চুয়াডাঙ্গার বলদিয়ায় বিয়ের প্রলোভনে স্বামী পরিত্যাক্তার সাথে অনৈতিক সম্পর্ক, তিন মাসের অন্তঃসত্ত্বা

30

প্রতিবেদক, হিজলগাড়ী:
চুয়াডাঙ্গা সদরের বলদিয়া গ্রামের বাইনেপাড়ার আজমুলের বিরুদ্ধে বিয়ের প্রলোভনে স্বামী পরিত্যাক্তার সাথে প্রেমের সম্পর্ক তৈরি করে অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগ উঠেছে। ভুক্তভোগী ওই নারী বর্তমানে তিন মাসের অন্তঃসত্ত্বা বলে জানা গেছে।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার তিতুদহ ইউনিয়নের বলদিয়া গ্রামের বাইনেপাড়ার সালাম মালিতার ছেলে স্থানীয় হিজলগাড়ী বাজারের আলোচিত নিউ ভ্যানিলা ফুডের ম্যানেজার আজিমুল হোসেন (৩০) একই গ্রামের দিনমজুর জাহাঙ্গীরের স্বামী পরিত্যাক্ত মেয়ে সোনিয়ার (২১) সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। প্রেমের সম্পর্ক চলাকালীন সময়ে আজমুল সোনিয়াকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হন। এরই মাঝে সোনিয়া অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন। অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার বিষয়টি জানতে পেরে সোনিয়া আজমুলকে বিয়ের জন্য চাপ দিলে আজমুল বিষয়টি অস্বীকার করেন। উপায় না পেয়ে সোনিয়া পুরো বিষয়টি তাঁর পরিবারের লোকজনদের জানান। গত শুক্রবার বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে অভিযুক্ত আজমুল গা-ঢাকা দেন।
এ বিষয়ে ভুক্তভোগী সোনিয়া খাতুন জানান, ‘আজমুলের সাথে আমার প্রেমের সম্পর্ক প্রায় পাঁচ বছরের অধিক। আমার বাড়ির লোকজন অন্যত্রে বিয়ে দিলেও আজমুলের কারণে সেই সংসার বেশি দিন টেকেনি। আজমুল বিবাহিত হওয়ায় আমি বিয়ের জন্য বললেল সে আমাকে বলতো বউকে ডির্ভোস দিয়ে তারপর আমাকে বিয়ে করবে। এভাবে সে দীর্ঘদিন আমাকে ঘুরিয়ে নিয়ে বেড়াচ্ছে। আমাদের মধ্যকার প্রেমের সর্ম্পকের বিষয়টি এলাকার প্রায় সকলেই জানে। বর্তমানে আমি ৩ মাসের অন্তঃসত্ত্বা। আমি আমার গর্ভের সন্তানের পিতৃ পরিচয় চাই।’
সোনিয়ার পিতা জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘আজমুলের পিতা এলাকার প্রভাবশালী হওয়ায় গ্রামের কেউ তাদের বিচার-সালিশ করতে রাজি হচ্ছে না। আমি গরীব মানুষ। কার কাছে গেলে বিচার পাব? আমার মেয়ের সাথে যে ঘটনা আজমুল ঘটিয়েছে, আমি তার সুষ্ঠু বিচার চাই।’
এ বিষয়ে আজমুলের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তাঁর খোজ পাওয়া যায়নি এবং তাঁর পরিবারের লোকজনও এই বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি। এই বিষয়ে সুষ্ঠু বিচারের দাবিতে মামলা দায়ের করা হবে বলে জানিয়েছে ভোক্তভোগী সোনিয়ার পরিবারের লোকজন।