চুয়াডাঙ্গা মঙ্গলবার , ৯ জানুয়ারি ২০১৮
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ঘরে প্রবেশের ইসলামী বিধান

সমীকরণ প্রতিবেদন
জানুয়ারি ৯, ২০১৮ ১১:৫৩ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

ধর্ম ডেস্ক: ইসলাম অসৎবৃত্তির উৎপত্তি ও অসৎ প্রবণতা রোধে অশ্লীলতা দমন এবং সতীত্ব সংরক্ষণের জন্য বিভিন্ন বিধান জারি করেছে। তš§ধ্যে অন্যতম বিধান হলো, অন্য কারো ঘরে প্র্রবেশের বিধান। জাহেলি যুগে আরববাসীরা নিঃসঙ্কোচে সরাসরি একজন অন্যজনের ঘরে প্রবেশ করে যেত। আল্লাহ এই প্রথা সংশোধনের জন্য এ নীতিনির্ধারণ করেন। কারণ, প্রত্যেক ব্যক্তির যেখানে সে অবস্থান করে, সেখানে তার ব্যক্তিগত গোপনীয়তা রক্ষা করার অধিকার আছে এবং তার সম্মতি ও অনুমতি ছাড়া গোপনীয়তায় হস্তক্ষেপ করার অন্য কারো অধিকার নেই। তাই কারো ঘরে প্রবেশ করার আগে অনুমতি নেয়া ও সালাম দেয়ার বিধান ইসলাম জারি করেছে। আল্লাহ তায়ালা ইরশাদ করেন, ‘হে ইমানদারগণ! তোমরা নিজেদের ঘর ছাড়া অন্যের ঘরে প্রবেশ করো না যতক্ষণ না গৃহবাসীদের সম্মতি লাভ করো এবং তাদের সালাম করো। এটিই তোমাদের জন্য ভালো পদ্ধতি, আশা করা যায় তোমরা এটাকে স্মরণ রাখবে।’- সূরা আন নূর : ২৭। কারো ঘরে প্রবেশের জন্য অনুমতি চাওয়ার উপকারিতা অনেক। এর ফলে কারো স্বাধীনতায় বিঘ্ন ঘটে না। কারো বিশ্রামে ব্যাঘাত হয় না। ইসলাম কাউকে অহেতুক কষ্ট দেয়াকে হারাম করেছে। এছাড়া অনুমতি নিয়ে কারো সঙ্গে সাক্ষাতের ফলে স্বয়ং সাক্ষাৎ প্রার্থীর লাভ হয়। কোনো সাক্ষাৎ প্রার্থী যখন অনুমতি নিয়ে ভদ্রোচিতভাবে কারো সঙ্গে সাক্ষাৎ করবে, তখন সাক্ষাৎদাতাও তার বক্তব্য যতœসহকারে শুনবে। তার কোনো অভাব থাকলে তা পূরণ করার প্রেরণা তার অন্তরে সৃষ্টি হবে। এর বিপরীতে অভদ্রোচিত পন্থায় কোনো ব্যক্তির ওপর বিনানুমতিতে চড়াও হয়ে গেলে সে তাকে অকস্মাৎ বিপদ মনে করে যত শিগগির সম্ভব বিদায় করে দিতে চেষ্টা করবে এবং হিতাকাক্সক্ষার প্রেরণা থাকলেও তা নিস্তেজ হয়ে যাবে। অপরদিকে আগন্তুক ব্যক্তি কোনো মুসলমানকে কষ্ট দেয়ার পাপে পাপী হবে। কারো ঘরে প্রবেশের ক্ষেত্রে বা কারো সঙ্গে সাক্ষাতের প্রাক্কালে অনুমতি নিতে ওই ঘরের লোকদের সালাম দেয়া ইসলামের বিধান। অনুমতি চাওয়ার পদ্ধতি হলো, নিজের নাম উল্লেখ করে অনুমতি চাইবে। অনুমতি নেয়ার জন্য তিনবার ডাক দেয়ার বিধান রয়েছে। আবার তিনবার ডাকা একের পর এক হওয়া উচিত নয় বরং একটু থেমে থেমে হতে হবে। এর ফলে ঘরের লোকরা যদি কাজে ব্যস্ত থাকে এবং সে জন্য তারা যদি জবাব দিতে না পারে তাহলে সে কাজ শেষ করে জবাব দেয়ার সুযোগ পাবে। অন্যথায় অনুমতি নেই ভেবে ফিরে আসতে হবে।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।