চুয়াডাঙ্গা মেহেরপুর ও ঝিনাইদহে মায়ানমারে মুসলিম গণহত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তারা মায়ানমার অভিমূখে ইসলামী আন্দোলনে লংমার্চ অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৮ ডিসেম্বর

322

DSC_1458

নিজস্ব প্রতিবেদক: মিয়ানমারে মুসলিম গণহত্যার প্রতিবাদে গতকাল বিকাল ৪টায় ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখা, এক বিক্ষোভ মিছিলের আয়োজন করে। মিছিলে সভাপতি করেন জেলা সভাপতি প্রভাষক আবুল হাসান। বক্তব্য রাখেন জেলা সেক্রেটারী জিনারুল ইসলাম ও সাংগঠনিক সম্পাদক মু.তুষার ইমরান, শহীদ হাসান চত্বর থেকে মিছিলটি শুরু হয়ে শহরের প্রধান প্রধান শহর প্রদক্ষিণ শেষে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ ও দোয়ার মাধ্যমে শেষ হয়। আগামী ১৮ডিসেম্বর মায়ানমার অভিমূখে ইসলামী আন্দোলনে লংমার্চ অনুষ্ঠিত হবে ইনশাল্লাহ। গতকালের বিক্ষোভ সমাবেশে হাজার হাজার সাধারণ মানুষ অংশগ্রহন করে মিয়ানমারে মুসলিম গণহত্যা বন্ধ এবং অং সাং সুচির নোবেল ফিরিয়ে নেওয়ার আহবান জানায়।
দর্শনা অফিস জানিয়েছে, মায়নমারে মুসলিম রহিঙ্গাদের আগুনে পুড়িয়ে ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা, নারী ও শিশু নির্যাতন এবং দেশ থেকে বের করে দেওয়ার প্রতিবাদে গতকাল বিকাল ৩টায় দর্শনা কেরুজ ফুটবল মাঠে এক প্রতিবাদ সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল হয়েছে। দর্শনা পৌর ঈমাম সমিতির উদ্যোগে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন ঈমাম সমিতির সভাপতি মাওঃ নুরুল ইসলাম। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,দর্শনা পৌর মেয়র মতিয়ার  রহমান। এছাড়া প্রতিবাদ সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন,দামুড়হুদা উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের, মাওঃ আব্দুল খালেক, মাও: শাহাজাহান আলী, কারি আব্দুল বারী, মাও: শাহ আলম, মাও: আব্দুল মুতালিব, মাও: হাফিজুর রহমান, কারী কামরুজ্জামান, মনজুর আহম্মেদ, মাহবুবুর রহমান ও শাহ আলম প্রমুখ। বক্তরা মাননীয় প্রধান মন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার কাছে মায়নমারে মুসলিম রহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়ার দাবী করেন। এছাড়া জাতিসংঘের কাছে জোরালো দাবী করে বলেন অতি দ্রুত মায়নমারের মুসলিম রহিঙ্গাদের দেশে ফিরিয়ে নিয়ে নিরাপত্তার ব্যবস্থা বিধান করার আহবান জানান। বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশের অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন দর্শনা জামে মসজিদের ঈমাম মুক্তি গোলাম কিবরিয়া।
মেহেরপুর প্রতিনিধি জানিয়েছেন, মিয়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলিম হত্যা-নির্যাতন ও নারী ধর্ষণের প্রতিবাদে এবং ১৮ ডিসেম্বর ঢাকা থেকে মিয়ানমার অভিমুখে লংমার্চে অংশ গ্রহণের জন্য মেহেরপুরে সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশ মেহেরপুর জেলা শাখা। গতকাল শুক্রবার বিকেলে শহরের নতুনপাড়া স্কুল মোড়ে ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশ মেহেরপুর জেলা শাখার সভাপতি অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আব্দুল হান্নানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক খাদেমুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশ মেহেরপুর সদর উপজেলা শাখার সভাপতি মুফতি আবু বক্কর সিদ্দিক, বাংলাদেশ মুজাহিদ মেহেরপুর জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মোঃ আক্কাস আলী, মাও. মোখলেছুর রহমান, মুফতি সাদিকুর রহমান, অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক আইয়ূব আলী, হাফেজ লিয়াকত আলী, মাও. নূরুল ইসলাম নাইম প্রমুখ। সমাবেশে বক্তারা বলেন-মিয়ানমারের সরকার প্রধান অং সাং সুচি শান্তিতে নোবেল পেয়ে তার দেশের রোহিঙ্গা মুসলিমদের উপর নির্যাতন চালাচ্ছে। মেয়ে হয়েও তিনি তার দেশের পুরুষদের দ্বারা মুসলিম মেয়েদের ধর্ষিতা হওয়ার ঘটনা দেখছেন। বক্তারা সারা বিশ্বের মুসলমানদের এক হয়ে মিয়ানমারে মুসলিম হত্যা ও নির্যাতনের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াবার আহ্বান জানান। পরে সেখানে মিয়ানমারের নিহত ও নির্যাতিত মুসলমানদের জন্য দোয়া করা হয়। সবশেষে ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশ মেহেরপুর জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক খাদেমুল ইসলামের নেতৃত্বে শহরে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি শহর প্রদক্ষিণ শেষে শহরের শহীদ ড. সামসুজ্জোহা নগর উদ্যানে গিয়ে শেষ হয়।
তিতুহদ প্রতিনিধি জানিয়েছেন, মায়ানমারের রোহিঙ্গা মুসলমাদের প্রতি অবিচার ও নির্যাতন করায় চুয়াডাঙ্গা সদরের খাড়াগোদা বাজার নাট্যগোষ্ঠী আজ সন্ধ্যা ৭টার সময় এক আলোচনা সভার আয়োজন করেন। অনুষ্ঠানে নির্যাতন কারীদের চরম নিন্দা ও নির্যাতিতদের সমবেদনা জানিয়েছেন নাট্যগোষ্ঠী। সমীকরণের সাংবাদিক আকিমুল ইসলামের উপস্থাপনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ছাত্র লীগের তিতুদহ ইউনিয়ন সাংগাঠনিক সম্পাদক আনিচুর রহমান আনিচ। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন জাকের পার্টির তিতুদহ ইউনিয়ন সভাপতি আমির হোসেন (ফয়লা)। উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক তুষার আহমেদ, সরোজগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক শ্রী অশোক কুমার দত্ত, আলামিন হোসেন, আলিফ হোসেন, বিপ্লব, শান্তি, মাছুম প্রমুখ। অনুষ্ঠানে সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন খাড়াগোদা নাট্যগোষ্ঠীর পরিচালক ডাঃ ফজলুর রহমান।