চুয়াডাঙ্গা শুক্রবার , ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চুয়াডাঙ্গায় স্বাস্থ্যবিষয়ক কার্যক্রম তদারকিকালে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কর্মকর্তা ডা. খুরশীদ আলম

হাসপাতালের বিভিন্ন সমস্যা দ্রুত সমাধান করার নির্দেশ
সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
সেপ্টেম্বর ৩০, ২০২২ ৯:০৫ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

রুদ্র রাসেল: চুয়াডাঙ্গা জেলার স্বাস্থ্যবিষয়ক কার্যক্রম তদারকি করেছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও লাইন ডাইরেক্টর টিবি- এল অ্যান্ড এএসপি ডা. মো. খুরশীদ আলম। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত চুয়াডাঙ্গা সদর উপেজেলার বিভিন্ন স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করেন তিনি। এসময় ডা. মো. খুরশীদ আলমের সফরসঙ্গী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এইডস এসটিডি প্রোগ্রাম সিনিয়র ম্যানেজার আক্তারুজ্জামান, জাতীয় যক্ষা নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচির বিভাগীয় টিবি এক্সপার্ট ডা. শাহ মেহেদি বিন জহুর।

জানা যায়, স্বাস্থ্যমন্ত্রীর নির্দেশে চুয়াডাঙ্গা জেলার স্বাস্থ্য সেবার গুণগত পরিবর্তন আনা, কাজের মনিটরিং ও স্বাস্থ্যবিষয়ক কার্যক্রম তদারকি করার জন্য এ জেলায় আসেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও লাইন ডাইরেক্টর টিবি- এল অ্যান্ড এএসপি, ডা. মো. খুরশীদ আলম। গত বুধবার সকালে তিনি চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও দুপুরে দামুড়হুদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরির্দশন করেন। এরপর বিকেলে তিনি চুয়াডাঙ্গা সার্কিট হাউজে ওঠেন। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল নয়টায় তিনি চুয়াডাঙ্গা সিভিল সার্জনকে সঙ্গে নিয়ে হাসপাতাল সড়কে অবস্থিত ব্র্যাকের যক্ষ্মা নির্ণয়কেন্দ্র পরির্দশন করেন। এরপর সাড়ে নয়টায় চুয়াডাঙ্গা বক্ষব্যাধি হাসপাতাল পরিদর্শন করেন ও হাসপাতালের বিভিন্ন সমস্যা দ্রুত সময়ের মধ্যে সমাধান করার জন্য নির্দেশ দেন। এরপর তিনি চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের আসেন ও হাসপাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ড পরিদর্শন করেন।

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল পরিদর্শনকালে উপস্থিত ছিলেন সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. আতাউর রহমান, সিনিয়র সার্জারি কনসালটেন্ট ডা. ওয়ালিউর রহমান নয়ন, পেডিয়াট্রিক কনসালটেন্ট ডা. মাহাবুবুর রহমান মিলন, অর্থপেডিক কনসালটেন্ট ডা. আব্দুর রহমান, ডা. মিলোনুজ্জামান জোয়ার্দ্দার, কার্ডিওলজি কনসালটেন্ট ডা. আবুল হোসেন, সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা. ফাতেহ আকরাম, মেডিকেল অফিসার (প্যাথলজি) ডা. শিরিন জেবিন সুমি, ডা. শামিমা ইয়াসমিন, ডা. সাজিদ হাসানসহ হাসপাতালের কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।

পরিদর্শন শেষে ডা. মো. খুরশীদ আলম বলেন, ‘স্বাস্থ্যসেবার গুণগত পরিবর্তন আনা, কাজের মনিটরিং ও স্বাস্থ্য বিষয়ক কার্যক্রম তদারকি করার জন্য স্বাস্থ্যমন্ত্রীর নির্দেশে আমরা চুয়াডাঙ্গা জেলার বিভিন্ন স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠান পরিদর্শনের জন্য আমরা এসেছি। স্বাস্থ্যসেবার কাজের পরিধি ব্যাপক হওয়ায় শুধুমাত্র কয়েকজন চিকিৎসক, নার্স বা স্বাস্থ্যকর্মী দ্বারা তা পরিচালনা করা সম্ভব নয়। চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল ভিজিট করে দেখেছি অনেক লিমিটেশনের মধ্যদিয়ে এখানকার চিকিৎসকেরা তাঁদের দায়িত্ব পালন করছেন। এটি ১ শ শয্যা হাসপাতাল হলেও জনবল সংকট, তবে শয্যার বিপরীতে দ্বিগুন রোগী চিকিৎসাসেবা নিচ্ছে। এখানে লেপারোস্কোপিক মেশিন, ডেন্টাল ইউনিট, অ্যানালাইজার মেশিনসহ স্কেনো মেশিন নেই। আমরা ঢাকা যেয়ে এ সকল যন্ত্রপাতি সরবরাহের ব্যবস্থা করব। আমরা মনে করি আগামীতে এসকল ইন্সুট্রুমেন্টের যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত করার মধ্যদিয়ে চুয়াডাঙ্গার স্বাস্থ্যসেবার গুণগত পরিবর্তন আসবে। এছাড়াও বহিরাগত দালালরা রোগীদেকে যেন হাসপাতাল থেকে ভাগিয়ে নিয়ে না যেতে পারে, এ জন্য সকলকে সহযোগিতা করতে হবে।’

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।