চুয়াডাঙ্গা শুক্রবার , ২৯ এপ্রিল ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চুয়াডাঙ্গায় বর্ণাঢ্য আয়োজনে জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস পালন

আইনগত সহায়তা আরও গতিশীল করার আহবান
নিজস্ব প্রতিবেদক:
এপ্রিল ২৯, ২০২২ ৩:৫৮ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

‘বিনা খরচে নিন আইনি সহায়তা, শেখ হাসিনা দিচ্ছে এ নিশ্চয়তা’ এ প্রতিপাদ্যে চুয়াডাঙ্গায় জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস ২০২২ উদযাপন করা হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় জেলা জজ আদালত প্রাঙ্গন থেকে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়। শোভাযাত্রার নেতৃত্ব দেন জেলা ও দায়রা জজ মো. জিয়া হায়দার। জেলা জজ আদালত এবং চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী, বিজ্ঞ আইনজীবী, সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়, ভিক্টোরিয়া জুবিলি (ভিজে) সরকারি উচ্চবিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, জেলা কারাগার, তথ্য অফিস এবং বিভিন্ন এনজিও সমূহের সদস্য মিলিয়ে প্রায় পাঁচ শ অংশগ্রহণকারীর সমন্বয়ে শহরের প্রধান সড়ক বর্ণাঢ্য র‌্যালিটি প্রদক্ষিণ করে। র‌্যালিতে অংশগ্রহণকারিদের জন্য সরবরাহ করা হয় সাদা ক্যাপ এবং লিগ্যাল এইড-এর স্লোগান সম্বলিত টি-শার্ট। র‌্যালিতে জেলা ও দায়রা জজ আদালত এবং লিগ্যাল এইডের বিচারক কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ জেলা প্রশাসন ও পুলিশ বিভাগের কর্মকর্তারা অংশ নেন। পরে এ উপলক্ষে জেলা আইনজীবী সমিতির কনফারেন্স রুমে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। জেলা লিগ্যাল এইড কমিটির চেয়ারম্যান, জেলা ও দায়রা জজ মো. জিয়া হায়দারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম খান, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক মুসরাত জেরীন, পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম, ভারপ্রাপ্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট লস্কর সোহেল রানা, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি সেলিম উদ্দীন খান, সাধারণ সম্পাদক তালিম হোসেন, পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাড. বেলাল হোসেন, সরকারি কৌশুলি (জিপি) আশরাফুল ইসলাম খোকন প্রমুখ।

                আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, ‘দরিদ্র জনগণের প্রতি বর্তমান সরকারের প্রতিশ্রুতির অংশ হিসেবে সরকার সকল জেলায় লিগ্যাল এইড অফিস স্থাপন করেছে। দরিদ্র মানুষের আইনগত অধিকার প্রাপ্তিতে সকলকে তাদের নিজ নিজ অবস্থান থেকে সাহায্য করা প্রয়োজন।’

এসময় আইনগত সহায়তা দিবসের গুরুত্ব অনুধাবন, আইনগত সহায়তা প্রদান আইন কার্যকরিকরণ এবং আইনগত সহায়তা কার্যক্রমকে আরও গতিশীল করার আহবান জানান বক্তারা।

এসময় তাঁরা আরও বলেন, ‘বিচার শুধু ধনীদর জন্য, গরিবের জন্য নয়, এ ধারণা এখন পাল্টে গেছে। সরকার ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠায় অসহায় মানুষকে বিনামূল্যে সহায়তা দিতেই আইনগত সহায়তা কমিটি গঠন করেছে। এ তথ্য সবাইকে জানাতে হবে। কাউকে জিতিয়ে দিতে নয়, বিচারপ্রার্থীকে আইনি সহায়তা দিয়ে ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠায় আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।’

উল্লেখ্য, জেলা লিগ্যাল এইড অফিসে চার ধরণের সেবা দেয়া হয়। ১। আইন সম্পর্কিত তথ্য সেবা সরাসরি ও ফোনে ২। আইনি পরামর্শ সেবা ৩। বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তি সেবা ৪। সরকারি খরচে দেওয়ানী, ফৌজদারী, পারিবারিক ও জেল আপিলসহ যেকোনো মামলায় আইন সহায়তা সেবা। জেলা লিগ্যাল এইড অফিসার একজন সিনিয়র সহকারী জজ পর্যায়ের কর্মকর্তা। জেলা লিগ্যাল এইড অফিসে তার নিকট থেকে সরাসরি পরামর্শ গ্রহণ বা আপোষ মিমাংসার মধ্যস্থতারও সুযোগ রয়েছে। চুয়াডাঙ্গা জেলা লিগ্যাল এইড অফিসে ৪১ জন প্যালেন আইনজীবী রয়েছে। বর্তমানে জেলা লিগ্যাল এইড অফিসের তত্ত্বাবধানে ২১৯০টি মামলা চলমান রয়েছে। এই মামলাগুলোর সকল ধরণের ব্যয় বাংলাদেশ সরকার বহন করে।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।