চুয়াডাঙ্গা বৃহস্পতিবার , ২৪ মার্চ ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চুয়াডাঙ্গা ও মেহেরপুরে সাত দিনব্যাপী মুক্তির উৎসব ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী মেলা সমাপ্ত

‘প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ’
সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
মার্চ ২৪, ২০২২ ৯:৪৮ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

সমীকরণ প্রতিবেদন:

চুয়াডাঙ্গা ও মেহেরপুরে সাত দিনব্যাপী মুক্তির উৎসব ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী মেলা-২০২২ এর সমাপনী অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ উপলক্ষে গতকাল বুধবার আলোচনা সভা, পুরস্কার বিতরণ ও সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা অনুষ্ঠিত হয়।

চুয়াডাঙ্গা:

চুয়াডাঙ্গায় মুক্তির উৎসব ও সুবর্ণজয়ন্তী মেলা-২০২২ এর সমাপনী আলোচনা, পুরস্কার বিতরণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়েছে। গতকাল বুধবার বিকেল সাড়ে পাঁচটায় চুয়াডাঙ্গা চাঁদমারী মাঠে মেলা প্রাঙ্গনে এ সমাপনী অনুষ্ঠান হয়। চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসনের আয়োজনে সপ্তাহব্যাপী এ মেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি হাজি আলী আজগর টগর।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, আজকে সামাজিক নিরাপত্তা থেকে শুরু করে বিদ্যুৎ সবক্ষেত্রে উন্নয়ন হয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ দৃঢ় গতিতে সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। যদি পরাজিত শত্রুরা ১৯৭৫ এর ১৫ আগস্ট না ঘটাতো, যদি বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকতেন, বাংলাদেশ অনেক আগেই সিঙ্গাপুর-মালয়েশিয়া হয়ে যেত। তিনি বলেন, তাঁরা মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস মুছে ফেলতে চেয়েছিল। আমার নির্বাচনী এলাকায় ইন্টারমিডিয়েট, ডিগ্রি কলেজে পর্যন্ত শহিদ মিনার ছিল না। আমরা এই অবস্থার মধ্যে ছিলাম। এখন বাংলাদেশ ঘুরে দাঁড়াচ্ছে। এমপি টগর আরও বলেন, যাঁরা ধর্ম নিয়ে ব্যবসা করেছে, তারা মাদ্রাসার একটি বিল্ডিংও করেনি। আজকে আওয়ামী লীগ সরকার উন্নয়ন করছে।

চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কনক কুমার দাস, চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর সিদ্দিকুর রহমান ও সাবেক জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম মালিক। চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মুন্সি আবু সাইফের প্রাণবন্ত উপস্থাপনায় এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) সাজিয়া আফরিন, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. শামিম ভূঁইয়া, চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের সহযোগী অধ্যাপক জাহিদুল হাসান, জেলা শিক্ষা অফিসার আতাউর রহমান, জেলা নির্বাচন অফিসার তারেক আহমেমদ, পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক দীপক কুমার সাহা, যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মাসুম আহমেদ, জেলা শিশুবিষয়ক কর্মকর্তা আফসানা ফেরদৌসী প্রমুখ। পরে বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

আলমডাঙ্গা:

আলমডাঙ্গা উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী মেলার সমাপনী দিনে শ্রেষ্ঠ স্টল ও বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়েছে। গতকাল বুধবার বেলা তিনটার দিকে মুক্তিযোদ্ধাদের স্মৃতিচারণমূলক অনুষ্ঠান ও প্রাণি সম্পদ-মৎস সম্পদ বিভাগের খামারীদের নিয়ে বিভাগীয় আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। পরে বিকেল চারটার দিকে আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার রনি আলম নূরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আলমডাঙ্গা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আইয়ুব হোসেন।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাড. খন্দকার সালমুন আহম্মেদ ডন, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) রেজওয়ানা নাহিদ, আলমডাঙ্গা থানার উপ-পরিদর্শক আব্দুল গাফ্ফার, বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব শেখ নুর মোহাম্মদ জকু, বীর মুক্তিযোদ্ধা মইনদ্দিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা আলতাব হোসেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা মহিউদ্দিন, প্রেসক্লাবের সভাপতি খন্দকার শাহ আলম মণ্টু ও সাধারণ সম্পাদক খ. হামিদুল ইসলাম আজম।

সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব শামিম রেজার উপস্থাপনায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা প্রকৌশলী আব্দুল বারী, উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. আব্দুল্লাহিল কাফি, মৎস্য কর্মকর্তা ফাতেমা কামরুন্নাহার আঁখি, সমাজসেবা কর্মকর্তা নাজমুল ইসলাম, কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা সোহেল রানা, উপজেলা শিক্ষা অফিসার শামসুজ্জোহা, খাদ্য কর্মকর্তা মমতা বেগম, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আব্দুল বারী, আলমডাঙ্গা সরকারি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ গোলাম সরোয়ার, মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ আশুরা খাতুন, প্রকল্প কর্মকর্তা এনামুল হক প্রমুখ।

আলোচনা সভা শেষে মেলায় স্টলে প্রথম স্থান অধিকারকারী উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস, ২য় উপজেলা প্রাণিসম্পদ বিভাগ ও ৩য় উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা অফিসকে পুরস্কৃত করা হয়। এছাড়াও রচনা, চিত্রাঙ্কন, কবিতা, তাৎক্ষণিক বক্তৃতা, নৃত্য, সংগীতসহ বিভিন্ন ইভেন্টে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

দামুড়হুদা:

দামুড়হুদা উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত মুক্তির উৎসব ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী মেলা শেষ হয়েছে। গতকাল বুধবার মেলার সমাপনী দিনে আলোচনা সভা, পুরস্কার বিতরণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বুধবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলা চত্বরের মুক্তমঞ্চে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী অফিসার তাসলিমা আক্তারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলী মুনছুর বাবু।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহফুজুর রহমান মনজু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও হাউলী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান হাজি মো. শহিদুল ইসলাম, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুদীপ্ত কুমার সিংহ, বীর মুক্তিযোদ্ধা লিয়াকত আলী, বীর মুক্তিযোদ্ধা আছির উদ্দীন, বীর মুক্তিযুদ্ধা তমছের আলী, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার আবু হেনা মোহাম্মদ জামাল শুভ, উপজেলা নির্বাচন অফিসার ইছহাক, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সাহিদা খাতুন, দামুড়হুদা সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হযরত আলী, জুড়ানপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সোহরাব হোসেন, হাউলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দিন, কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল করিম, দামুড়হুদা প্রেসক্লাবের সভাপতি এম নুরুন্নবী, দামুড়হুদা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি)  ফেরদৌস ওয়াহিদ, দর্শনা থানায় অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এ এইচ এম লুৎফুর রহমানসহ উপজেলা সরকারি দপ্তরের অফিসারবৃন্দ।

জীবননগর:

জীবননগরে মুক্তির উৎসব ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী মেলা-২০২২ এর সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বুধবার দুপুর ১২টায় উপজেলা পরিষদ চত্বরে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠান শেষে মেলায় অংশগ্রহণকারী ১ম, ২য় ও ৩য় স্থান অধিকারকারী স্টলকে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

জীবননগর উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরিফুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মুক্তির উৎসব ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী মেলা ২০২২ এর সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়ডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য হাজি আলী আজগার টগর।

বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাজি হাফিজুর রহমান হাফিজ, পৌর মেয়র রফিকুল ইসলাম, সহকারী কমিশনার (ভূমি) হুমায়ুন কবির, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নজরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক আবু মো. আব্দুল লতিফ অমল, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল সালাম ঈশা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আয়েশা সুলতানা লাকী, জীবননগর থানার ওসি (তদন্ত) শেখ মাহাবুব হোসেন, আবু সাঈদ মোহাম্মদ সাদ প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, পৌর কাউন্সিলরবৃন্দ, আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। সাত দিনের এ মেলার সমাপনী দিনে ৩০টি স্টলের মধ্যে উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর ১ম স্থান, ‘আমার বাড়ি আমার খামার’ ২য় স্থান ও  উপজেলা শিক্ষা অফিস উপজেলা রিসোর্স সেন্টার ৩য় স্থান অধিকার করে। ১ম, ২য় ও ৩য় স্থান অধিকারকারী স্টলের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়। এছাড়াও মেলায়  অংশগ্রহণকারী সকল স্টলকে শান্তনা পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

মুজিবনগর:

মুজিবনগরে সপ্তাহব্যাপী মুক্তির উৎসব ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী মেলার সমাপনী অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে মুজিবনগর সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে সাত দিনব্যাপী চলা এই মেলা গতকাল বুধবার শেষ হয়। উপজেলা সমাজসেবা অফিসার আব্দুর রবের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুজন সরকার।

অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা আহসান আলী খান, উপজেলা কৃষি অফিসার আনিসুজ্জামান খান, ওসি (তদন্ত) শরিফুল ইসলাম, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান, উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম, মুজিবনগর টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ সামিমুল কবির, উপজেলা সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার এহসানুল হাবীব, উপজেলা বিআরডিবি অফিসার কাউছার আলী ও মুজিবনগর সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইজারুল ইসলাম। এসময় সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, স্কুল, কলেজে, এনজিওসহ বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

আলোচনা সভা শেষে মুক্তিযুদ্ধ, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কবিতা আবৃত্তি, চিত্রাঙ্কন ও কুইজ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিজয়ী ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।