চুয়াডাঙ্গা সোমবার , ৫ ডিসেম্বর ২০১৬
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চুয়াডাঙ্গার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার বেলায়েত হোসেনের নেতৃত্বে জেলার আইনশৃঙ্খলার উন্নয়ন ঘটেছে

সমীকরণ প্রতিবেদন
ডিসেম্বর ৫, ২০১৬ ১২:৪৯ অপরাহ্ণ
Link Copied!

bbbbহুসাইন মালিক: চুয়াডাঙ্গার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রেখে জেলার সার্বিক আইনশৃঙ্খলার উন্নয়নে সফলভাবে নেতৃত্ব দিচ্ছেন ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ বেলায়েত হোসেন। গত ৪ নভেম্বর চুয়াডাঙ্গার পুলিশ সুপার রশীদুল হাসান বদলী হয়ে জয়পুরহাটে যোগদান করলে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ বেলায়েত হোসেন ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার হিসেবে দায়িত্ব নেন। রশীদুল হাসানের বিদায়ের পরে জেলাবাসী আতঙ্কিত ছিলো। চুয়াডাঙ্গা জেলাবাসীর ধারণা ছিলো রশীদুল হাসান বিদায় নেওয়ার পরে চুয়াডাঙ্গা আবারও রক্তাক্ত জনপদে পরিণত হবে। কিন্তু গত একমাসে পুলিশের কার্যক্রমে জেলার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি শুধু স্বাভাবিকই নয় বরং আইনশৃঙ্খলার উন্নয়ন ঘটেছে। চা’য়ের দোকানী থেকে শুরু করে সামাজিক, রাজনৈতিক, সাংবাদিকসহ জেলার আমজনতা ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ বেলায়েত হোসেনের নেতৃত্বে শুধু নিরাপদই নয় বরং পুলিশের প্রশংসায় পঞ্চমুখ। প্রথমবারের মত চুয়াডাঙ্গায় অনুষ্ঠিত জেলা ভিত্তিক বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠিত হয়। ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার বেলায়েত হোসেনের দক্ষ নেতৃত্বে এতবড় ধর্মীয় অনুষ্ঠানে একজোড়া স্যান্ডেল চুরি ঘটনাও ঘটেনি এমনকি সাধারণ মুসল্লীরা নিরাপদে বিশ্ব ইজতেমায় অংশগ্রহন করেছে। এছাড়া বিশেষ অভিযান পরিচালনা, চাঁদাবাজী বন্ধ, মাদক বিরোধী অভিযানও অব্যাহত আছে। ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার দায়িত্ব নিয়ে চুয়াডাঙ্গাকে রক্তাক্ত জনপদে পরিণত হতে দেননি মোহাম্মদ বেলায়েত হোসেন। বরং তিনি জেলার  সার্বিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি উন্নয়ন ঘটিয়েছেন। জেলার সার্বিক আইনশৃঙ্খলার বিষয়ে ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার বেলায়েত হোসেনের সাথে কথা বললে তিনি বলেন, চুয়াডাঙ্গা জেলাবাসী পুলিশ বান্ধব, আপনারা আগেও যেমন পুলিশের পাশে ছিলেন এখনও থাকবেন বলে আমি আশা করি। তিনি আরও বলেন চুয়াডাঙ্গাকে সন্ত্রাস ও মাদক মুক্ত করতে চাই এবং এ জেলায় কোন প্রকার ইভটিজিং ও বাল্যবিবাহ বরদাস্ত করা হবে না। এই কাজ গুলো আমি আপনাদের সাথে নিয়ে করে যাচ্ছি এবং করে যাবো।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।