চুয়াডাঙ্গা বৃহস্পতিবার , ১১ জানুয়ারি ২০১৮
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চুয়াডাঙ্গায় ১০ চিকিৎসকের কাছে চাঁদা দাবি : হত্যার হুমকি

সমীকরণ প্রতিবেদন
জানুয়ারি ১১, ২০১৮ ১২:২০ অপরাহ্ণ
Link Copied!

চরমপন্থী সংগঠন এমএল জনযুদ্ধ’র শীর্ষ নেতা বিপ্লব পরিচয় দিয়ে মোবাইলে
ডেস্ক রিপোর্ট: চুয়াডাঙ্গার সিভিল সার্জনসহ সদর হাসপাতালের ১০ চিকিৎসককে চাঁদা চেয়ে হত্যার হুমকি দেয়া হয়েছে। চরমপন্থী সংগঠন পূর্ব-বাংলা কমিউনিষ্ট পাটি এম-এল জনযুদ্ধ’র শীর্ষ নেতা পরিচয় দিয়ে জনৈক বিপ্লব এই চাঁদা দাবি করেন। গত দুই দিন ধরে মোবাইল ফোনে এই হত্যার হুমকি দেয়া হয়। ধার্য টাকা আগামী ৭ দিনের মধ্যে না দিলে সিভিল সার্জনসহ ওই ১০ চিকিৎসককে স্বপরিবারে হত্যার হুমকিও দেয়া হয়। এ ঘটনার পর চুয়াডাঙ্গা স্বাস্থ্য বিভাগের চিকিৎসকদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। অনেকে জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় সাধারণ ডায়েরী করেছেন।
চুয়াডাঙ্গা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তোজাম্মেল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, যে দুটি নাম্বার দিয়ে চিকিৎসকদের কাছে চাঁদা চেয়ে হুমকি দেওয়া হচ্ছে সেই নাম্বারের কললিস্ট সংশ্লিষ্ট অপারেটরদের কাছে চাওয়া হয়েছে।
চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) জানান, মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ০১৬৩৬-৪৭৬০৮৭ নাম্বার থেকে সিভিল সার্জন ডা. খায়রুল আলমের কাছে ফোন আসে। ফোনে জনৈক ব্যক্তি নিজেকে চরমপন্থী সংগঠন পূর্ব-বাংলা কমিউনিষ্ট পাটি এমএল জনযুদ্ধ’র শীর্ষ নেতা বিপ্লব পরিচয় দিয়ে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। এই টাকা আগামী ৭ দিনের মধ্যে না দিলে সিভিল সার্জনের পরিবারের সদস্যদের হত্যার হুমকি দেওয়া হয়। একই ভাবে হাসপাতালের মেডিসিন কনসালট্যান্ট ডা. পরিতোষ কুমার ঘোষ, চক্ষু কনসালট্যান্ট শফিউজ্জামান সুমন ও সিভিল সার্জন অফিসের পরিসংখ্যক কর্মকর্তা আখতারুজ্জামানের কাছেও চাঁদা চেয়ে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়। সিভিল সার্জন ডা. খায়রুল আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, একই ভাবে গত সোমবারও সদর হাসপাতালের জুনিয়র কনসালটেন্ট এনেসথেসিয়া ডা. গোলাম মোর্শেদ ডালিমসহ বেশ কয়েকজন চিকিৎসকের কাছে ০১৮৬৩-৬৯০৯৩৭ নাম্বারের মোবাইল থেকে ফোন করে চাঁদা চেয়ে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়।
এ বিষয়ে চুয়াডাঙ্গা সিভিল সার্জন অফিসের প্রধান সহকারী আব্দুস সবুর সদর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেছেন।
এদিকে, গত দুই দিনে চুয়াডাঙ্গা সিভিল সার্জনসহ সদর হাসপাতালের ১০ চিকিৎসকের কাছে চাঁদা চেয়ে হত্যার হুমকি দেওয়ার ঘটনায় স্বাস্থ্য বিভাগের চিকিৎসক ও নার্সদের মধ্যে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে। অনেকে মেডিকেলের ছুটি দেখিয়ে কর্মস্থল থেকে দুরে থাকার চেষ্টা করছেন।
চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার (এসপি) মাহবুবুর রহমান পিপিএম জানান, এ বিষয়টিকে সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়ে পুলিশ অনুসন্ধান কাজ শুরু করেছে। মোবাইল কল লিস্টের সূত্র ধরে পুলিশের একাধিক টিম মাঠে রয়েছে। খুব শীঘ্রই কথিত ওই চরমপন্থীকে গ্রেফতারে সক্ষম হবে পুলিশ।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।