চন্ডিপুরের ডালিমের নেতৃত্বে প্রকাশ্যে জমাজমাট মাদকব্যবসা যুবসমাজকে মাদকের হাত থেকে রক্ষা করতে পুলিশ প্রশাসনের হস্তক্ষেপ এলাকাবাসীর

290

‡i †i

কুড়ুলগাছি প্রতিনিধি: দামুড়হুদা উপজেলার কুড়ুলগাছি ইউনিয়নের গ্রামগুলো মাদকের করাল গ্রাসে ক্রমেই ধ্বংস হতে চলেছে। কতিপয় কিছু অসাধু ব্যক্তিদের দ্বারা ক্রমেই মাদকের মত মরণ নেশার জগতে পা রাখছে এলাকার যুব সমাজ। দামুড়হুদার চন্ডিপুর গ্রামের ডালিম হোসেনের নেতৃত্বে জমজমাটভাবে প্রকাশ্যে দেদারছে চলছে মাদক ব্যবসা। এলাকার উঠতি বয়সী যুবকরা ক্রমেই এর দিকে ধাবিত হচ্ছে ফলে তরুণ সমাজের উজ্জল ভবিষ্যত ও সম্ভবনা নষ্ট করছে এই কুক্ষ্যাত মাদক ব্যবসায়ী। যার ফলে অভিভাবকরা পড়েছেন বিপাকে। প্রতিদিন পত্র-পত্রিকায় লেখালেখির পর ও প্রসাশনকে তোয়াক্কা না করে এ ধরনের অপকর্ম করায় তার বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা না নেওয়াতে ক্ষুব্ধ এলাকার সচেতন মহল ও অভিভাবকরা। এর মত মাদক স¤্রাটরা এতটাই বেপরোয়া যে প্রকাশ্যে মাদক বিকিকিনি করলেও এদের বিরুদ্ধে কেউ কিছু বলতে চাই না। কেউ কিছু বলতে চাইলে রাতে ক্ষতি করবে বলে বিভিন্ন ধরনের হুমকি ধামকি দেয় এমন অভিযোগ এসব মাদক স¤্রাটদের বিরুদ্ধে রয়েছে। মাদক স¤্রাটরা আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে মাদক নিয়ে ধরা পড়লেও নিজের ক্ষমতা বলে আইনের ফাক ফোকড় পেরিয়ে আবারো তাদের পুরানো ব্যবসা দেদারছে চালিয়ে যাচ্ছে। জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলার কুড়ুলগাছি ইউনিয়নের চন্ডিপুর গ্রামের খাল পাড়ার আফছার আলির গুনধর ছেলে ডালিম হোসেন বাস্তব হলেও সত্য দীর্ঘদিন ধরে প্রসাশনের কিছু অসৎ পুলিশকে ম্যানেজ করে মদ, গাঁজা, তারি, ফেন্সিডিল, ইয়াবাসহ নানান রকম মাদক ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে এবং সেই সাথে নিজে সেবন ও করে যাচ্ছে। প্রশাসনকে বসে রেখে এ ধরনের অপকর্ম করায় ভয়ে কেউ মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছেনা। মুখ খুললেই মাদক দিয়ে ধরিয়ে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়। এমন সত্য নিষ্ঠ অভিযোগ সচেতন মহলের। এদিকে তার এই মাদক ব্যবসা ও সেবনের ফলে এলাকার স্কুল কলেজ পড়ুয়া অনেক শিক্ষার্থী মাদকে আসক্ত হচ্ছে। এমনকি অনেকের শিক্ষা জীবন ধ্বংসের দ্বারপান্তে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয়দের অনেকে জানিয়েছেন, ডালিম সন্ধ্যার পরে এলাকায় কিছু মাদকাসক্ত ব্যক্তি ও সন্ত্রাসীদের নিয়ে মাদক সেবন ও বিক্রি শুরু করে। তারা সন্ধ্যার পর চন্ডিপুরের নিদিষ্ট একটি স্থানে মাদকের আকড়া বসায়। যার ফলে নেশায় পরে এলাকার শিক্ষিত যুবকরা ধ্বংসের দিকে পা বাড়াচ্ছে ও সেবন করছে মরণ নেশা মাদক। এলাকাবাসীর প্রাণের দাবী ডালিমের বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসন ও স্থানীয় প্রসাশনের দূত ব্যবস্থা নিয়ে এলাকার শিক্ষিত যুব সমাজকে মাদকের মত মরণ নেশার কবল থেকে রক্ষা করবে এমনটাই প্রত্যাশা এলাকাবাসীর।