চুয়াডাঙ্গা ও মেহেরপুরের বিভিন্নস্থানে ঈদ পুনর্মিলনী

484

IMG_20170627_150413

সমীকরণ ডেস্ক: পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে চুয়াডাঙ্গা ও মেহেরপুরের বিভিন্ন সংগঠন ঈদ পুনর্মিলনী করেছে। ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানগুলোতে আলোচনা সভা, স্মৃতিচারণমূলক বক্তব্য, মতবিনিময়, প্রীতি ফুটবল ম্যাচ, উন্নতি ও সমৃদ্ধি কামনা দোয়াসহ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।
আলমডাঙ্গা প্রতিনিধি জানিয়েছে, চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ¦ সেখ সামসুল আবেদীন খোকনের আলমডাঙ্গা বাবুপাড়াস্থ বাসভবনে ঈদ পুনর্মিলনী উপলক্ষ্যে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত ২৭ জুন ঈদুল ফিতরের দিন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সেখ সামসুল আবেদিন খোকনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ¦ আলী আজগার টগর। বিশেষ অতিথি ছিলেন আলমডাঙ্গার কৃতি সন্তান ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি শফিকুল ইসলাম, চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তরিকুল ইসলাম, চুয়াডাঙ্গা পৌর মেয়র ওবায়দুর রহমান চৌধুরী জিপু, আলমডাঙ্গা পৌর মেয়র হাসান কাদির গনু, দামুড়হুদা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সিরাজুল আলম ঝন্টু, জেলা কৃষকলীগের সভাপতি ওমর ফারুক জোয়ার্দ্দার, সাধারন সম্পাদক আসাদুজ্জামান কবীর, আলমডাঙ্গা থানা অফিসার ইনচার্জ আকরাম হোসেন, ইউপি চেয়ারম্যান জিল্লুর রহমান, মদনা ইউপি চেয়ারম্যান জাকারিয়া আলম, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি শরিফ হোসেন দুদু, আলমডাঙ্গা বণিক সমিতির সভাপতি মকবুল হোসেন, সাধারন সম্পাদক আমিনুল ইসলাম ঘেটু, পৌর কাউন্সিলর জাহিদুল ইসলাম, এম,এম জোহা ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ ওমর ফারুক, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক সাজ্জাদুল ইসলাম স্বপন, শাহীন রেজা, কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা মাসুদ রানা প্রমূখ।
অন্যদিকে, আলমডাঙ্গা পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের আলোকিত’৭১ বন্ধু সংগঠনের উদ্যোগে পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে ঈদ পূনর্মিলনী অনুষ্ঠিত হয়েছে। আলোকিত’৭১ বন্ধু সংগঠনের সভাপতি পৌর মেয়র হাসান কাদির গনুর সভাপতিত্বে অতিথি হিসেবে ছিলেন আমেরিকা প্রবাসী আলহাজ¦ শেখ আব্দুল কাদের, দর্শনা সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ ড. আব্দুস শহীদ, প্রফেসর তাহাজ উদ্দিন, সাবেক ডাউকি ইউপি চেয়ারম্যান আরসাদুল ইসলাম মন্টু, আলমডাঙ্গা প্রেসক্লাব সভাপতি খন্দকার শাহ আলম মন্টু, সাধারণ সম্পাদক খ. হামিদুল ইসলাম আজম। আলোকিত’৭১ বন্ধু সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক ডাঃ আলী আকবর আকুর উপস্থাপনায় বক্তব্য রাখেন ডাঃ মতিয়ার রহমান, ইছাহক আলী, ওমর আলী, রেজাউল হক, ওমর ফারুক, আমজাদ হোসেন, আব্দুর রহীম জোয়ার্দ্দার, মোসলেম উদ্দিন, মানোয়ার হোসেন, দলিলুর রহমান, বজলুর রহমান, কাজী আনোয়ার হোসেন, জমির উদ্দিন, অর্ধেন্দু কুমার সাহা, আঃ রইস, মইন উদ্দিন, আব্দুস সামাদ, মোজাম্মেল হক, ছকির উদ্দিন, ইউনুস আলী, আঃ হামিদ  প্রমূখ।
অপরদিকে, আলমডাঙ্গা উপজেলা হারদী ইউনিয়নের ঐতিহ্যবাহী মোড়ভাঙ্গা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে গত ২৭জুন, সোমবার সকাল ৯টায় মোড়ভাঙ্গা প্রভাতী শিশু কুন্দু স্কুলের ২৫বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে রজতজয়ন্তী উৎসব অনুষ্ঠিত হয়।
পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত ও জাতীয় পতাকা ও রজত জয়ন্তী উৎসব পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে সকাল ৯টায় উক্ত অনুষ্ঠান শুরু হয়। ঐতিহ্যবাহী মোড়ভাঙ্গা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়রে সকলের শ্রদ্ধাভাজন সাবেক প্রধান শিক্ষক মরহুম নূর বখশ মিয়া স্যারের হাতে গড়া মোড়ভাঙ্গা প্রভাতী শিশু কুন্দু স্কুলের রজত জয়ন্তী উৎসব কমিটির আহবায়ক অধ্যাপক মো. আকতার হোসেন এর স্বাগত বক্তব্য প্রদানের মধ্যে দিয়ে উক্ত অনুষ্ঠানের আমন্ত্রিত সুধীজনেরা শ্রদ্ধেয় হেড স্যারের স্মৃতি করে বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদ সদস্য মো. আশরাফুল হক ঠান্ডু, প্রধান আলোচক ছিলেন ভাংবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. কাওসার আহমেদ বাবলু, হারদী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. নূরুল ইসলাম এবং অত্র স্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. আমজাদ হোসেন। এছাড়াও আরও বক্তব্য প্রদান করেন ড. মো.ফিরোজুল ইসলাম, ড. মো. ইমদাদুল হুদা মুকুল, আব্দুল মান্নান ফকির, আবু সাঈদ, কোরবান আলী প্রমূখ। সকল বক্তাগণ এই স্কুলটির উত্তরোত্তর উন্নতি ও সমৃদ্ধি কামনা করেন। দুপুরে নামাজ ও মধ্যভোজের বিরতি শেষে বেলা আড়াইটায় স্কুলের প্রাক্তন ও বর্তমান ছাত্র-ছাত্রীদের অংশগ্রহনে মনোজ্ঞ সংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে দিনব্যাপী এই রজত জয়ন্তী উৎসব অনুষ্ঠান শেষ হয়। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনায় ছিলেন আবুল কাশেম এবং সভাপতি ছিলেন অত্র স্কুল ম্যানজিং কমিটির সভাপতি আব্দুর রউফ শিলু।
দামুড়হুদা প্রতিনিধি জানিয়েছে, পবিত্র ঈদুল-ফিতর উপলক্ষে দামুড়হুদা স্পোর্টিং ক্লাব আয়োজিত ঈদ পুনর্মিলনী ও প্রীতি ফুটবল ম্যাচে দামুড়হুদা স্পোর্টিং ক্লাব ড্রীম সেন্টার পাবলিক লাইব্রেরির বিপক্ষে ৩-২ গোলে জয়লাভ করে। খেলার শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন দামুড়হুদা ক্রীড়া সংস্থার কোষাধ্যক্ষ মোঃ হাশেম এবং দামুড়হুদা স্পোর্টিং ক্লাবের সভাপতি এখলাছ উদ্দীন সুজন। খেলায় দামুড়হুদা স্পোর্টিং ক্লাবের পক্ষে আসাদুল, ইমরান ও হোসেন নিজ নিজ দলের পক্ষে একটি করে গোল করে জয় নিশ্চিত করেন, ড্রীম সেন্টারের পক্ষে সাবেক কৃতি খেলোয়াড় জাকির ও শাজাহান একটি করে গোল করেন। খেলাটি পরিচালনা করেন অভিজ্ঞ রেফারি শহীদ আজম সদু। খেলা শেষে খেলোয়াড়দের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।
গাংনী প্রতিনিধি জানিয়েছে, ২৩ বছর আগের সেই স্বপ্নময় অতীত  আজও প্রাণে নাড়া দেয়। আবারোও মাঝে মাঝে অবসর সময়ে ভাবনা আসে ফিরে যায় সেই মধুর স্মৃতিময় দিন গুলোতে। চিন্তাহীন মুক্ত আকাশে পাখির মত ডানা উরিয়ে বেরাতে মন চাই। কিন্তু জীবন বড় কঠিন। এই কঠিন বাস্তবতায় কেউ সংসার জীবনে আবার চাকুরী সুবাদে ব্যস্ততার কারণে একঝাক বন্ধুরা হারিয়ে ফেলেছিল তাদের নীড়। কিন্তু শত ব্যস্ততাকে বৃদ্ধা আঙ্গুলী দেখিয়ে ২৩ বছর পর আবারও প্রাণের মেলায় মিললো ওরা। ঈদুল ফিতরের ছুটিকে কাজে লাগিয়ে ওরা আবারো সেই ছেলে বেলার দুষ্টমিতে মেতেছিল ওরা। ঈদুল ফিতরের পরদিন মঙ্গলবার দিনব্যাপী নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে দিনটি পার করে মেহেরপুর গাংনী পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও কলেজের এসএসসি ৯৪ ব্যাচের বন্ধুরা। মঙ্গলবার বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন সাবেক সহকারী শিক্ষক সিরাজুল ইসলাম ও আব্দুল কাদের। ৯৪ ব্যাচ’ বন্ধু প্রভাষক শফি কামাল পলাশ, রাইপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মিজানুর রহমান, প্রভাষক কামাল হোসেন, নাজমুল হাসান বাবুল, বিআরবির এরিয়া ম্যানেজার কামরুজ্জামান মিন্টু, মেহেরপুর সরকারী কলেজের ইংরেজি বিভাগের প্রভাষক কাবেল উদ্দীন, ধামরাই সরকারী কলেজের সহকারী অধ্যাপক নুরুন্নাহার সিল্কি, স্কুল শিক্ষিকা তন্দ্রা ও  ছন্দ্রা। তবে শিক্ষকদের মধ্যে বক্তব্য দিতে গিয়ে কান্নাবিজড়িত কন্ঠে আব্দুল কাদের বলেন, দীর্ঘদিন অবসর গিয়েছে এই বিদ্যালয় প্রাঙ্গন ছেড়ে। তার পর আজো পযর্ন্ত কোন শিক্ষক বা ছাত্র সম্মান দেখিয়ে এই বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে ডাকেনি। দীর্ঘবছর পর হলেও ডাক পেয়েছি সেই প্রাণের বিদ্যালয়ে। তাই দেরি না করে ছুটে এসেছি।
বারাদী প্রতিনিধি: মেহেরপুর সদর উপজেলার জাদুখালি মাধ্যমিক বিদ্যালয় এন্ড বিএম কলেজের ২০০০ সালের এসএসসি ব্যাচের ঈদ পূনর্মিলনী অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান মিলনায়তনে জিয়াউর রহমানের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠান করা হয়। এসময় অন্যন্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কাবিরুল ইসলাম, সাহাজুল ইসলাম, মোসারফ হোসেন, এনামুল হক, মনিরুল ইসলাম, নাসিম উদ্দিন, জহিরুল ইসলাম, আকবর আলী, জাহাঙ্গীর হোসেন, মহিবুর রহমান, নুরুল ইসলাম, দৌলত হোসেন, ফরিদুল ইসলাম মুন্সি, আফরোজ প্রমূখ। পরে সেখানে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান করা হয়।
মুজিবনগর প্রতিনিধি জানিয়েছে, মুজিবনগরের দারিয়াপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের এসএসসি-১৯৯৫ ব্যাচের ঈদ পূর্ণমিলনী অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বুধবার মুজিবনগর সরকারী ডিগ্রী কলেজ চত্তরে এই উপলক্ষে বন্ধু আনন্দ উৎসব আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। সভাপতিত্ব করেন অত্র ব্যাচের বন্ধু কমিটির সভাপতি ও মোনাখালী ইউপি চেয়ারম্যান মফিজুর রহমান। স্বাগত বক্তব্য রাখেন অত্র কমিটির সাধারন সম্পাদক আবু সালেহ। বক্তব্য রাখেন সহ-সভাপতি বাছেদ আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক তারিকুল বারী, ডাঃ ইয়ানুর হোসেন ও ক্যাসিয়ার জান মোহাম্মদ প্রমুখ। বন্ধু আনন্দ উৎসব ঈদ পূর্ণমিলনী অনুষ্ঠানে ‘৯৫ ব্যাচের বন্ধুরা উপস্থিত ছিলেন। আগামীতে অসহায় মানুষের পাশে দাড়ানোর অঙ্গিীকার করেন সংগঠনটি। শেষে আনন্দ র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়।
মুজিবনগর প্রতিনিধি জানিয়েছে, গতকাল বুধবার মুজিবনগর পর্যটন মোটেলে দুপুর ২টায় ঈদ পরবর্তী পুণর্মিলণী অনুষ্ঠান  অনুষ্ঠিত হয়েছে। অব্দুর রশিদের নেতৃত্বে শতাধিক নেতাকর্মীর উপস্থিতিতে এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাইজিং গ্রুপের এজিএম সোহেলসহ উপজেলার অন্যান্য নেতাকর্মীরা। এ আনন্দঘন পরিবেশে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করেন আব্দর রশিদ। সব শেষে প্রীতিভোজের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানটি শেষ হয়।