ করা হয়। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন মো:আলাউদ্দিন সিএম ও সহযোগিতায় মো: বাদশাহ আলম, জুলফিকার বদিরুজ্জামন ও সিরাজ।
দামুড়হুদা প্রতিনিধি জানিয়েছেন, “আত্মকর্মী যুব শক্তি টেকসই উন্নয়নের মূল ভিত্তি ” এই ¯ে¬াগানকে সামনে রেখে দামুড়হুদায় জাতীয় যুব দিবস পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে দামুড়হুদা উপজেলা প্রশাসন ও যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের আয়োজনে র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। জানা যায়, গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১০ টায় দামুড়হুদা উপজেলা পরিষদ থেকে একটি র‌্যালি বের হয়ে উপজেলা শহর প্রদক্ষিণ করে আবার উপজেলা পরিষদে এসে শেষ হয়। এরপর আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভা শেষে ৬জন যুবকের হাতে যুব ঋনের চেক তুলে দেওয়া হয়। দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী অফিসার রফিকুল হাসান এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, দামুড়হুদা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মওঃ আজিজুর রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন, উপজেলা কৃষি অফিসার সুফি মোহাম্মদ রফিকুজ্জামান, দামুড়হুদা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সিরাজুল আলম ঝন্টু, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ছালমা জাহান পারুল, দামুড়হুদা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি দীন মোহাম্মদ। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন, প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ মশিউর রহমান, উপজেলা ভারপ্রাপ্ত মৎস কর্মকর্তা আয়ুব আলী, আঃ হালিম ভুট্টু, রফিক, মনিরুজ্জামান। অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা আব্দুল¬া আল মামুন। সভায় বক্তারা বলেন, যুবসমাজের সৃজনশীলতা, আত্মপ্রত্যয় ও তাদের কর্মদক্ষতাই জেলার অর্থনেতিক উন্নয়নকে ত্বরান্বিত করতে পারে। সমগ্র অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন, আবেদ উদ-দৌল¬া টিটন।
জীবননগর অফিস জানিয়েছে, বাংলাদশে দিনদিন বেকার যুবক ও যুব মহিলা বেড়েই চলেছে সে জন্য বর্তমান সরকারের মাননীয় প্রধান মন্ত্রী জননেন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের বেকার দূর করতে দেশের প্রতিটি জেলা উপজেলার যুব উন্নয়নের মাধ্যমে বিভিন্ন প্রশিক্ষন দিয়ে বেকার যুবক ও যুব মহিলাদের সার্টিফিকেট প্রদান করছে। শুধু তাই নয় প্রশিক্ষন শেষে সরকারীভাবে ঋণ দিয়ে তাদের নিজের ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য একটি কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করে দিচ্ছে। তাই যুব উন্নয়ন থেকে প্রশিক্ষন নিয়ে কেউ বসে থাকলে হবে না, কেউ কখনও কারও ভাগ্য পরিবর্তন করতে পারে না। তার জন্য প্রয়োজন নিজের চেষ্টা ও পরিশ্রম কারন চেষ্টা না করলে কখন ভাগ্য পরিবর্তন করতে পারে না।  উপরোক্ত  কথা গুলো বললেন প্রধান অতিথি জীবননগর উপজেলা পরিষদের চেয়রাম্যান আবু মো. আ. লতিফ অমল। জানা গেছে  গতকাল মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার সময়  জীবননগর উপজেলা যুবউন্নয়ন অধিদপ্তরের আয়োজনে উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় উপজেলা হলরুমে আত্মকর্মী যুবশক্তি টেকসই উন্নয়নের মূলভিত্তি এই ¯ে¬াগানকে সামনে রেখে  জীবননগর উপজেলা কৃষি অফিসার মোহাম্মদ আলী জিন্নাহর সভাপতিত্বে জাতীয় যুব দিবস পালিত হয়। উক্ত যুব দিবস অনুষ্ঠান ও  আলোচনা সভায় ২২জন  যুবমহিলা ও যুবকদের হাতে পর্যায়ক্রমে ৮লক্ষ টাকার চেক তুলে দেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি জীবননগর  উপজেলা পরিষদের চেয়রাম্যান আবু মো. আ. লতিফ অমল। উক্ত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আয়েসা সুলতানা লাকি, উথুলী ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আ. হান্নান, উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা আবু মো.হাছানুল আজিজ। অনুষ্ঠানে যুব মহিলা ও যুবকদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আদন, শাজাহান আলী, সম্পা খাতুন, কাজল রেখা প্রমূখ। উক্ত অনুষ্ঠানটি সার্বিক পরিচালনা করেন উষা সংস্থার সমন্বয়কারী আলমগীর হোসেন ।
ঝিনাইদহ প্রতিনিধি জানিয়েছেন, “আত্মকর্মী যুব শক্তি, টেকসই উন্নয়নের মুল ভিত্তি” এ ¯ে¬¬াগানকে সামনে রেখে জাতীয় যুব দিবস উপলক্ষে ঝিনাইদহ সাইকেল র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে জেলা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর এর আয়োজনে শহরের পুরাতন ডিসি কোর্ট চত্ত্বর থেকে একটি র‌্যালী বের হয়। র‌্যালীটি শহরের বিভিন্ন স্থান প্রদক্ষিণ করে জেলা যুব উন্নয়ন প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে নিয়ে শেষ হয়। পরে সেখানে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ঝিনাইদহ জেলা যুব উন্নয়ন অধিপ্তর এর উপ-পরিচালক শাহীদুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক মাহবুব আলম তালুকদার। বিশেষ অতিথি ছিলেন পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান, জেলা পরিষদ প্রশাসক এ্যাড. আব্দুল ওয়াহেদ জোয়ার্দ্দার, ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও এনটিভি’র স্টাফ রিপোর্টার মিজানুর রহমান, সদর উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিসার রিয়াজ উদ্দিন, জেলা ব্রাক প্রতিনিধি শফিকুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে আলোচনা সভা শেষে যুব ঋণ ও অনুদানের চেক বিতরণ এবং যুব সংগঠকদের মাঝে সনদপত্র ও ক্রেষ্ট বিতরণ করা হয়।