চুয়াডাঙ্গা শুক্রবার , ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৬
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চুয়াডাঙ্গা বেলগাছিতে প্রায় ৪০বছর আগে থেকে নিধারিত স্থানে কোরবানির পশু জবাই হয়

সমীকরণ প্রতিবেদন
সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৬ ২:১০ অপরাহ্ণ
Link Copied!

IMG_20160913_091838

নিজস্ব প্রতিবেদক:কোরবানির পর কোরবানির রক্ত ও বর্জ্য পদার্থ মাটি এবং পানির সাথে মিশে মারাত্মক পরিবেশ দূষণ করছে এবং জনস্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক হুমকি হয়ে দাড়িয়েছে। এই ক্ষতির হাত থেকে বাঁচার জন্য চুয়াডাঙ্গা পৌরসভায় ৬৫টি নির্ধারিত স্থান করা হয়। এই নিধারিত স্থানেই পৌরবাসী পশু কুরবানীর করেছে। অথচ আজ থেকে প্রায় ৪০ বছর আগে চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার বেলগাছি ঈদগাহের পাশে নির্ধারিত স্থানে পশু কোরবানির জন্য ৮বিঘা জমি এলাকাবাসীকে দান করেন  মরহুম আব্দুল ওয়াদুদ বিশ্বাস। পরবর্তীতে তার ছেলে মাজিদ বিশ্বাস বা মাজিদ মিয়া ১৯৯৭ সালের মৃত্যুর আগ পর্যন্ত অত্র এলাকাবাসীকে সাথে নিয়ে পশু কোরবানি করতেন। তিনি মারা যাওয়ার পরে তার ছেলে বর্তমান চুয়াডাঙ্গা শহরের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী হাসিবুর রহমান শামিম এই স্থানে এলাকাবাসীকে সাথে নিয়ে পশু কোরবানি করে যাচ্ছেন। নির্ধারিত স্থানে কোরবানি করার বিষয়ে স্থানীয় সরকার জোর দিয়েছে অথচ ৪০ বছর আগে এটা শুরু হয়েছে চুয়াডাঙ্গার বেলগাছি থেকে। খোজঁখবর নিয়ে জানাগেছে এই অঞ্চলে নির্ধারিত স্থানে কোরবানি শুধু এই বেলগাছি ঈদগাহের পাশেই বিশ্বাসদের দানকৃত জমিতে হতো। এবার পুরো দেশজুড়ে এটা শুরু হয়েছে। নির্ধারিত স্থানে কোরবানি উৎপত্তি চুয়াডাঙ্গা বেলগাছি থেকে সেটা বলার অপেক্ষা রাখে না। এবার ঈদুল আজহায় এই ঐতিহ্যবাহী ৪০বছর ধরে নির্ধারিত স্থানে ২১গরু এবং ১৮টি ছাগল কোরবানি দেওয়া হয়েছে।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।