চুয়াডাঙ্গা শুক্রবার , ৪ জুন ২০২১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চুয়াডাঙ্গায় এ বছরে এক দিনে সর্বোচ্চ ৫১ জন আক্রান্ত

সমীকরণ প্রতিবেদন
জুন ৪, ২০২১ ১১:২০ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

গত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশে করোনায় ৩০ জনের মৃত্যু, শনাক্ত আরও ১ হাজার ৬৮৭
সমীকরণ প্রতিবেদক:
সারা দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ৩০ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর এই সময়ে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১ হাজার ৬৮৭ জন। গতকাল বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো করোনা ভাইরাস নিয়ে নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। বিজ্ঞপ্তিতে আরেও বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনামুক্ত হয়েছেন ১ হাজার ৯৭০ জন। আর এখন পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ৭ লাখ ৪৬ হাজার ৩৫ জন। নতুন করে মারা যাওয়া ৩০ জনকে নিয়ে দেশে ভাইরাসটিতে শনাক্ত হয়ে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ১২ হাজার ৭২৪ জন। দেশে মোট করোনা রোগীর সংখ্যা ৮ লাখ ৫ হাজার ৯৮০ জন।
গত ২৪ ঘণ্টায় ১৬ হাজার ৭২৩ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হলেও পরীক্ষা করা হয়েছে ১৬ হাজার ৯৭২ জনের। মারা যাওয়া ৩০ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগের ৬ জন। এছাড়া চট্টগ্রামে ৬, রাজশাহীতে ৮, খুলনায় ৩, বরিশালে ১, সিলেটে ২ ও রংপুরে ৪ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে ২১ জন পুরুষ এবং ৯ জন নারী। হাসপাতালের আইসোলেশনে ২৮ জন ও দুইজন মারা গেছেন নিজ বাড়িতে। বয়সভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়াদের মধ্যে ১৮ জনেরই বয়স ৬০ বছরের বেশি। এছাড়া ৫১ থেকে ৬০ বছরের ৬ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের ২ জন এবং ২১ থেকে ৩০ বছরের ৪ জন মারা গেছেন।
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মানদণ্ড অনুযায়ী, কোনো দেশে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে কি না, তা বোঝার একটি নির্দেশক হলো রোগী শনাক্তের হার। কোনো দেশে টানা অন্তত দুই সপ্তাহের বেশি সময় পরীক্ষার বিপরীতে রোগী শনাক্তের হার ৫ শতাংশের নিচে থাকলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে বলে ধরা যায়। ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম নতুন করোনাভাইরাসের সংক্রমণ দেখা দেয়। পরে তা সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ে। দেশে প্রথম করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয় গত বছরের ৮ মার্চ। তারপর ধীরে ধীরে বাড়তে থাকে সংক্রমণ। গত বছরের শেষ দিকে এসে সংক্রমণ কমতে থাকে।
চুয়াডাঙ্গা:
চুয়াডাঙ্গায় একদিনে ৫১ জনের নমুনায় করোনা শনাক্ত হয়েছে। এনিয়ে জেলায় মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ৫১ জনে। গতকাল বৃহস্পতিবার রাত নয়টায় জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ এ তথ্য নিশ্চিত করে। গতকাল কুষ্টিয়া পিসিআর ল্যাব, আলমডাঙ্গা অ্যান্টিজেন টেস্ট ও দামুড়হুদার অ্যান্টিজেন টেস্টসহ মোট ১৮৮টি নমুনার ফলাফল সিভিল সার্জন অফিস প্রকাশ করে। এর মধ্যে ৫১ জনের নমুনায় করোনা শনাক্ত হয়েছে। বাকী ১৩৭টি নমুনার ফলাফল নেগেটিভ আসে। গতকাল নতুন আক্রান্ত ৫১ জনের মধ্যে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার ১৩ জন, আলমডাঙ্গা অ্যান্টিজেন টেস্টে একজন ও দামুড়হুদা অ্যান্টিজেন টেস্টে ৩৭ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। এনিয়ে জেলায় মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ৫১ জনে। মোট শনাক্তদের মধ্যে সদর উপজেলার ১ হাজার ৪৮ জন, আলমডাঙ্গায় ৩৭০ জন, দামুড়হুদায় ৪২১ জন ও জীবননগরে ২১২ জন।
এদিকে, গতকাল জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ করোনা পরীক্ষার জন্য আরও ৮৮টি নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য কুষ্টিয়া পিসিআর ল্যাবে প্রেরণ করেছে। এনিয়ে জেলা থেকে মোট নমুনা সংগ্রহের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১০ হাজার ৩৫৮ জনে। গতকাল জেলা থেকে নতুন কেউ সুস্থ হয়নি। এখন পর্যন্ত জেলায় মোট সুস্থ্য হয়েছে ১ হাজার ৮২০ জন। এর মধ্যে সদর উপজেলার ৯৭৩ জন, আলমডাঙ্গার ৩৪০ জন, দামুড়হুদায় ৩১৫ জন ও দামুড়হুদায় ১৯২ জন সুস্থ হয়েছেন।
চুয়াডাঙ্গা সিভিল সার্জন অফিসের সর্বশেষ তথ্যানুযায়ী জেলা থেকে এ পর্যন্ত মোট নমুনা সংগ্রহ ১০ হাজার ৩৫৮টি, প্রাপ্ত ফলাফল ১০ হাজার ৯২টি, পজিটিভ ১ হাজার ৫১ জন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত চুয়াডায় ১৬৩ জন করোনাক্রান্ত রোগী চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছেন। এর মধ্যে সদর উপজেলায় অবস্থানকালে আক্রান্ত হয়েছেন ৪৭ জন, আলমডাঙ্গায় ১০ জন, দামুড়হুদায় ৯১ জন ও জীবননগরে ১৫ জন। আক্রান্তদের মধ্যে বর্তমানে ১৩৫ জন হোম আইসোলেশনে আছেন। এর মধ্যে সদর উপজেলায় ৩৯ জন, আলমডাঙ্গায় ৮ জন, দামুড়হুদায় ৭৪ জন ও জীবননগরে ১৪ জন। প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশনে আছেন সদর উপজেলার সাতজন, আলমডাঙ্গার একজন, দামুড়হুদার ১৫ জন ও জীবননগরের একজন জনসহ মোট ২৪ জন। চুয়াডাঙ্গায় করোনা আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত মোট মৃত্যু হয়েছে ৬৮ জনের। এরমধ্যে সদর উপজেলার ২৫ জন, আলমডাঙ্গায় ১৭ জন, দামুড়হুদায় ১৬ জন ও জীবননগরে ৪ জন। চুয়াডাঙ্গায় আক্রান্ত অন্য ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে এ জেলার বাইরে। অন্যদিকে, গতকাল করোনা আক্রান্ত আলমডাঙ্গা উপজেলার একজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রেফার্ড করা হয়েছে।
মেহেরপুর:
মেহেরপুরে নতুন করে আরও ১২ জনের নমুনায় করোনা শনাক্ত হয়েছে। এনিয়ে মেহেরপুর জেলায় বর্তমানে ১০৪ জন করোনা আক্রান্ত ব্যক্তি চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে। জানা যায়, গতকাল সিভিল সার্জন অফিস করোনা আক্রান্ত সন্দেহে প্রেরিত ৫৯ টি নমুনার ফলাফল প্রকাশ করে। এর মধ্যে ১২ টি নমুনার ফলাফল পজেটিভ আসে। নতুন আক্রান্ত ১২ জনের মধ্যে মেহেরপুর সদর উপজেলার ৩ জন, গাংনী উপজেলার ৮ জন ও মুজিবনগর উপজেলার ১ জন রয়েছে। মেহেরপুর সিভিল সার্জন ডা. নাসির উদ্দিন জানান, কুষ্টিয়া পিসিআর ল্যাব থেকে প্রাপ্ত ৫৯টি নমুনার পলাফলের মধে ১২টি নমুনায় করোনা শনাক্ত হয়েছে।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।