চুয়াডাঙ্গা মেহেরপুর ও ঝিনাইদহসহ সারাদেশে বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত

472

DSC_1027

সমীকরণ ডেস্ক: রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপি’র ৩৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হয়েছে। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে জিয়াউর রহমানের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন বিএনপির চেয়ারপার্সন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা ২০ মিনিটে দলের নেতা-কর্মীদের নিয়ে শেরেবাংলা নগরে দলের প্রতিষ্ঠাতার কবরে যান বিএনপি চেয়ারপার্সন। শ্রদ্ধা জানানোর পর প্রয়াত নেতার আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাতেও অংশ নেন তিনি। এদিকে এদিন বিকাল ৩টায় রমনার ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশন মিলনায়তনে এ উপলক্ষে বিএনপির পক্ষ থেকে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। সকালে জিয়াউর রহমানের কবরে ফুল দেয়ার সময় খালেদা জিয়ার সঙ্গে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ছাড়াও বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার মুহাম্মদ জমিরউদ্দিন সরকার, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আসম হান্নান শাহ, মির্জা আব্বাস প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
আমাদের শহর প্রতিনিধি জানিয়েছে, “মুক্ত মানুষ মুক্ত পথ, মুক্ত অধিকার-বিএনপি’র সৃষ্টিই মুক্তির অঙ্গীকার” এই স্লোগানে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্যদিয়ে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপির ৩৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত হয়েছে। চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপি’র আহবায়ক কমিটির অন্যতম সদস্য সাবেক ছাত্রদল নেতা শরীফুজ্জামান শরীফের নেতৃত্বে ব্যাপক আয়োজনের মধ্যে দিয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার যথাযোগ্য মর্যাদায় দলের ৩৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করা হয়। চুয়াডাঙ্গা সাহিত্য পরিষদ চত্বরে সকাল সাড়ে ৬টায় জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে দিনের কর্মসূচী শুরু হয়। জাতীয় পতাকা ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করেন জেলা বিএনপি’র আহবায়ক কমিটির সদস্য শরীফুজ্জামান শরীফ ও সিরাজুল ইসলাম মনি এবং সকাল ৯টায় তরুন দলের আহবায়ক মাবুদ সরকারের সার্বিক ব্যবস্থাপনায়  জেলা ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক আশাদুল হক বটুলের প্রথম রক্তদানের মাধ্যমে স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচী শুভ সূচনা করা হয়। দলীয় নেতাকর্মীদের রক্তদান শেষে সকাল সাড়ে ১১টায় সাহিত্য পরিষদ চত্বর থেকে ব্যানার, ফেস্টুন, প্ল্যাকার্ড, জাতীয় ও দলীয় পতাকাসহ ব্যান্ডের তালেতালে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের হয়ে চুয়াডাঙ্গা কোর্ট রোড ট্রাফিকমোড়ে পৌঁছালে পুলিশী বাধার মুখে র‌্যালীটি পুনরায় সাহিত্য পরিষদ চত্বরে ফিরে আসে। র‌্যালীতে মহিলাদলের উল্লেখযোগ্য উপস্থিতি ও সাজসজ্জা ছিল চোখে পড়ার মত। যা বহুদিন পর চুয়াডাঙ্গাবাসির দৃষ্টি আকর্ষনে সমর্থ হয়। র‌্যালী শেষে দুপুর সোয়া ১২টায় সাহিত্য পরিষদ চত্বরে জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য পৌর কাউন্সিলর সিরাজুল ইসলাম মনির সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনার শুরুতে পবিত্র কোরাআন তেলওয়াত করেন ছাত্রনেতা পলাশ মাহমুদ। প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সাবেক ছাত্রদলনেতা ও জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির অন্যতম সদস্য শরীফুজ্জামান শরীফ। প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে বলেন আজ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী থেকে সকলকে শপথ নিতে হবে দেশ নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার আহবানে সকল নেতাকর্মীকে ঐক্য বদ্ধ হয়ে অবৈধ জালেম সরকারের পতনের আন্দোলনে শরীক হতে হবে। আলোচানা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য আবু আলা সামসুজ্জামান, জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য আবু বকর সিদ্দিক আবু, জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য ও মহিলা দলের নেত্রী জাহানারা পারভীন। সাবেক জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি মোঃ হাবিবুর রহমান মঙ্গল। সদর থানা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি ও সাবেক ইউপি চেয়াম্যান জনাব নজরুল ইসলাম নজু। জেহেলা ইউপি চেয়ারম্যান জনাব আমিনুল ইসলাম রোকন। বাড়াদী ইউপি চেয়ারম্যান জনাব তবারোক হোসেন। খাদেমপুর ইউপি সাবেক চেয়াম্যান শাহ্ জালাল বেনা, গাংনী ইউপি সাবেক চেয়াম্যান জনাব রেজাউল ইসলাম রেজু, কালিদাসপুর ইউপি সাবেক চেয়ারম্যান জনাব হাসানুজ্জামান হাসান, পৌর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি জনাব রাফাতুল্লা মহলদার, সদর থানা বিএনপির যগ্ম -সম্পদাক মাসুদ মেম্বর, থানা বিএনপির প্রচার সম্পাদক মুন্সি আলাউদ্দিন, পৌর সহ-সভাপতি খাইরুল ইসলাম, পৌর বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান বাবলু, পৌর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম পিটু, যুগ্ম সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, দপ্তর সম্পাদক ইয়াসিন হাসান কাকন, জেলা শ্রমিক দলের যুগ্ম সম্পাদক মোশারফ হোসেন মোশারফ, জেলা যুবদলের যগ্ম আহবায়ক মোকারম হোসেন, সাবেক জেলা ছাত্র দলের আহবায়ক হাবিবুর রহমান সাদিদ। এছাড়াও বক্তব্য রাখেন সাবেক যগ্ম আহবায়ক আশাদুল হক বটুল, মহিলা দল নেত্রী ও পৌর কাউন্সিলার শেফালী খাতুন, মনিরুজ্জামান লিপটন, ইকরামুল হক ইকরা, রাশিদুল ইসলাম রাশেদ, কুদ্দুস মহলদার, স্বপন জোয়ার্দ্দার, মনোয়ার হোসেন জোয়ার্দ্দার, সৌদি, হাফিজুর রহামন মুক্ত, আনিছুল হক বিশু, মশাল উর রহমান মশাল, ওসমান গণি, বজলুর রহমান, শাহজালাল, বদর উদ্দির বাদল, শামিউল ওয়াহেদ শিমুল, রায়হান উদ্দিন রায়হান, মহসিন, তানভীর আহমেদ কাজল, দিপু, শাহারিন, আলম আলী আলো, মাসুদ রানা আপেল, ইমরুল হাসান ফটিক, শাহ্ আলম, মহসিন মেম্বর, আব্দুল মজিদ মেম্বর, মহিলা নেত্রী সালেহা খাতুন, মহিলা নেত্রী খোদেজা খাতুন, মহসিন, আবু সালেক, সাইদুর, আব্দুস সালাম, হাফিজ উদ্দিন হাবলু, সুমন পারভেজ খান, রোকনুজ্জামান রোকন, মাবুদ সরকার, রুবেল হোসেন, তুহিন ইসলাম, আব্দুস সালাম, সানোয়ার, জেলা ছাত্র দলে নেতা আমের আলী, পারভেজ মহলদার, রিন্টু মহলদার, আরিফ আহমেদ শিপলব, শাকিল আহমেদ নাইম, সাহাবুদ্দিন, রকিব মহলদার, সমশের, নিশান সিদ্দিক, মাসুদ রহমান, পান্না, নাজমুল, পিয়াস, রাকিব, সামিউল, প্রমুখ। আলোচনা সভাটি উপস্থাপনা করেন জেলা জাসাস এর সাধারণ সম্পাদক মোঃ সেলিমুল হাবিব সেলিম।
আলমডাঙ্গা অফিস জানিয়েছে, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির ৩৮ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আলমডাঙ্গা উপজেলা বিএনপি বিভিন্ন কর্মসূচী পালন করেছে। উপজেলা বিএনপির হাইরোডস্থ দলীয় কার্যালয়ে বিকালে আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। আলোচনা সভায় পৌর বিএনপির সভাপতি আনিছুর রহমানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা বিএনপির সভাপতি হাজী মজিবর রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আসিরুল ইসলাম সেলিম, উপজেলা বিএনপির সহসভাপতি আব্দুল জব্বার, সহসাধারন সম্পাদক কামরুজ্জামান বকুল, সাংগঠনিক সম্পাদক ইলিয়াস আহমেদ সিদ্দীকি, পৌর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক শাহীন রেজা মল্লিক মিল্টন। পৌর বিএনপির সাধারন সম্পাদক আজিজুর রহমানের উপস্থাপনায় উপস্থিত ছিলেন প্রচার সম্পাদক রকিবুল ইসলাম, সহ-গাংঠনিক সম্পাদক আজিবর রহমান, বিএনপি নেতা সাবেক কাউন্সিলর নাসির উদ্দিন, আইনাল হক, মানোয়ার হোসেন, আঃ রাজ্জাক রাজা, নুরুল ইসলাম, সোহেল হুদা, মিন্টু, মোমিন, শমসের মবিন, সিরাজুল ইসলাম, ওহিদ, ওয়াদুদ, ঝন্টু প্রমুখ। অপর দিকে সকাল ৯ টার দিকে হাজ্বী মোড়ে বিএনপি কার্যালয়ে বিএনপির অপরাংশের সভাপতি শহিদুল কাইনাইন টিলু জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন ও আলোচনা সভার আয়োজন করে। এসময় উপস্থিত ছিলেন সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম, পৌর বিএনপির আহবায়ক ইসরাফ হোসেনসহ দলীয় নেতাকর্মী।
দামুড়হুদা প্রতিনিধি জানিয়েছে, দামুড়হুদায়  বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির ৩৮ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকি পালন করা হয়েছে। জানাগেছে, দামুড়হুদা উপজেলা বি এন পির উদ্দগে দলের দলীয় কাযা’লয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে  জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্যে দিয়ে দিবসের কর্মসূচি শুরু হয়। পরে,বিকালে উপজেলা সদরের রহমান মালিথার চাতালে  থানা বিএনপি প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন কমিটির আয়োজিত এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে, সাবেক থানা বিএনপির সহ- সভাপতি তোফাজ্জেল হোসেনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা বি এন পির সাবেক সভাপতি লিয়াকত আলী শাহ্,  বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন দামুড়হুদা উপজেলা বি এন পির সাধারন সম্পাদক ওসাবেক সদর দামুড়হুদা   ইউপির চেয়ারম্যান রফিকুল হাসান তনু, দামুড়হুদা উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ছালমা জাহান পারুল। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন, দামুড়হুদা সদর ইউনিয়ন   বিএনপির সভাপতি আঃ রহমান মালিথা, হাউলি ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি মোহাম্মাদ আলী শাহ্ মিন্টু, সাধারণ সম্পাদক ওহায়েদ আলী,জুড়ান পুর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি ঈদীস আলী,সাধারন সম্পাদক মিন্টু,কাপাসডাংগা ইউনিয়ন বিএনপির সাধারন সম্পাদক আবু সাইদ বিশ্বাস,নাটুদাহ ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি শামসুল আলম,মদনা-পারকেষ্টপুর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি শফিউল্লাহ শফি।উপজেলা যুবদলনেতা  সামসুল,সাবেক মেম্বার ইকরামুল, মন্টু। উপজেলা ছাএদলের আরিফুল ইসলাম প্রমুখ। সমস্ত অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন উপজেলা ছাএদলের আহ্ব্য়ক মাহফুজুর রহমান মিল্টন।

দর্শনা অফিস জানিয়েছে, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির ৩৮তম প্রতিষ্ঠা বাষির্কী উৎযাপন উপলক্ষে গতাকাল সন্ধায় বিএনপির পুরাতন বাজার অস্থায়ী কার্যলয়ে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। দর্শনা পৌর বিএনপির সিনিয়ার সহসভাপতি হাবিবুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় আলোচনা করেন দর্শনা পৌর বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন, ২নং ওর্য়াড সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হান্নান, ৬নং ওর্য়াড আহবায়ক মোমিনুল ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ পিয়ার আলী। এছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেন আলাউদ্দিন,রাজু, জাকির হোসেন, যুবনেতা রুহিন, হাবিবুর, সাঈদ, সবদুল, আমিন, ছাত্রদল নেতা ব্রাইট, মামুন, শাওন, আরিফ, আনিছ, সেতু, রাব্বি, সজিব,  অনিক, রফিকুল, রায়হান, আশিক ও রতি প্রমুখ।
জীবননগর অফিস জানিয়েছে, জীবননগরে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে পালিত হল জাতীয়তাবাদী বিএনপির ৩৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকাল সাড়ে ৫টার সময় জীবননগর থানা বিএনপির  সভাপতি সাবেক পৌর মেয়র হাজী নোয়াব আলীর সভাপতিত্বে তিনার নিজস্ব কার্যালয়ে কেক কাটার মধ্যে দিয়ে  বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী বিএনপির ৩৮তম প্রতিষ্ঠা বার্সিকী পালিত হয়েছে। উক্ত প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জীবননগর থানা বিএনপির সাধারন সম্পাদক সাইদুর রহমান ধুন্দু, জীবননগর পৌর বিএনপির সভাপতি মাহাতাব উদ্দিন চুন্নু ,আন্দুলবাড়িয়া ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি সাবদার আলী, পৌর সভার ৮নং ওর্য়াড কমিশনার হযরত আলী,সাবেক কমিশনার শামসুজ্জামান হান্নু, রায়পুর ইউনিয়নের সাবেক মেম্বার আহম্মদ মেম্বার ,বাঁকা ইউপি সদস্য হারেজ আলী, ১নং ওর্য়াড সদস্য জাহিদুল ইসলাম রূপ মিয়া ,রায়পুর ইউনিয়ন বিএনপির সাংগাঠনিক সম্পাদক খলিলুর রহমান, রফিকুল ইসলাম বাবু, ৭নং ওর্য়াড বিএনপির সভাপতি বিসারত মিয়া,৫নং ওর্য়াডের সাবেক কমিশনার হাসান, সফি সহ উপস্থিত ছিলেন ছাত্রদল নেতা রয়েল , শরিফুল ইসলাম , ইয়াদুল টুইন ,বাবু, আক্তার, হাসান, মিনা, জামিম, সাগর প্রমুখ উক্ত অনুষ্ঠান সার্বিক পরিচালনা করেন থানা বিএনপির দপ্তর সম্পাদক আনিছুর রহমান শিপলু ।
মেহেরপুর অফিস জানিয়েছে, মেহেরপুর জেলা বিএনপির একাংশের উদ্যোগে বিএনপির ৩৮ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে শহরের শাহাজী পাড়ায় অবস্থিত জেলা বিএনপির একাংশের কার্যালয়ে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বিএনপি নেতা আনছারুল হক। এসময় বক্তব্য রাখেন বিএনপি নেতা ইসলাম আলী মাষ্টার, জেলা যুবদলের আহবায়ক জহুরুল ইসলাম বড় বাবু, যুগ্ম আহবায়ক প্রভাষক ফয়েজ মহাম্মদ, তরুণ দলের আহবায়ক কাজী মিজান মেনন, ওমর ফারুক লিটন সহবিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা।  পরে সেখানে দোয়া মাহাফিল অনুষ্ঠিত হয়।
গাংনী অফিস জানিয়েছে, মেহেরপুরের গাংনী উপজেলা  ও পৌর বিএনপির আয়োজনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির ৩৮ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দো’আ মাহফিল অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য জেলা বিএনপির সভাপতি ও মেহেরপুর-২ গাংনী আসনের সাবেক সংসদ সদস্য আমজাদ হোসেন বলেছেন, এই সরকারকে বাধ্য করে গনতন্ত্র পূর্ণউদ্ধার করা হবে। খুন, গুম করে গণতন্ত্রকে শেষ করা যাবে না  উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, বিএনপি শান্তি কামি দল। এই বিএনপি বাংলাদেশে প্রথম গণতন্ত্রের সৃষ্টি করেছিল। আবার এই বিএনপি শান্তি পূর্ণ আন্দোলনের মাধ্যমে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনবে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে দলীয় কার্যালয়ের সামনে পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে দিনের কর্মসুচী শুরু হয়। দলীয় কার্যালয়ে আলোচনা সভায় উপজেলা বিএনপি সভাপতি রেজাউল হকের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা বিএনপি সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান বাবলু, পৌর বিএনপি সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান মোরাদ আলী, সাধারণ সম্পাদক মকবুল হোসেন মেঘলা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান লাইলা আরজুমান বানু, জেলা বিএনপির সহসভাপতি আব্দুর রাজ্জাক, উপজেলা যুবদল সভাপতি আক্তারুজ্জামান ও সাধারণ সম্পাদক সাজেদুর রহমান বুলবুল, গাংনী পৌরসভার ২ নং প্যানেল মেয়র ও  ইমারত নিমার্ণ শ্রমিক সমিতির সভাপতি এবং  পৌর বিএনপি নেতা কাউন্সিলর সাইদুল ইসলাম, উপজেলা বিএনপির দপ্তর সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, কাউন্সিলর এনামুল হকসহ উপস্থিত ছিলেন নেতাকর্মীবৃন্দ। এদিকে একই সময়ে বিএনপি নেতা জাভেদ মাসুদ মিল্টনের উদ্যোগে পৃথক স্থানে পতাকা উত্তোলন ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
অপরদিকে, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির ৩৮ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন উপলক্ষে পতাকা উত্তোলন ও আলোচনা সভা করেছে মেহেরপুর জেলা বিএনপির সহসভাপতি জাভেদ মাসুদ মিল্টন পক্ষের নেতাকর্মিরা। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে জাভেদ মাসুদ মিল্টনের গাংনী শহরের দলীয় কার্যালয়ের সামনে পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে দিনের কর্মসুচী শুরু হয়। পরে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনাসভায় উপজেলা বিএনপি নেতা আহসান হাবিব বাবুর সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান জুলফিকার আলী (ভুট্ট) বামন্দী ইউপির সাবেক  চেয়ারম্যান আব্দুল আওয়াল, রাইপুর ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান  আলফাজ উদ্দীন কালু, ষোলটাকা ইউপির চেয়ারম্যান মনিরুজামান মনি, ছাত্রদল নেতা চপল বিশ্বাসসহ বিভিন্ন এলাকার নেতাকর্মীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
ঝিনাইদহ অফিস জানিয়েছে, ঝিনাইদহে বিএনপি’র ৩৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত হয়। এ উপলক্ষে বৃহস্পতিবার সকাল ৭টায় ঝিনাইদহ জেলা বিএনপি’র কার্যালয়ে দলীয় ও জাতীয় পতাকা উত্তোলন, জিয়াউর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ ও সকাল ১১টায় স্থানীয় পৌর কমিউনিটি সেন্টারে আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। বিএনপি নেতা আক্তারুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন, বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ও জেলা বিএনপির সভাপতি মোঃ মসিউর রহমান। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় বিএনপি’র সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক বাবু জয়ন্ত কুমার কুন্ডু, বিএনপি নেতা এস.এম. মশিয়ুর রহমান, আব্দুল মতলেব মিয়া, জাহিদুজ্জামান মনা, জাহিদুল ইসলাম, হরিণাকুন্ডু উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, এ্যাড.এম.এ.মজিদ, মুন্সি কামাল আজাদ পান্নু, আনোয়ারুল ইসলাম বাদশা, ঝিনাইদহ সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাড.আব্দুল আলিম, সাজেদুর রহমান পাপ্পু, আশরাফুল ইসলাম পিন্টু, আরিফুল ইসলাম আনন প্রমুখ। প্রধান অতিথি মসিউর রহমান বলেন, প্রতিষ্ঠার পর এই ৩৮ বছরে বিএনপি দেশের মানুষের আশা-আকাঙ্খার প্রতিক হওয়ার কারনেই বর্তমান সরকার বিএনপিকে নির্মুল করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। বিএনপি’র প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান ও তার পরিবারের সদস্যদের মানুষের মন থেকে মুছে ফেলার চেষ্টা করছে। তিনি বলেন স্বৈরাচার এরশাদ চট্টগ্রামে আওয়ামীলীগের জনসভায় গুলি চালিয়ে ২৪ জনকে হত্যা করলেও সরকার প্রধান তার বিরুদ্ধে কথা বলেন না। এরশাদ তার কাছে ভাল মানুষ। মইনুল-ফকরুদ্দীনের অবৈধ শাসনামলে হাসিনাকে ৯ মাস জেলে রাখলেও তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি। তিনি বলেন দেশে আজ গণতন্ত্র নেই বলেই ঝিনাইদহ প্রশাসন র‌্যালি করার অনুমতি দেয়নি।