চুয়াডাঙ্গা জেলাকে মাদক মুক্ত করতে পুলিশের উদ্যোগ ৯ দিনে ৩৬১ মাদকব্যবসায়ীর আত্মসর্মপণ

284

নিজস্ব প্রতিবেদক: চুয়াডাঙ্গা জেলাকে মাদকমুক্ত করতে পুলিশের অব্যাহত উদ্যোগে মাদকব্যবসায়ীরা সাড়া দিয়েছে। গতকাল জেলার ৮৯ জন মাদকব্যবসায়ী তাদের পরিচয় গোপন রাখা ও পূনর্বাসনের শর্তে আত্মসমর্পণ করেছে। গতকাল দুপুরে চুয়াডাঙ্গা পুলিশ পার্কের কনফারেন্স কক্ষে মাদকব্যবসায়ীদের আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠিত হয়। গতকাল ৮৯ জনের আত্মসমর্পণের পর গত ৯ দিনে এর সংখ্যা দাঁড়ালো ৩৬১ জন। চুয়াডাঙ্গা ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার বেলায়েত হোসেন জানান, চুয়াডাঙ্গা জেলাকে মাদকমুক্ত করতে পুলিশ প্রশাসন দীর্ঘদিন থেকে জেলার মাদকব্যবসায়ীদের সাথে আত্মসর্মপণ করার বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করে আসছিল। এবিষয়ে মাদক ব্যবসায়ীরা পুলিশের কাছে শর্ত দেয় তাদের পরিচয় গোপন রাখলে তারা আত্মসর্মপণ করবে। পুলিশ তাদের এ শর্ত মেনে নেওয়ায় আত্মসর্মপণে রাজি হয় মাদকব্যবসায়ীরা। তিনি আরও জানান, মানুষ ভুল করে, তবে তারা যদি পুলিশের কাছে নিজের দোষ স্বীকার করে আলোর পথে আসতে চায় তাহলে তাকে সুযোগ দেওয়ায় প্রথম কাজ। গতকাল চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ৪৪ জন, আলমডাঙ্গা থানার ৮ জন, দামুড়হুদা থানার ২৫ জন এবং জীবননগর থানার ১২ জন মোট ৮৯ জন তালিকাভূক্ত মাদক ব্যবসায়ী আত্মসমর্পণ করে। গত ২১ ফেব্রুয়ারী থেকে ২ মার্চ পর্যন্ত ৯ দিনে চুয়াডাঙ্গা জেলার মোট ৩৬১ জন মাদকব্যবসায়ী ও সেবনকারী পুলিশের কাছে আত্মসর্মপণ করে। গোটা জেলাকে মাদকমুক্ত করতে পুলিশ মাদক ব্যবসায়ী ও সেবনকারীদেরকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছে পুলিশের সহযোগীতা আত্মসমর্পণকারীদের আত্মনির্ভশীল হিসেবে সমাজে প্রতিষ্ঠিত করা হবে। আত্মসর্মপণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার বেলায়েত হোসেন, সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তরিকুল ইসলাম, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তোজাম্মেল হক, পুলিশ পরিদর্শক লিয়াকত হোসেন, চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাব সভাপতি আজাদ মালিতাসহ পুলিশের সকল পর্যায়ের অফিসাররা।