চুয়াডাঙ্গায় পরিবহন মালিক ও শ্রমিক নেতাদের সঙ্গে জেলা প্রশাসনের সভা

45

নিজস্ব প্রতিবেদক:
চুয়াডাঙ্গায় পরিবহন মালিক ও শ্রমিক নেতাদের সাথে সভা করেছে জেলা প্রশাসন। গতকাল বুধবার সকাল ১০টার দিকে জেলা প্রশাসকের সম্মেলনকক্ষে এ সভার আয়োজন করা হয়। এর আগে গত পরশু মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রীর মানবিক সহায়তার জন্য পরিবহন শ্রমিকদের ডাকা হলে তাঁরা সে খাদ্য সহায়তা প্রত্যাখান করেন।
পরে গতকাল বুধবার তাঁদের সাথে আলোচনা সভায় জেলা প্রশাসক বলেন, করোনা মহামারির কারণে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে ১০ লাখ টাকা বরাদ্দ পাওয়া গেছে। এখান থেকে ত্রাণ-সামগ্রী বিতরণ করা হচ্ছে। সেই ধারাবাহিকতায় পরিবহন শ্রমিকদেরও ডাকা হয়েছিল খাদ্য-সহায়তা দিতে। কিন্তু তাঁরা নিতে এসে ত্রাণ না নিয়ে চলে গেছেন। খুবই ন্যাক্কারজনক ঘটনা। যতদূর শুনেছি, তাঁরা ভেবেছে সরকার থেকে ২৫শ টাকা করে সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু ২৫শ টাকার ওইটা এক জিনিস আর শ্রমিকদেরকে যেটা দেওয়া হচ্ছে সেটা আরেক জিনিস। ২৫শ টাকার ওটা তো প্রশাসনের কাছেই আসবে না, সরাসরি বিকাশের মাধ্যমে পাঠানো হয়। আর প্রশাসন এখন প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া খাদ্য-সহায়তা দিচ্ছে। সেজন্যই শ্রমিকদের তালিকা করে খাদ্য-সামগ্রী দেওয়ার জন্য ডাকা হয়েছিল। এসময় জেলা প্রশাসক পরিবহন মালিক ও শ্রমিক নেতাদের বলেন, ‘আপনাদের দেওয়া তালিকা অনুযায়ী আমরা ত্রাণ দিতে চাই। কবে এসব খাদ্য গ্রহণ করবেন, তার দিনধার্য করেন।’
সভায় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মনিরা পারভীন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সাজিয়া আফরিন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) আবু তারেক, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ সাদিকুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন, সাংগঠনিক সম্পাদক মুন্সি আলমগীর হান্নান, চুয়াডাঙ্গা জেলা মোটর মালিক গ্রুপের সভাপতি সালাউদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম, বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক এ কে এম মইনুদ্দিন মুক্তা, বাস-ট্রাক সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি এম জেনারেল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক রিপন মণ্ডল এবং জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা।