চুয়াডাঙ্গা বৃহস্পতিবার , ১৭ নভেম্বর ২০১৬
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চুয়াডাঙ্গার সারকারি ২ স্কুলে শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৪ হাজারের উপরে : শিক্ষক মাত্র ২৯ শিশু নির্যাতন বাল্যবিয়ে মাদকের ব্যবহারে শিশুর ব্যবহার রোধে এনসিটিএফের স্মারকলিপি পেশ

সমীকরণ প্রতিবেদন
নভেম্বর ১৭, ২০১৬ ১:৫৩ অপরাহ্ণ
Link Copied!

IMAG3174

নিজস্ব প্রতিবেদক: চুয়াডাঙ্গা জেলার সরকারি স্কুলগুলোতে শিক্ষক সংকট দূর করে শিক্ষার পরিবেশ ফিরিয়ে আনা, বাল্যবিয়ে রোধ, মাদকে শিশুদের আসক্তি ও ব্যবহার দূরকরা এবং শিশু নির্যাতন প্রতিরোধের মাধ্যমে শিশুর বেড়ে ওঠা নিশ্চিত করার দাবিতে চুয়াডাঙ্গা ন্যাশনাল চিলড্রেন টাক্স ফোর্স (এনসিটিএফ) জেলা প্রশাসক সায়মা ইউনুস বরাবর স্বারকলিপি পেশ করেছে। বুধবার বেলা ১টার দিকে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে এনসিটিএফের সদস্য এ স্বারকলিপি দেন। এ সময়ে জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা আফসানা ফেরদৌসী উপস্থিত ছিলেন। স্মারকলিপি থেকে জানা যায়, ‘চুয়াডাঙ্গা জেলার দুইটি নামকরা উচ্চ বিদ্যালয়ের মধ্যে রয়েছে চুয়াডাঙ্গা সরকারী উচ্চ বালিকা বিদ্যালয় ও চুয়াডাঙ্গা ভি. জে. সরকারী উচ্চ বালক বিদ্যালয়। দুইটি বিদ্যালয়ের প্রতিটিতে শিক্ষার্থীর সংখ্যা ২১০০ কাছাকাছি। দুটি বিদ্যালয়েই শিক্ষকের পদ আছে  ৫২টি এবং শিক্ষক রয়েছেন মাত্র ২৯ জন করে। যা খুবই হতাশাজনক। এর ফেলে শিশুরা তাদের শিক্ষার অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে’ বলে দাবি এনসিটিএফের। তাছাড়া ‘চুয়াডাঙ্গাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে শিশু নির্যাতনের ঘটনা ভয়াবহ আকারে বেড়ে গেছে বলে দাবি করে তারা। বাল্য বিয়েতে চুয়াডাঙ্গা দেশের মধ্যে দ্বিতীয় স্থানে থাকায় জেলার সুনাম ক্ষুন্ন হবার পাশাপাশি শিশুরা ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। অন্যদিকে সীমান্তবর্তী জেলা চুয়াডাঙ্গায় মাদকের সহজলফ্যতার কারনে শিশুরা মাদকের দিকে ঝুঁকছে এবং মাদক ব্যবসায় শিশুদেরকে ব্যবহার করার অভিযোগ রয়েছে বলে স্মারকলিপিতে উল্লেখ্য করা হয়। ন্যাশনাল চিলড্রেন টাক্স ফোর্স (এনসিটিএফ) শিক্ষক সংকট দূরসহ উপরে উল্লেখিত বিষষগুলোর বিষয়ে জেলা প্রশাসনে সুদৃষ্টি কামনা করে এর সমাধানে এগিয়ে আসার অনুরোধ জানায়। স্মারকলিপির অনুলিপি শিক্ষা বিষয়ক মন্ত্রানালয় ও মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রানালয়ে প্রেরন করা হয়েছে। স্মারকলিপি দেয়ার সময় এনসিটিএফ চুয়াডাঙ্গা শাখার সহ-সভাপতি মাহফুজা লুবনা শোভা, সাধারন সম্পাদক আশিকুজ্জামান নিশাত, শিশু গবেষক আসাদুজ্জামান, চাইল্ড পার্লামেন্ট জান্নাতুল নাইমা, শিশু সাংবাদিক মোঃ মেহেরাব্বিন সানভী, সদস্য সাকিব আল শোভন, মোঃ সোহানুর রহমান, প্রিন্স আমির, ও মোঃ সাজিদ বিন রশীদ উপস্থিত ছিলেন।  উল্লেখ্য, ন্যাশনাল টাক্সফোর্স (এনসিটিএফ) দীর্ঘ ১৩ বছর ধরে চুয়াডাঙ্গাতে শিশুর অধিকার নিয়ে কাজ করে আসছে। এ বিষয়ে তাদের ‘শিশু কথা’ নামে একটি প্রকাশনাও রয়েছে। ২০০৫ সাল থেকে এনসিটিএফ বাংলাদেশ শিশু একাডেমী চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার মাধ্যমে তাদের কার্যক্রম অব্যহত রেখেছে।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।