চুয়াডাঙ্গায় পথসভায় আ.লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ডা. মাহবুব মেহেদী

559

শেখ হাসিনার দূরদর্শী ভিশন বাস্তবায়নে কাজ করতে হবে
নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশবরেণ্য চিকিৎসক, বিশিষ্ট অর্থোপেডিক সার্জন, চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চুয়াডাঙ্গা-১ আসনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর ডা. মাহবুব হোসেন মেহেদী পথসভা ও গণসংযোগ করেছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার ৩টা থেকে সন্ধ্যা পযর্ন্ত হাসপাতাল এলাকা, বেলগাছি, জাফরপুর, ডিঙ্গেদহ, ভান্ডারদোহাসহ চুয়াডাঙ্গার বিভিন্ন স্থানে তিনি পথসভা ও গণসংযোগ করেন।
এসময় প্রফেসর ডা. মাহবুব হোসেন মেহেদী বলেন- বঙ্গবন্ধুর আদর্শে ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে বুকে ধারন করে আমাদের এগিয়ে যেতে হবে। ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে উন্নত রাষ্ট্রে উন্নীত করার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী ভিশন নিয়ে দেশ এখন এগিয়ে চলেছে। সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও দূর্নীতিতে যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধে আমাদের এক হয়ে কাজ করতে হবে। তাহলে বঙ্গবন্ধুর সপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তোলা সম্ভব হবে। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের এমপি পদে মনোনয়নের জন্য সবার নিকট দোয়া চেয়ে তিনি আরো বলেন- নানা ক্ষেত্রে যেমন সুনাম রয়েছে চুয়াডাঙ্গা জেলার। তেমনি দেশের অন্যতম অবহেলিত ও উন্নয়ন বঞ্চিত জেলা এটি। এ জেলার মানুষের মধ্যে অধিকাংশই দারিদ্রসীমার নিচে বসবাস করেন। দারিদ্রতা মোকাবিলায় আমার প্রথম ও প্রধান লক্ষ্য হবে এলাকার মানুষের অর্থনৈতিক মুক্তির জন্য কাজ করা। চুয়াডাঙ্গার মানুষের সেবা করতে চাই।
এসময় উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আবু হোসেন, জেলা শ্রমিক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজী আবুল কাশেম, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল হাসেম, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবেজ উদ্দীন, বীর মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার হোসেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু বকর, বীর মুক্তিযোদ্ধা মনোয়ার হোসেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সাত্তার, চুয়াডাঙ্গা জেলা কৃষকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বজলুর রহমান বজলু, জেলা কৃষক লীগের ভুমি বিষয়ক সম্পাদক মশিউর রহমান ডাবলু, সদর থানা কৃষক লীগের আহ্বায়ক আব্দুল মতিন দুদু, সদর থানা যুব লীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক মজিবুর রহমান, খাসকররা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এ এইচ এম মোয়াজ্জেম, ডাউকি আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মুনিয়ার হোসেন, আক্তারুজ্জামান, চিৎলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি লিহাজ উদ্দীন, চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী বাস্তুহারালীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আজগার উদ্দীন (মুন্না), আইলহাঁস ইউনিয়ন যুব লীগের প্রচার সম্পাদক হাসানুজ্জামান কিরণ, খাদিমপুর ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাবুল হক, বারাদি ১নং ওয়ার্ড যুবলীগ সহ-সভাপতি হারুন অর রশিদ, জেহালা ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক আহ্বায়ক মোমিনুর রহমান টুকু, চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইসাহাক আলী বিশ্বাস, পদ্মবিলা ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক সভাপতি হুমায়ন কবির, জেহালা ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা মাহবুব হোসেন, ৮নং ওয়ার্ড যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক তানজীর আহমেদ, জেহালা ইউনিয়ন ৮নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল বারীক, ডাউকি ইউনিয়ন কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক জহুরুল ইসলাম,
পদ্মবিলা ইউনিয়ন কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক মতিয়ার রহমান, শংকরচন্দ্র ৩নং ওয়ার্ড মেম্বার আফিল উদ্দীন, শংকরচন্দ্র ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি আশা মেম্বার, জেহালা ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি মঈন, শংকরচন্দ্র ৩নং ওয়ার্ড মেম্বার আফিল উদ্দীন, পদ্মবিলা ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি শাহ জালাল, ২নং ওয়ার্ড শংকরচন্দ্র আওয়ামী লীগের সভাপতি সাহাবুদ্দিন খোকন, শংকরচন্দ্র ৬নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল জলীল, শংকরচন্দ্র ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সোহাগ হোসেন, পদ্মবিলা ইউনিয়ন যুব লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নাজমুল হাসান নান্নু, পদ্মবিলা পূজা উদ্যাপন কমিটির সভাপতি বিল্পব কুমার দাস, অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ পরিদর্শক ইউনুস মিয়া, চুয়াডাঙ্গা পৌর ছাত্রলীগের সাবেক তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আল মামুন, মাখালডাঙ্গা ইউনিয়ন কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক মুক্তার আলি, সদস্য আহম্মদ আলী, ডা. ডাবলু, ডা. বাবুল বিশ্বাস, চুয়াডাঙ্গা পৌর ৬নং ওয়ার্ড যুবলীগ নেতা ফরিদ জোয়ার্দ্দার, আলমডাঙ্গা বনায়ন সমিতির সভাপতি দেলোয়ার, ডা. ডাবলু, ডা. সুমন, রাকেট জোয়ার্দ্দার, ডা. শাওন, ডা. শরিফুল, ডা. ছদরুল, কারিউল, বিপ্লব আহমেদ, ছানু, সুজন, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সায়হাম, শাহ্তা জারাব, রাফসান, মিশকাত, মামনুন, ছাত্রলীগ নেতা ইমরান, আজিম, রনি, অপু, সোহাগ, হাবিব, প্রমুখ।