চুয়াডাঙ্গা সোমবার , ৭ মার্চ ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ফায়ার সার্ভিসের অগ্নিনির্বাপণ মহড়া!

সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
মার্চ ৭, ২০২২ ২:৪১ অপরাহ্ণ
Link Copied!

নিজস্ব প্রতিবেদক:

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে প্রাকৃতিক দুর্যোগ কিংবা অগ্নিদুর্ঘটনা ঘটলে সহজে উদ্ধার কাজ এবং তাৎক্ষণিক করণীয় বিষয়ে বিশেষ মহড়া চালিয়েছে চুয়াডাঙ্গা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের একটি ইউনিট। গতকাল রোববার বেলা ১১টার দিকে সদর হাসপাতালের অভ্যন্তরে ভূমিকম্প হলে করণীয় এবং আহতদের উদ্ধার ও প্রাথমিক চিকিৎসার নানা কৌশল দেখানো হয়। পরে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটলে কিভাবে দ্রুত নেভাতে হয়, তা সদর হাসপাতালের নতুন ভবনের সামনে কৃত্রিম আগুন জালিয়ে মহড়ার মাধ্যমে দেখানো হয়। এসময় অগ্নি নির্বাপণের কোনো অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতির ব্যবহার না করেই সাধারণভাবে আগুন নেভাতে দেখা যায় ফায়ার সার্ভিসের সদস্যদের। এছাড়া আগুন লাগার পর দ্রুত সময়ের মধ্যে হাসপাতালের বিভিন্ন ইউনিটের রোগীদের নিরাপদে সরিয়ে নেওয়া, হতাহত ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নির্ণয়ের দৃশ্য দেখান ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। নিজেদের কর্মী বাহিনী ও জরুরি বিভাগের স্বেচ্ছাসেবকদের অভিনয়ের মাধ্যমে জনসাধারণকে সচেতন করতে নানান কৌশল তুলে ধরা হয় এ মহড়ায়। এসময় মহড়া দেখতে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভিড় করেন সাধারণ মানুষ। এটি আসন্ন (১০ মার্চ) জাতীয় দুর্যোগ প্রস্তুতি দিবস উপলক্ষে ফায়ার সার্ভিস ইউনিটের মহড়া ছিল মাত্র। হঠাৎ অগ্নিকাণ্ডে করণীয় সম্পর্কে জনসাধারণকে সচেতন করার লক্ষেই ফায়ার সার্ভিস ইউনিট এই মহড়া পরিচালনা করে। মহড়ায় নেতৃত্ব দেন চুয়াডাঙ্গা ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার আতিকুর রহমান। তিনি বলেন, ‘যে কোনো দুর্যোগ ও অগ্নিদুর্ঘটনায় দ্রুত সাড়াদান ও উদ্ধার তৎপরতার মহড়া করেছি আমরা। আমাদের উদ্দেশ্য, সাধারণ মানুষ যেন সচেতন হতে পারেন এবং দুর্যোগ-দুর্ঘটনা ঘটলে নিজেরাই নিজেদের সুরক্ষা করতে পারেন। এ অবস্থায় দ্রুত সময়ে ঘটনাস্থলে পৌছে আমাদের করণীয় দৃশ্যও মহড়ার মাধ্যমে প্রদর্শন করা হয়েছে।’ মহড়ায় আরো অংশ নেন চুয়াডাঙ্গা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের লিডার আবুল হাসান, বুলবুলসহ চুয়াডাঙ্গা ফায়ার সর্ভিসের ফায়ার ফাইটিং টিম, রেসকিউ টিম ও প্রাথমিক চিকিৎসা টিম। এছাড়াও বিশেষ এই মহড়ায় চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের টিম নিয়ে ডা. সোহরাব হোসেন এবং ডা. আহসানুল হক অংশগ্রহণ করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন, চুয়াডাঙ্গা সদর হাপসাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা. এএসএম ফাতেহ আকরাম, সিনিয়র স্টাফ নার্স, এসিস্ট্যান্ট নার্স, নার্সিং ইনস্টিটিউট চুয়াডাঙ্গার স্টুডেন্ট নার্স, হাসপাতালের ওয়ার্ড বয় ও স্বেচ্ছাসেবক।

চুয়াডাঙ্গা সদর হাপসাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা. এএসএম ফাতেহ আকরাম বলেন, ‘যে কোন সময়, যে কোন স্থানে, যে কোন দুর্ঘটনা ঘটে যেতেই পারে। আমাদের সকলকে তার জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে। চুয়াডাঙ্গা ফায়ার সার্ভিসের এই মহড়া আমাদেরকে অনেককিছু শিখিয়েছে। সদর হাসপাতালের দুই জন চিকিৎসক, জরুরি বিভাগের একটি টিম নিয়ে সরাসরি এই মহড়ায় অংশগ্রহণ করেন।’

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।