চুয়াডাঙ্গা শনিবার , ২৪ ডিসেম্বর ২০১৬
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চুয়াডাঙ্গার জয়রামপুরে মোটরসাইকেলযোগে পাথর বোঝাই ট্রাকের পাশ কাটাতে গিয়ে ধাক্কা মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় প্রাণ গেলো মা-ছেলেসহ তিন জনের : ট্রাকে আগুন

সমীকরণ প্রতিবেদন
ডিসেম্বর ২৪, ২০১৬ ২:৫০ অপরাহ্ণ
Link Copied!

15698277_1376224235745373_1103005944025277720_n

নিজস্ব প্রতিবেদক: চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় পাথর বোঝাই ট্রাকের ধাক্কায় শিশু ও নারীসহ  তিনজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও একজন। জীবননগরের আন্দুলবাড়িয়া থেকে মোটরসাইকেলযোগে দামুড়হুদা যাওয়ার পথে পেছন থেকে একটি ট্রাক এসে মোটরসাইকেলটিকে ধাক্কা দেয়। দ্রুত গতির ট্রাকের ধাক্কায় ছিটকে পড়লে চাকায় পৃষ্ট হন মোটরসাইকেল আরোহী শিশুসহ চার জন। ঘটনাস্থলেই নিহত হন শিশুসহ দুজন। নিহত দুজন এবং গুরুতর আহত অবস্থায় নারীসহ দুজনকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। হাসপাতালের জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ওই নারীকে মৃত ঘোষণা করেন। এদিকে গুরুতর আহত যুবককে সদর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা অথবা রাজশাহী পাঠানোর পরামর্শ দেন। গতকাল শুক্রবার বিকেল ৪টার দিকে চুয়াডাঙ্গা-দর্শনা সড়কের দামুড়হুদা উপজেলার জয়রামপুরে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
নিহতরা হলেন, চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা দশমীপাড়ার জাকিরুল ইসলামের স্ত্রী নাসরিন খাতুন (২৮) ও তার একবছর বয়সী শিশুপুত্র নামজুল ইসলাম নিবিড় ও জাকিরুলের খালাতো ভাই মেহেরপুরের মুজিবনগর মহাজনপুরের মোকাম আলীর ছেলে সাহেব আলী (৩৫)। দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন নাসরিনের ভাই জীবননগর আন্দুলবাড়িয়ার জাহিদুল ইসলাম (২৫)।
জানা গেছে, নাসরিনের পিতার বাড়ি চুয়াডাঙ্গা জীবননগরের আন্দুলবাড়িয়া থেকে ওই চারজন একটি মোটরসাইকেলযোগে দামুড়হুদার দশমীপাড়ায় যাচ্ছিলেন। এ সময় দর্শনা থেকে চুয়াডাঙ্গামুখি পদ্মা সেতুর পাথরবাহী তিনটি ট্রাক তাদের সামনে দিয়ে যাচ্ছিলো। তারা জয়রামপুর শেখপাড়া এলাকায় পৌছুলে পাথর বোঝাই ট্রাকের পাশ কাটিয়ে যাওয়ার সময় পেছন থেকে একটি ট্রাক মোটরসাইকেলে ধাক্কা দেয়। ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী চারজনই ছিটকে পড়ে যায়। ট্রাকের চাকায় পৃষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই সাহেব আলী ও শিশু নামজুলের মৃত্যু হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় নাসরিন ও জাহিদুলকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। জরুরী বিভাগে চিকিৎসাধীন অবস্থায় নাসরিনের মৃত্যু হয়। জাহিদুলকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা অথবা রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পরামর্শ দেন কর্তব্যরত ডাক্তার।
অপরদিকে দুর্ঘটনার পরপরই স্থানীয় উত্তেজিত জনতা ঘাতক ট্রাকে আগুন ধরিয়ে দেয়। খবর পেয়ে দর্শনা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। আগুনে ওই ট্রাকের প্রায় এক লাখ টাকা সমমূল্যের ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে বলে দমকল বাহিনী সূত্রে জানা গেছে। এদিকে সড়কে ঘাতক ট্রাকে আগুন দেয়ায় কিছুক্ষণের জন্য চুয়াডাঙ্গা-যশোর মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ থাকে।
দামুড়হুদা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু জিহাদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।