চুয়াডাঙ্গায় স্ত্রীর মামলায় আদালতের রেকর্ড সহকারী হাফিজুর গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক:
চুয়াডাঙ্গায় যৌতুকের টাকর জন্য নিজ স্ত্রীকে নির্যাতনের অভিযোগ চিফ জুডিসিয়াল আদালতের রেকর্ড সহকারী হাফিজুর রহমনকে গ্রেপ্তার করেছে সদর থানার পুলিশ। গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে আটটায় হাফিজুরের নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এর আগে গত শুক্রবার সন্ধ্যায় নির্যাতেনের শিকার নিলুফা ইয়াছমিন সদর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন। গ্রেপ্তারকৃত হাফিজুর রহমান (৪২) চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার হাটকালুগঞ্জ এলাকার মৃত রইচ উদ্দীনের ছেলে।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত ১৪ বছর পূর্বে হাফিজুর রহমানের সাথে নিলুফার বিবাহ হয়। এরপর থেকেই বিভিন্ন সময় টাকার জন্য নিলুফা ইয়াছমিনকে মারধর করতে থাকে হাফিজুর। কয়েক বছর আগে নিলুফার পিতার বাড়ি থেকে ১ লাখ টাকা নিয়ে আসে অভিযুক্ত হাফিজুর। পরে নিলুফার ভাইদের কাছ থেকেও ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেই। সর্বশেষ গত শুক্রবার বিকেলে নিলুফাকে আরও ১ লাখ টাকা নিয়ে আসতে বলে হাফিজুর। পিতা জীবিত না থাকায় ভাইদের সাথেও আগের মতো সুসম্পর্ক নেই নিলুফার। ফলে আর কোনো টাকা আনতে পারবে বলে জানালে নিলুফাকে বটি দিয়ে কোপ দেয় হাফিজুর। পরে রক্তাক্ত জখম অবস্থায় স্থানীয়রা নিলুফাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নেয়।
স্ত্রীকে নির্যাতনের ঘটনায় হাফিজুর রহমানকে গ্রেপ্তারের সত্যতা নিশ্চিত করে সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাহাব্বুর রহমান বলেন, ‘নির্যাতনের শিকার নিলুফা ইয়াছমিন বাদী হয়ে স্বামীর বিরুদ্ধে রিখিত অভিযোগ করেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে থানা পুলিশের একটি টিম অভিযান চালিয়ে তাকে নিজ বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করে। সংশ্লিষ্ট অভিযোগে তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।’