চীনের সংখ্যালঘু মুসলিমরা ব্যাপকহারে নিখোঁজ হচ্ছেন

542

বিশ্ব ডেস্ক: চীনের জিনজিয়াং প্রদেশের সংখ্যালঘু উইঘুর মুসলিমদের দেশটির সরকারি রাজনৈতিক আশ্রয়কেন্দ্রে আটকে রাখা হচ্ছে। সংখ্যালঘু এই জনগোষ্ঠী ইসলামি জঙ্গিবাদে জড়িয়ে পড়ছে এমন অভিযোগ এনে হাজার হাজার উইঘুরকে আটকে রাখার খবর পাওয়া যাচ্ছে। সংখ্যালঘু প্রান্তিক এই সম্প্রদায়ের লোকজন গত কয়েক বছরে ব্যাপকহারে নিখোঁজ হয়েছেন। চীন সরকার বলছে, মৌলবাদী ইসলামি জঙ্গিবাদে জড়িয়ে পড়ছেন উইঘুর মুসলিমরা। তবে উইঘুরদের দাবি, সরকারি আইন-শৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্যরা তাদের তুলে নিয়ে যাচ্ছে। তুর্কিক ভাষাভাষি এক কোটি উইঘুরের জিনজিয়াং প্রদেশ এখন কার্যত পুলিশি রাজ্যে পরিণত হয়েছে। প্রতি ক্ষণেই সেখানে টহল পুলিশ, সাঁজোয়া যান ও ২৪ ঘণ্টার নজরদারি সামগ্রী ব্যবহার করে তাদের সবকিছুই পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। তবে চীনের সংখ্যালঘু এই মুসলিমরা আফগানিস্তানে জঙ্গিগোষ্ঠী তালেবান, সিরিয়া ও ইরাকে ইসলামিক স্টেটে (আইএস) যোগ দিচ্ছে। বিভিন্ন নথিতে তাদের জঙ্গিবাদে জড়িয়ে পড়ার তথ্য এসেছে। তবে জিনজিয়াংয়ে উইঘুরদের বিরুদ্ধে দেশটির সরকার যে কঠোর বিধি-নিষেধ আরোপ করেছে এর পেছনের কারণ জানাতে পারেনি বেইজিং। এমনকি বিদেশি কোনো গোষ্ঠী উইঘুরদের ব্যবহার করে চীনের বিরুদ্ধে কোনো ষড়যন্ত্র করছে কি না সে ব্যাপারে নিরেট কোনো প্রমাণ নেই বেইজিংয়ের হাতে। দেশে ইসলামি চরমপন্থার বিরুদ্ধে কট্টর অবস্থান নিলেও সন্ত্রাসী ও জঙ্গিদের লালন-পালনের অভিযোগ উঠা প্রতিবেশি রাষ্ট্র পাকিস্তানের সঙ্গে বেইজিংয়ের সম্পর্ক অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ।