চুয়াডাঙ্গায় এক নারীর শরীরে করোনা শনাক্ত

131

নিজস্ব প্রতিবেদক:
চুয়াডাঙ্গার সদর উপজেলায় আরও এক নারীকে করোনা শনাক্ত করেছে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। মঙ্গলবার (৫ মে) বেলা ১১টার দিকে চুয়াডাঙ্গা সিভিল সার্জন অফিসে ১৩ জনের রিপোর্ট এসে পৌঁছায়। উক্ত রিপোর্টে ১২ জন নেগেটিভ ও ১ জন পজেটিভ শনাক্ত হয়। এদিকে, করোনা শনাক্ত হওয়ায় ওই নারীকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের আইসোলেসনে চিকিৎসাধীন রাখা হয়েছে। করোনা শনাক্ত নারীর সংস্পর্শে থাকায় তাঁর স্বামী ও শিশু কন্যার নমুনা সংগ্রহ করেছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। এ নিয়ে চুয়াডাঙ্গা থেকে সংগৃহীত নমুনায় মোট ১০ জন করোনা শনাক্ত হয়েছে।
তবে চুয়াডাঙ্গা জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ১২ জন। এর মধ্যে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার বেগমপুর গ্রামের এক ব্যক্তির ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব কিডনি ডিজিজেস অ্যান্ড ইউরোলজি (নিকডু) হাসপাতালে অবস্থানকালে তাঁর শরীরে করোনার উপসর্গ দেয়। এ সময় তাঁর নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠালে প্রাপ্ত রিপোর্টে তিনি করোনা শনাক্ত হন। এছাড়া জীবননগর উপজেলার এক নারী যশোর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় তাঁর শরীরে করোনার উপসর্গ দেয়। এ সময় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাঁর নমুনা সংগ্রহ করে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঠায়। উক্ত নমুনার রিপোর্টে তিনিও করোনা শনাক্ত হয়।
চুয়াডাঙ্গায় করোনা পজেটিভ ওই নারীর বিষয়ে জানতে চাইলে সিভিল সার্জন ডা. এ এস এম মারুফ হাসান জানান, ২৯ এপ্রিল করোনা আক্রান্ত সন্দেহে সংগৃহীত ২৮টি নমুনা পরীক্ষার জন্য যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঠানো হয়। মঙ্গলবার ১৩টি নমুনার রিপোর্ট পেয়েছি, যার মধ্যে ১২ জন নেগেটিভ ও এক নারী করোনা পজেটিভ শনাক্ত হয়েছে। ইতিমধ্যেই ওই নারীকে হাসপাতালের আইসোলেশনে নেওয়া হয়েছে। তার বাড়ি লকডাউন নিশ্চিত করা হয়েছে ও পরিবারের অন্য সদস্যদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।