চুয়াডাঙ্গা রবিবার , ২৭ আগস্ট ২০১৭
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চুয়াডাঙ্গা দশমাইলে পশুহাটের খাজনা না দেয়ায় তিন গরুব্যবসায়ীকে মারপিট

সমীকরণ প্রতিবেদন
আগস্ট ২৭, ২০১৭ ৫:৫১ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

নিজস্ব প্রতিবেদক: চুয়াডাঙ্গার কুতুবপুর ইউনিয়নের দশমাইল গরুরহাট থেকে গরু বিক্রি করে খাজনা না দিয়ে আসার সময় তিন গরুব্যবসায়ীকে পিটিয়েছ হাটের দুই সদস্য। গতকাল শনিবার রাত ৮টার দিকে দশমি গ্রামের সততা ইটভাটার সামনে এঘটনা ঘটে। খাজনা না দিয়ে ফেরার পথে হাট মালিকের লোকজন তাদের মারধর করলেও তাদের কাছে থাকা নগদ টাকা ও মোবাইল ফোন ছিনতায়ের অভিযোগ তুলেছে তিন গরুব্যবসায়ী। জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা সরোজগঞ্জ সাহাপুর গ্রামের হাজিপাড়ার ফরিদ মিয়ার ছেলে মমিনুল হক (৩০), অনু বিশ্বাসের ছেলে আশরাফ (৩৮) ফিরোজের ছেলে নূরনবী (১৮) গতকাল রাতে দশমাইল গরুরহাট থেকে গরু বিক্রয় করে হাটপাশ না দেখিয়ে আলমসাধুযোগে বাড়ি ফিরছিল। এসময় হাটের দুই সদস্য তাদেরকে হাটপাশ দেখাতে বললে তারা না দেখিয়ে চলে আসে। পথিমধ্যে দশমি ইটভাটার নিকটে পৌছালে হাটের ওই দুই সদস্য মোটরসাইকেলযোগে এসে তাদের গতিরোধ করে হাটপাশ দেখাতে বলে। পাশ না দেখালে তাদের মধ্যে বাকবিতন্ডা শুরু হয়। একপর্যায়ে তাদের তিনজনকে পিটিয়ে জখম করে হাটের দুই সদস্য। তবে গরুব্যবসায়ীরা তাদের কাছে থাকা নগদ টাকা ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ তুলেছেন হাটের ওই দুই সদস্যের বিরুদ্ধে। এ বিষয়ে চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) তরিকুল ইসলাম বলেন, আমি ঘটনাটি শুনেছি। ওখানে কোন ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেনি। হাটের লোকজনের কাছে হাটপাশ না দেখিয়ে তিন গরুব্যবসায়ী চলে আসলে তাদের সাথে মারামারি মত ঘটনা ঘটেছে। তবে তারা মামলা করলে আমরা মামলা নিয়ে তদন্ত করে বিষয়টি দেখবো। সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তোজাম্মেল হক বলেন, ওখানে কোন ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে নাই। হাটপাশ নিয়ে গরুব্যবসায়িদের সাথে মারামারি হয়েছে।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।