চুয়াডাঙ্গায় জমি নিয়ে বিরোধে তিনজনকে কুপিয়ে জখম

নিজস্ব প্রতিবেদক:
চুয়াডাঙ্গার ভালাইপুরে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে চারজনকে কুপিয়ে জখমের অভিযোগ উঠেছে। গতকাল মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ভালাইপুর অসুখ পাড়ায় এই ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসক প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাদের সদর হাসপাতালে ভর্তি করে দেন। এর মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে। এ ঘটনার পর পুরো এলাকা থমথমে বিরাজ করছে। প্রথম পক্ষের আহতরা হলেন- হুচুকপাড়ার তুলা হোসেনের স্ত্রী ওজিলা খাতুন (৬০), তিন ছেলে ইকবাল হোসেন (৩০), হালিম হোসেন (৪০), ডালিম হোসেন (৩৫) ও ইকবালের স্ত্রী সুমাইয়া খাতুন। দ্বিতীয় পক্ষের আহত ব্যক্তি একই এলাকার মৃত খেদমত মণ্ডলের ছেলে ইয়াসিন আলী (৪৫)।
স্থানীয়রা জানায়, মৃত খেদমত আলীর ছেলে ইয়াসিন আলী ও গফুর আলী জোরপূর্বক দখল করার চেষ্টা করে আসছেন ওজিলা খাতুনের জমি। এ নিয়ে দীর্ঘদিন যাবত দুপক্ষের মধ্যে বিরোধ চলে আসছে। এই নিয়ে মঙ্গলবার সকালের দিকে খবর পেয়ে ওজিলা খাতুনের তিন ছেলে ঘটনাস্থলে পৌছালে উভয়পক্ষের পাল্টাপাল্টি হামলার ঘটনা ঘটে। এতে ধারালো অস্ত্রের কোপে দুপক্ষের চারজন গুরুতর জখম হয়। পরে স্থানীয়রা তাদেরকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে।
চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. হাসানুর রহমান বলেন, চারজনের শরীরের বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্রের কোপের জখম হয়েছে। এরমধ্যে ইয়াসিনের আবস্থা আশঙ্কাজনক। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাদের সার্জারি ওয়ার্ডে পাঠানো হয়েছে। চুয়াডাঙ্গা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাহব্বুর রহমান বলেন, জমিজমা সংক্রান্ত বিষয়ে মারামারির ঘটনা শুনেছি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।