চুয়াডাঙ্গা মঙ্গলবার , ৩১ মে ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চালের মজুত ঠেকাতে অভিযানের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
মে ৩১, ২০২২ ১০:৩১ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

সমীকরণ প্রতিবেদন: ভরা মৌসুমে চালের দাম বৃদ্ধি ঠেকাতে অ্যাকশনে যেতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কেউ অবৈধভাবে চাল মজুত করলে ব্যবস্থা নেয়ারও নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। এ ছাড়া অনুমোদন না নিয়ে চালের ব্যবসায় আসা কর্পোরেট প্রতিষ্ঠানগুলোর কর্মকাণ্ডের বিষয়ে নজরদারি বাড়ানোর নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। গতকাল সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব নির্দেশ দেন। বৈঠক শেষে বিকালে সচিবালয়ে ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, মন্ত্রিসভার  বৈঠকে মার্কেট মেকানিজম নিয়ে দীর্ঘ আলোচনা হয়েছে। এই ভরা মৌসুমে চালের কেন দাম বেশি, আমাদের গোয়েন্দা সংস্থার কিছু রিপোর্ট এবং সাজেশন ছিল। এগুলো নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। আমাদের মার্কেট সার্ভে করে দ্রুত অ্যাকশনে যেতে বলা হয়েছে। কেন দাম বাড়বে এবং কোথায় কোথায়, কে চাল মজুত করেন তা চিহ্নিত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে বলে জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব। তিনি বলেন, কিছু আমদানিকারক আছেন, তারা যে কাজ করছেন, সেটা তাদের মেমোরেন্ডাম অব এসোসিয়েশন নেই।

এতে বলা আছে, কী কী করা যাবে। কিন্তু মনে হচ্ছে, কেউ কেউ তা উপেক্ষা করে চালের ব্যবসায় নেমে গেছেন। সে জন্য বাজার খুবই নিবিড়ভাবে পরিবীক্ষণ ও তদারক করে কেউ যদি এটি করে থাকেন এবং কত দিন মজুত রাখতে পারবেন, সেগুলো দেখার জন্য বাণিজ্যমন্ত্রী, খাদ্যমন্ত্রী, বাণিজ্য ও খাদ্য সচিব এবং কৃষি সচিবকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তাদের দ্রুত বাজারে জরিপ করে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। এ ছাড়া তেলের বিষয়ে যেভাবে অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে, একইভাবে চালের বিষয়েও অভিযান চালানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব। তিনি বলেন, কেউ যদি অনুমোদন ছাড়াই চালের ব্যবসা করেন এবং অবৈধ মজুত করেন, তাহলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য মন্ত্রিসভা থেকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এদিকে প্রয়োজনে ট্যাক্স কমিয়ে চাল আমদানি করে ভোক্তাকে স্বস্তিতে রাখার কথা জানিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার। সোমবার ‘বোরো ২০২২ মৌসুমে অভ্যন্তরীণ সংগ্রহ ও বাজার মনিটরিং’ সংক্রান্ত খাদ্য মন্ত্রণালয় আয়োজিত এক অনলাইন মতবিনিময় সভায় তিনি এ কথা বলেন।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।