চুয়াডাঙ্গা মঙ্গলবার , ১৪ এপ্রিল ২০২০
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চুয়াডাঙ্গায় ৬৬ জনকে প্রায় ৩৭ হাজার টাকা জরিমানা

সমীকরণ প্রতিবেদন
এপ্রিল ১৪, ২০২০ ১২:২৫ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

Girl in a jacket

নিজস্ব প্রতিবেদক:
করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সরকারি নির্দেশনা না মানায় চুয়াডাঙ্গার বিভিন্ন স্থানে ভ্রাম্যমাণ আদালতে ৬৬ জনের কাছ থেকে ৩৬ হাজার ৪ শ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। প্রতিদিনের ন্যায় সোমবার (১৩ এপ্রিল) দিনব্যাপী চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটগণ জেলার বিভিন্ন স্থানে এ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। ভ্রাম্যমাণ আদালতে জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে শুরু করে, চুয়াডাঙ্গা শহরের বিভিন্ন স্থানে বেশ কয়েকটি দোকান, প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তিকে জরিমানা করা হয়েছে।
জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, বিদেশ ফেরতদের হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিতকরণ, জনসমাবেশ বন্ধ করা, বাজার মনিটরিং এবং সামাজিক দূরুত্ব বজায় রাখার জন্য নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটগণের নেতৃত্বে দিনব্যাপী সেনাবাহিনী ও পুলিশ প্রশাসন সহযোগিতায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়। দিনব্যাপী চুয়াডাঙ্গার বিভিন্ন স্থানে এ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাদিকুর রহমান। তিনি একটি মামলায় ১ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন। দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ১২ জনের কাছ থেকে ৫ হাজার ৫ শ টাকা আদায় করেন। সদর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ইসরাত জাহান ভ্রাম্যমাণ আদালতে ৯ জনের কাছ থেকে ৪ হাজার ৮ শ টাকা আদায় করেন। দামুড়হুদা উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) মহিউদ্দিন ৬ জনের কাছ থেকে ৭ হাজার ৫ শ টাকা আদায় করেন। আলমডাঙ্গা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) হুমায়ন কবির একজনের কাছ থেকে ১ হাজার টাকা আদায় করেন। জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সিব্বির আহমেদ ২ জনের কাছ থেকে ২ হাজার ২ শ টাকা আদায় করেন। জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পপি খাতুন একজনের কাছ থেকে ৩ শ টাকা আদায় করেন। জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শিবানী সরকার একজনের কাছ থেকে ২ শ টাকা আদায় করেন। জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আমজাদ হোসেন একজনের কাছ থেকে ৩ শ টাকা আদায় করেন। জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট খায়রুল ইসলাম একজনের কাছ থেকে ১ হাজার টাকা আদায় করেন। জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জান্নাতুল ফেরদৌস ৫টি মামলায় ২ হাজার ৬ শ টাকা জরিমানা আদায় করেন। জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফিরোজ হোসেন ১৪ জনের কাছ থেকে ৭ হাজার ২ শ টাকা আদায় করেন। জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সুরাইয়া মমতাজ ৪ জনের কাছ থেকে ৯ শ টাকা আদায় করেন। জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হাবিবুর রহমান ৮ জনের কাছ থেকে ২ হাজার ৩ শ টাকা আদায় করেন।

Girl in a jacket

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।