চুয়াডাঙ্গায় রোহিঙ্গা সন্দেহে আটক যুবককে পাঠানো হলো রোহিঙ্গা শিবিরে

256

নিজস্ব প্রতিবেদক: চুয়াডাঙ্গা শহরের রেলবাজার থেকে রোহিঙ্গা যুবক সন্দেহে আটক মুনসুর আলম (৩৫) কে কক্সবাজার রোহিঙ্গা শরনার্থী শিবিরে প্রেরণ করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে চট্টগ্রামের বাসযোগে জেলা পুলিশের স্কোয়াড মারফতে তাকে নিয়ে যাওয়া হয়। এরআগে গত বুধবার রাত সাড়ে ৭টার দিকে সদর থানা পুলিশ তাকে আটক করে। আটক মুনসুর আলম তার বাবার নাম কালা মিয়া ছাড়া আর কিছুই বলতে পারিনি। পুলিশ জানায়, মুনসুর আলম নামে এক রোহিঙ্গা যুবক শহরের রেলবাজার এলাকায় ঘোরাঘুরি করছিল। সে স্থানীয় দোকানদারদের বলে, ‘আমার বাবাকে হত্যা করা হয়েছে, আমাকে কিছু খেতে দিন’। তার এসব কথাবার্তায় সন্দেহ হলে দোকানিরা পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ এসে তাকে আটক করে থানায় নেয়। এর আগে সে ট্রেনযোগে চুয়াডাঙ্গা স্টেশনে এসে নামে। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) তরিকুল ইসলাম জানান, আটক যুবক নিজের নাম ও বাবার নাম ছাড়া আর তেমন কিছুই বলতে পারছে না। এছাড়াও তার ভাষাও বোঝা যাচ্ছে না। এ কারণে হেড কোয়ার্টারের নির্দেশ মোতাবেক তাকে জেলা পুলিশের স্কোয়াড দিয়ে কক্সবাজার রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরে পাঠানো হয়েছে।