চুয়াডাঙ্গা বুধবার , ২৩ মার্চ ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চুয়াডাঙ্গায় মাদ্রাসাছাত্রীর আত্মহত্যার প্ররোচণার মামলায় অর্ধডজন মামলার আসামি ‘দা কালাম’ গ্রেপ্তার

সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
মার্চ ২৩, ২০২২ ৮:৫৮ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

নিজস্ব প্রতিবেদক:

চুয়াডাঙ্গায় মাদ্রাসাছাত্রী মাসুমা খাতুন (১৮) আত্মহত্যায় প্ররোচণা মামলার আসামি আবুল কালাম ওরফে দা কালাম (২৪) নামের এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল মঙ্গলবার সকালে জেলার আলমডাঙ্গা উপজেলার মুন্সিগঞ্জ এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাঁকে গ্রেপ্তার করে চুয়াডাঙ্গা সদর থানা পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃত আবুল কালাম চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার আরামপাড়া গোরস্থান এলাকার মোবারক হোসেনের ছেলে।

পুলিশ জানায়, গত রোববার বিকেলে চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার হকপাড়ায় বাড়ি থেকে মাদ্রাসাছাত্রী মাসুমা খাতুনের গলায় ফাঁস দেওয়া মরদেহ উদ্ধার করা হয়। সে রেলবাজার আলিয়া মাদ্রাসার আলিম প্রথমবর্ষের ছাত্রী ছিল। এ ঘটনায় মৃত মাদ্রাসাছাত্রীর বাবা আমিনুল ইসলাম বাদী হয়ে ওই দিন রাতেই আবুল কালামকে আসামি করে সদর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। এজাহারে বলা হয়েছে, বিবাহিত হয়েও কালাম বেশ কিছুদিন ধরে মাসুমাকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে আসলেও তাতে রাজি ছিল না মাসুমার পরিবার। পরে কালাম মাসুমাকে তার সঙ্গে পালিয়ে যাওয়ার জন্য চাপ দিতে থাকে। একপর্যায়ে মাসুমাকে প্রকাশ্যে মারধর ও গালমন্দ করে কালাম। অপমান সহ্য করতে না পেরে আত্মহত্যা করে মাসুমা।

চুয়াডাঙ্গা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন বলেন, আসামি জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। তিনি আরও বলেন, অর্ধডজন মামলার আসামি বখাটে কালাম চুয়াডাঙ্গা জেলার শীর্ষ সন্ত্রাসী। তাঁর বিরুদ্ধে কথা বললে সে যখন তখন কোপাত। ২০২০ সালে ছাত্রলীগ নেতা জোবায়ের রিগান ও তার মামা কৃষক লীগ নেতা মহসীন রেজাকে কুপিয়ে জখম করে কালাম। দা নিয়ে কোপানোর জন্য তাকে এলাকায় দা কালাম নামেও ডাকা হয়।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।