চুয়াডাঙ্গা বৃহস্পতিবার , ৫ আগস্ট ২০২১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চুয়াডাঙ্গা-মেহেরপুরে করোনা ও উপসর্গে ১২ জনের প্রাণহানি

সমীকরণ প্রতিবেদন
আগস্ট ৫, ২০২১ ৮:৩৬ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

Girl in a jacket

সারা দেশে এক দিনে ২৪১ জনের মৃত্যু, রোগী শনাক্ত ১৩ লাখ ছাড়াল
নিজস্ব প্রতিবেদক:
সারা দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত আরও ২৪১ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৫ হাজার ৭৭৬ জনের শরীরে। এদিকে, গতকাল চুয়াডাঙ্গায় করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে আরও সাতজনের মৃত্যুর বিষয়ে নিশ্চিত করেছে স্বাস্থ্য বিভাগ। একই সময়ে নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে আরও ৩৯ জনের শরীরে। গতকাল মেহেরপুরে করোনা শনাক্ত হয়েছে ২৮ জন। করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু হয়েছে আরও পাঁচজনের শরীরে।
চুয়াডাঙ্গা:
চুয়াডাঙ্গায় করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে আরও সাতজনের মৃত্যুর বিষয়ে নিশ্চিত করেছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। এর মধ্যে করোনা আক্রান্ত একজন ও উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু হয়েছে ছয়জনের। স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা যায় গতকাল সদর হাসপাতালের ইয়োলো জোনে উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু হয়েছে দুজনের এবং করোনা আক্রান্ত হয়ে গত মঙ্গলবার মৃত্যু হয়েছিল একজনের। গতকাল ওই মৃত্যুর সংখ্যাটি স্বাস্থ্য বিভাগের খাতায় যোগ হয়েছে। গতকাল জেলায় নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে আরও ৪৯ জনের শরীরে। এনিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ২০৮ জনে।
জানা যায়, গতকাল জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ কুষ্টিয়া পিসিআর ল্যাবে পরীক্ষিত ২০৫টি নমুনার ফলাফল প্রকাশ করে। এর মধ্যে ৩৯টি নমুনায় করোনা শনাক্ত হয়েছে। বাকী ১৬৬টি নমুনার ফলাফল নেগেটিভ আসে। নমুনা পরীক্ষার বিবেচনায় করোনা শনাক্তের হার ১৯.০২ শতাংশ। গতকাল নতুন শনাক্ত ৩৯ জনের মধ্যে সদর উপজেলার ১৫জন, আলমডাঙ্গা উপজেলার ৮ জন, দামুড়হুদা উপজেলার ৯ জন ও জীবননগর উপজেলার ৭ জন রয়েছে। গতকাল জেলায় করোনা থেকে আরও ৬৬ জন সুস্থ হয়েছে। এনিয়ে জেলায় মোট সুস্থ হয়েছে ৪ হাজার ৩৪৪ জন। গতকাল জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ করোনা পরীক্ষার জন্য ১৯৮টি নমুনা সংগ্রহ করে কুষ্টিয়া পিসিআর ল্যাবে প্রেরণ করেছে।
চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা. এ এস এম ফাতেহ্ আকরাম জানান, গতকাল হাসপাতালের করোনা ইউনিটের ইয়োলো জোনে চিকিৎসাধী অবস্থায় ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে। গতকালই করোনা প্রটোকলে নিহতের লাশ পরিবারের সদস্যদের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে। জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্য মতে এখন পর্যন্ত হোম ও প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশনে মৃত্যু হয়েছে মোট ১৭২ জনের ও জেলার বাইরে মৃত্যু হয়েছে আরও ১৮ জনের। তিনি আরও জানান, এখন পর্যন্ত চুয়াডাঙ্গায় জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের ৮৭ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে ৭১ জন সুস্থ হয়েছেন বাকী ১৬ জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
চুয়াডাঙ্গা সিভিল সার্জন অফিসের সর্বশেষ তথ্যানুযায়ী জেলা থেকে এ পর্যন্ত মোট নমুনা সংগ্রহ ২৩ হাজার ৩৫৮টি, প্রাপ্ত ফলাফল ২৩ হাজার ০৯৯টি, পজিটিভ ৬ হাজার ২০৮ জন। জেলায় বর্তমানে ১ হাজার ৬৭৪ জন হোম আইসোলেশন ও হাসপাতাল আইসোলেশনে রয়েছে। এর মধ্যে হোম আইসোলেশনে আছে ১ হাজার ৫৯৫ জন ও হাসপাতাল আইসোলেশনে ৭৯ জন। জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত মোট মৃত্যু হয়েছে ১৯০ জনের। এর মধ্যে জেলায় আক্রান্ত হয়ে জেলার হোম ও প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশনে মৃত্যু হয়েছে ১৭২ জনের। এছাড়া চুয়াডাঙ্গায় আক্রান্ত অন্য ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে জেলার বাইরে।
মেহেরপুর:
মেহেরপুরে নতুন করে আরও ২৮ জনের শরীরে করোনা আক্রান্ত হয়েছে। একই সময়ে করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে আরও পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। নিহতদের মধ্যে করোনা আক্রান্ত তিনজন ও উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু হয়েছে একজনের। গতকাল নতুন আক্রান্তদের ২৮ জনের মধ্যে সদর উপজেলার ১৬ জন, গাংনীতে ৫ জন ও মুজিবনগর ৭ জন রয়েছে। গতকাল বুধবার রাতে মেহেরপুর সিভিল সার্জন ডা. নাসির উদ্দিন এ তথ্য নিশ্চিত করেন। সূত্রে আরও জানা যায়, গতকাল মেহেরপুর স্বাস্থ্য বিভাগ পিসিআর ল্যাব থেকে প্রাপ্ত আরও ১৩৭টি নমুনার ফলাফল প্রকাশ করে। এর মধ্যে ২৮টি নমুনায় করোনা শনাক্ত হয়েছে। নমুনা পরীক্ষার বিবেচনায় শনাক্তের হার ২০.৪৩ শতাংশ। নতুন আক্রান্ত ২৮ জনসহ বর্তমানে মেহেরপুর জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছে ৫০৯ জন। এর মধ্যে সদর উপজেলায় ১৭৬ জন, গাংনী উপজেলায় ২৩৮ জন এবং মুজিবনগর উপজেলায় ৯৫ জন। এ পর্যন্ত মেহেরপুরে মোট মৃত্যু হয়েছে ১৪৬ জনের। মৃতদের মধ্যে সদর উপজেলার ৬৬ জন, গাংনী উপজেলার ৪৯ জন ও মুজিবনগর উপজেলার ৩১ জন রয়েছে।
সারা দেশ:
সারা দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ২৪১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এনিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ২১ হাজার ৬৩৮ জনে। এর আগে ২৭ জুলাই দেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ ২৫৮ জনের মৃত্যু হয়েছিলো। গতকাল বুধবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ১৩ হাজার ৮১৭ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এনিয়ে দেশে শনাক্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ১৩ লাখ ৯ হাজার ৯১০ জনে।
গত ২৪ ঘণ্টায় ৫১ হাজার ৯০২ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হলেও এদিন পরীক্ষা করা হয়েছে ৪৯ হাজার ৫১৪টি নমুনা। যেখানে শনাক্তের হার ২৭ দশমিক ৯১ শতাংশ। এ পর্যন্ত শনাক্তের মোট হার ১৬ দশমিক ৪৮ শতাংশ। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, একদিনে নতুন করে সুস্থ হয়েছেন ১৬ হাজার ১১২ জন। এ নিয়ে সুস্থ হয়ে ওঠা রোগীর সংখ্যা ১১ লাখ ৪১ হাজার ১৫৭ জন।
বয়সভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা যায়, মারা যাওয়া ২৪১ জনের মধ্যে ১০০ বছরের ওপরে ২ জন, ৯১ থেকে ১০০ বছরের মধ্যে ৩ জন, ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে ১২ জন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে ৩৫ জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ৮২ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ৫৫ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ২৫ জন, ৩১ থেকে ২২ বছরের মধ্যে ১৫ জন ও ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে ৫ জন রয়েছে।
২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়াদের মধ্যে পুরুষ ১২৫ জন ও মহিলা ১১৬ জন। যাদের মধ্যে বাসায় ১৮ জন ছাড়া বাকিরা হাসপাতালে মারা গেছেন। একই সময়ে বিভাগওয়ারী পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ঢাকা বিভাগে সর্বোচ্চ ৯৩ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ৬৮ জন, রাজশাহী বিভাগে ১২ জন, খুলনা বিভাগে ৩৬ জন, বরিশাল বিভাগে ৫ জন, সিলেট বিভাগে ৫ জন, রংপুর বিভাগে ১৫ জন ও ময়মনসিংহ বিভাগে ৭ জন মারা গেছেন। গত বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম ৩ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ দেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত প্রথম একজনের মৃত্যু হয়।

Girl in a jacket

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।