চুয়াডাঙ্গা রবিবার , ৪ জুলাই ২০২১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চুয়াডাঙ্গায় সিনোফার্মের টিকা নিলেন আরও ২৭ জন

সমীকরণ প্রতিবেদন
জুলাই ৪, ২০২১ ৫:২০ অপরাহ্ণ
Link Copied!

Girl in a jacket

নিজস্ব প্রতিবেদক:
চুয়াডাঙ্গায় করোনা টিকাদান কার্যক্রমের ১৫ দিনে আরও ২৭ জন সিনোফার্মের ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ গ্রহণ করেছেন। গতকাল শনিবার সকাল ৯টা থেকে দুপুর দুইটা পর্যন্ত চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের নতুন ভবনের দ্বিতীয় তলায় অবস্থিত করোনা টিকাদান কেন্দ্রে জেলা স্বাস্থ্যবিভাগের পক্ষ থেকে এই টিকা প্রদান করা হয়। গতকাল প্রথম ডোজ গ্রহণকারীদের মধ্যে ১১ জন পুরুষ ও ১৬ জন নারী রয়েছেন। এরমধ্যে পূর্বের রেজিস্ট্রেশনকৃত ১৪ জন, নার্সিং স্টুডেন্ট, নার্স, পুলিশ সদস্য ও অনান্য ১৩ জন।
জানা যায়, গত ১৯ জুন থেকে জেলার একটি মাত্র টিকাদান কেন্দ্রে সিনোফার্মের ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ প্রদান কার্যক্রম শুরু হয়। ১৯ জুন থেকে গতকাল শনিবার পর্যন্ত ১৫ দিনে জেলায় সিনোফার্মের ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ গ্রহণ করেছেন মোট ৮০৬ জন। গত ৭ ফেব্রুয়ারি জেলার চার উপজেলায় বিভিন্ন টিকাদান কেন্দ্রে একযোগে করোনার টিকাদান কার্যক্রম শুরু হয়। ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে ২৪ এপ্রিল পর্যন্ত জেলায় করোনা টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছেন ৫৭ হাজার ৮৭১ জন। ৮ এপ্রিল থেকে শুরু হয় জেলায় করোনা টিকার দ্বিতীয় ডোজ প্রদান কার্যক্রম। ৮ এপ্রিল থেকে ২০ মে পর্যন্ত জেলায় করোনা টিকার দ্বিতীয় ডোজ গ্রহণ করেছেন ৩১ হাজার ১০৪ জন। টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিতে অপেক্ষায় আছেন ২৬ হাজার ৭৬৭ জন। গত ২০ মে করোনা টিকার মজুদ শেষ হওয়ায় জেলায় টিকাদান কার্যক্রম বন্ধ করে দেওয়া হয়। এরপূর্বে গত ২৫ এপ্রিল বন্ধ করে দেওয়া হয় করোনা টিকার প্রথম ডোজ প্রদানের কার্যক্রম। আর অনলাইনে করোনা টিকার রেজিস্ট্রেশন বন্ধ করা হয়েছে গত এপ্রিল মাসের ১৫ তারিখে। জেলায় ফাইজারের টিকা নিতে এ যাবত মোট নিবন্ধন করেছেন ৬৬ হাজার ৫৭৬ জন। তবে এবার জেলা সিভিল সার্জন অফিসে ৪ হাজার ৮০০ ডোজ সিনোফার্মের (চীনের) কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন আসায় প্রথম ডোজের জন্য রেজিস্ট্রেশন করেও টিকা না পাওয়া ৮ হাজার ৪০৫ জনের মধ্যে ২ হাজার ৪০০ জন এই টিকা পাবেন। এই ২ হাজার ৪০০ জনের জন্য দ্বিতীয় ডোজের টিকাও নিশ্চিত মজুদ রাখবে জেলা স্বাস্থ্যবিভাগ। প্রথম ডোজ প্রহণের ৪ সপ্তাহ পরে পর্যায়ক্রমে তাঁদেরকে একই টিকা কেন্দ্র থেকে সিনোফার্মের টিকার দ্বিতীয় ডোজ প্রদান করা হবে।
চুয়াডাঙ্গা করোনা টিকাদান কর্মসূচির আহ্বায়ক ও সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডা. আওলিয়ার রহমান বলেন, ‘জেলায় সিনোফার্মের (চীনের) কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন প্রদান কার্যক্রমের ১৫ দিনে ৮০৬ জন প্রথম ডোজ গ্রহণ করেছেন। টিকা গ্রহণের পর অন্তত ৩০ মিনিট টিকা গ্রহীতাদেরকে অবজারভেশনে রাখা হচ্ছে। এখন পর্যন্ত কারও শরীরে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া বিষয়ে কোন অভিযোগ আসেনি। এই পর্বে যে পরিমান টিকা এসেছে তা দিয়ে ২ হাজার ৪০০ জনের শরীরে প্রথম ও দ্বিতীয় দুইটি ডোজই প্রদান করা যাবে।

Girl in a jacket

Girl in a jacket

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।