চুয়াডাঙ্গা বুধবার , ২৯ জুন ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

গড়াইটুপিতে চিত্রা নদীর বাঁধ অপসারণ, এস্কেভেটর জব্দ

সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
জুন ২৯, ২০২২ ১০:১৫ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

আকিমুল ইসলাম, তিতুদহ: চুয়াডাঙ্গায় চিত্রা নদীতে বাঁধ দিয়ে পানি আটকে মাছ ধরার অভিযোগে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেছে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা প্রশাসন। গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে নবগঠিত গড়াইটুপি ইউনিয়নের গড়াইটুপি ও গোষ্টবিহার গ্রামের মাঝে শ্মশান ঘাট সন্নিকটে নদীতে পানি আটকে মাছ ধরার অভিযোগ ওঠে টেংরার ছেলে ওহিরের বিরুদ্ধে। এরই পেক্ষিতে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাজহারুল ইসলাম মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন।

এসময় ঘটনাস্থল থেকে অবৈধ কারেন্ট জাল জব্দ ও বাঁধ অপসারণ করা হয়। এছাড়া একই ইউনিয়নের খাসপাড়া গ্রামে অবৈধভাবে এস্কেভেটর (ভেকু) দিয়ে পুকুর খনন করে মাটি বিক্রি ও রাস্তার পরিবেশ নষ্ট করার অভিযোগে অভিযান পরিচালিত করে। অভিযানের সময় অবৈধ মাটি ব্যবসায়ী গিরিশনগর গ্রামের জিয়াউরের এক্সেভেটর গাড়িটি মাটি বিক্রির ঘটনাস্থলে পেয়ে প্রথমে বিকল ও পরে জব্দ করে স্থানীয় মেম্বর আসাদউল্লাহর হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেন মোবাইল কোর্ট।

এসময় চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাজহারুল ইসলাম বলেন, ‘নদী ও রাস্তা সরকারি সম্পদ। যা ব্যক্তিগত হিসেবে ব্যবহার করা যাবে না। নদীতে বাঁধ দিয়ে পানি আটকে রেখে নিজের স্বার্থে অন্যদের ক্ষতি করা চরম অপরাধ। এছাড়াও অবৈধ মাটি বিক্রি ও বেপরোয়া অবৈধ ট্রাক্টর দিয়ে রাস্তায় মাটি ফেলে বড় ধরণের দুর্ঘটনা সৃষ্টি করাও আইনত দণ্ডনীয়। এসব বিষয়ে আমরা সবসময় কাজ করে চলছি।’ মোবাইল কোর্টে অভিযান পরিচালনাকালে উপস্থিত ছিলেন তিতুদহ ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা মাহাতাব উদ্দীন, সহকারী শামসুল হক, তিতুদহ ক্যাম্প ইনচার্জ এএসআই ইদ্রিস প্রমুখ।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।