চুয়াডাঙ্গা মঙ্গলবার , ২৯ আগস্ট ২০১৭

চাই মনের পশুত্বের কোরবানি

সমীকরণ প্রতিবেদন
আগস্ট ২৯, ২০১৭ ৯:১৩ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

ধর্ম ডেস্ক: পশু জবাইয়ের মাধ্যমে আল্লাহর প্রতি আনুগত্য প্রদর্শনের বিশেষ উপলক্ষ পবিত্র ঈদুল আজহা। কিন্তু আজকাল আমাদের সমাজে কোরবানি অনেকটা ফ্যাশনে পরিণত হয়েছে। বিত্তশালীদের অর্থের দাপট দেখানোর বিশেষ সুযোগ যেন এই কোরবানি। তাকওয়ার পরিবর্তে মনের ভেতরে লুকিয়ে থাকা পশুটা এই কোরবানি উপলক্ষে আরো হৃষ্টপুষ্ট হয়ে ওঠে। যারা অবৈধ অর্থের পাহাড় গড়ে তুলেছেন কোরবানি ঈদে তারা নিজেদেরকে প্রকাশের একটা সুযোগ পেয়ে যান। কে কত বেশি দামের কোরবানি দিচ্ছেন এর প্রতিযোগিতা শুরু হয়ে যায়। আল্লাহকে সন্তুষ্ট করার নিয়তে কেউ এক্ষেত্রে প্রতিযোগিতা করলে সেটা নিশ্চয় ভালো জিনিস। তবে লৌকিকতায় কলুষিত প্রতিযোগিতার কোনো মূল্যায়ন আল্লাহর কাছে নেই। প্রত্যেকে তাদের সামর্থ্য অনুযায়ী কোরবানি বা বিসর্জন দেবে এটাই আল্লাহ চান। কে কত দামি পশু কোরবানি করেছে সেটার দিকে আল্লাহর কোনো ভ্রুক্ষেপ নেই। তিনি শুধু দেখেন মানুষের অন্তর। দুনিয়ার সব মানুষকে ধোঁকা দিলেও কোনো অন্তর আল্লাহকে ধোঁকা দেয়ার সুযোগ পাবে না। কে আল্লাহকে সন্তুষ্ট করার জন্য পশু জবাই করছেন আর কে প্রদর্শনের জন্য করছেন সেটা আল্লাহ ভালোভাবেই জানেন। বছর ঘুরে ঈদুল আজহা আমাদের দুয়ারে হাজির। প্রতি বছরের মতো এবারও আমরা এই উৎসবে মেতে উঠব সেটাই স্বাভাবিক। ধর্ম স্বীকৃত এই উৎসব উদযাপনে নেই কোনো বাধা নিষেধ। তবে ধর্মীয় এই উৎসবের আমেজটা যেন নষ্ট না হয়; এর প্রকৃত দাবি যেন প্রতিফলিত হয় সে দিকেও আমাদের সবার নজর রাখতে হবে। ঈদুল আজহার ত্যাগের যে মহান শিক্ষা সেটা ব্যক্তিজীবনে ধারণ করতে হবে; সেই শিক্ষা ছড়িয়ে দিতে হবে সমাজ থেকে রাষ্ট্রে। ত্যাগের মানসিকতা গড়ে তুলতে পারলে আমাদের পরিবার থেকে রাষ্ট্র সবই আরো সুন্দর হবে নিঃসন্দেহে। সামর্থ্যবানদের জন্য এই কোরবানি। কোরবানির পশুর মাংস নিজেরা খেতে কোনো আপত্তি নেই। তবে বড় বড় পশু কোরবানি করে ডিপ ফ্রিজ ভরে রাখা আর গরিব-দুঃস্থদের বঞ্চিত করা নিশ্চয় ত্যাগের শিক্ষা নয়। লাখো টাকা খরচ করে কোরবানির মূল প্রাপ্তিটা আত্মত্যাগ। সেটা অর্জন করতে না পারলে সবই বৃথা। তাই আসুন, এই কোরবানি যেন বৃথা না হয় সে দিকে সবাই মনোযোগী হই। কোরবানির যে মূল প্রাণ তাকওয়া সেটা অর্জনের চেষ্টা করি সবাই।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।