চুয়াডাঙ্গা শনিবার , ২১ মার্চ ২০২০
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চুয়াডাঙ্গায় ১৪৪ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে

সমীকরণ প্রতিবেদন
মার্চ ২১, ২০২০ ১২:২৩ অপরাহ্ণ
Link Copied!

হোম কোয়ারেন্টাইন না মানায় দামুড়হুদায় দুই প্রবাসীকে জরিমানা
নিজস্ব প্রতিবেদক:
করোনা আক্রান্ত সন্দেহে চুয়াডাঙ্গায় বিদেশ ফেরত ১৪৪ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যা পর্যন্ত চুয়াডাঙ্গার চারটি উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে তাঁদেরকে নিজ বাড়িতে কোয়ারেন্টাইন করা হয়েছে। এদের মধ্যে ভারত, সৌদি আরব, সিঙ্গাপুর, ইতালি, কোরিয়াসহ বিভিন্ন দেশ থেকে বাংলাদেশে ফিরেছে। হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা প্রবাসীদের মধ্যে রয়েছেন চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলায় ৩৩ জন, জীবননগর উপজেলার ৪২ জন, আলমডাঙ্গা উপজেলার ৩৯ জন ও দামুড়হুদা উপজেলার ৩০ জন। এছাড়া চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন একজন। এদিকে, সরকারের পক্ষ থেকে চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসনের নিকট গত তিন মাসে প্রবাস থেকে ফিরে আসাদের একটি তালিকা দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। তালিকাটিতে চুয়াডাঙ্গা জেলার চার উপজেলার ৭ হাজার ৭৯০ জনের নাম আছে।
জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার জানান, হোম কোয়ারেন্টাইন মানা হচ্ছে কি না, সে বিষয়ে সার্বক্ষণিক মনিটরিং করা হচ্ছে। যাঁরা বিদেশ ফেরত, তাঁদেরকে কোনোভাবেই সহজভাবে নেওয়ার কোনো সুযোগ নেই। বিদেশ ফেরত সবাইকে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন মেনে চলতেই হবে। না মানলে সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইন ২০১৮ অনুযায়ী এবং দণ্ডবিধি অনুযায়ী তাঁদের জেল-জরিমানা উভয় দণ্ড হতে পারে।
চুয়াডাঙ্গার সিভিল সার্জন ডা. এ এস এম মারুফ হাসান জানান, ‘করোনায় আক্রান্ত সাব্বিরের সংস্পর্শে আসা প্রত্যেককে হোম কোরারেন্টাইনে থাকার জন্য বলা হয়েছে। আমরা চেষ্টা করছি যাতে করোনা ভাইরাসটি ছড়াতে না পারে, সে জন্য মানুষের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে। আমাদের স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মীরা মাঠ পর্যায়েও কাজ করছে।’
চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসনের করোনা সেলের দায়িত্বে থাকা সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আমজাদ হোসেন জানান, ‘আমরা একটি তালিকা পেয়েছি আজই (শুক্রবার)। যেটি সরকারের পক্ষ থেকে পাঠানো হয়েছে। সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী কাজ করা হবে।’
এদিকে, হোম কোয়ারেন্টাইনের নির্দেশনা অমান্য করায় দামুড়হুদায় দুইজনকে ১২ হাজার ৫ শ টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। জানা গেছে, দামুড়হুদা উপজেলার জামী পাড়ার মালেশিয়া প্রবাসী আলমগীরকে সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল ) আইন ২০১৮ অনুযায়ী ৫ হাজার টাকা ও কুড়ুলগাছির গ্রামের মালেশিয়া প্রবাসী শফিকুলকে ৭ হাজার ৫ শ টাকা জরিমানা করেন দামুড়হুদা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. মহিউদ্দিন।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।