চুয়াডাঙ্গা ও জীবননগরে বিশ্ব যক্ষা দিবস পালিত

281

সচেতনতা বাড়াতে বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও আলোচনা সভার মধ্যে দিয়ে
সমীকরণ প্রতিবেদন:
“এখনই সময় অঙ্গীকার করার, যক্ষা মুক্ত বাংলাদেশ গড়ার” প্রতিপাদ্যে চুয়াডাঙ্গা ও জীবননগরে বিশ্ব যক্ষা দিবস পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে গতকাল সোমবার পৃথক সময়ে র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
চুয়াডাঙ্গা:
“এখনই সময় অঙ্গীকার করার, যক্ষা মুক্ত বাংলাদেশ গড়ার” প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে বিশ্ব যক্ষা দিবস উপলক্ষে চুয়াডাঙ্গা সিভিল সার্জন অফিসের আয়োজনে র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার সকালে সিভিল সার্জন অফিসের সামনে থেকে একটি র‌্যালি বের হয়ে প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে একই স্থানে এসে শেষ হয়। পরে সদর হাসপাতাল সম্মেলন কক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় সিভিল সার্জন ডা. খাইরুল আলম বলেন, ১৮৮২ সালের এ দিনে ড. রবার্ট কোচ যক্ষ্মার জীবাণু আবিষ্কার ও এ রোগ নির্ণয় ও নিরাময়ের পথ উন্মোচন করেন। তাকে স্মরণ করেই এই দিনটিতে যক্ষ্মা দিবস পালিত হয়ে থাকে। দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য ‘এখনই সময় অঙ্গীকার করার, যক্ষ্মা মুক্ত বাংলাদেশ গড়ার’। যক্ষা এখন আর মারাত্মক রোগ নয়। এখন বিনামূল্যে যক্ষার চিকিৎসা দেওয়া হয়ে থাকে, যক্ষায় এখন মানুষ মরেনা। একটু সচেতন হলেই যক্ষা এড়ানো সম্ভব, যেমন মাক্স ব্যবহার করা কাশি হলে দ্রুত পরীক্ষা নিরিক্ষা করা। যক্ষার পরীক্ষা নিরিক্ষা করাতে কোন খরচ লাগে না, এমকি তাদেরকে হাসপাতালে আসা যাওয়ার খরচ পর্যন্ত দেওয়া হয়ে থাকে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. শামিম কবীর, ডা. শাহাদাৎ হোসেন, ডা. এহসানুল হক তম্ময়, ডা. পরিতোষ কুমার ঘোষ, ডা. আবুল হোসেন, ডা. তারিখ হাসান শাহিন, ডা. ওয়ালীউর রহমান নয়নসহ হাসপাতালের সেবিকা ও কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
জীবননগর:
“এখনই সময় অঙ্গীকার করার, যক্ষা মুক্ত বাংলাদেশ গড়ার” এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে জীবননগরে বিশ্ব যক্ষা দিবসের র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে সরকারি স্বাস্থ্য বিভাগ, সহযোগী সংস্থা সমূহ ও ব্র্যাকের আয়োজনে বিশ্ব যক্ষা দিবস উপলক্ষে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে একটি র‌্যালি বের হয়। র‌্যালিটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের হলরুমে একটি আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কনসালটেন্ট ডা. রফিকুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন ডা. মাহমুদা খাতুন, ডা. মাহমুদ বিন হেদায়েত সেতু, ইপিআই জুলফিক্কার রহমান, ব্র্যাকের কর্মকর্তা ইমাম হাসান, প্রধান সহকারী আবু তালেব মোল্লা প্রমুখ।