চুয়াডাঙ্গা রবিবার , ৭ জানুয়ারি ২০১৮
আজকের সর্বশেষ সবখবর

গাছের সাথে বাঁধা অবস্থায় মাইক্রোবাসচালক উদ্ধার : রহস্য!

সমীকরণ প্রতিবেদন
জানুয়ারি ৭, ২০১৮ ১০:৪৫ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

দামুড়হুদার কলাবাড়ী-রামনগর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পাশে বাগান থেকে
ভালাইপুর প্রতিনিধি: দামুড়হুদার কলাবাড়ী-রামনগর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পাশে একটি বাগান থেকে গাছের সাথে বাধা অবস্থায় নাজিম নামের এক মাইক্রোবাস চালককে উদ্ধার করেছে দলিয়ারপুর ক্যাম্প পুলিশ। গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ৬টার সময় তাকে উদ্ধার করা হয়। এদিকে এ ঘটনায় উঠেছে নানা প্রশ্ন। অপহরণ ঘটনাটি সঠিক নাকি সাজানো নাটক তা খতিয়ে দেখা প্রয়োজন বলে করেন নাজিম উদ্দিনের গ্রামের লোকজন। পুলিশ জানিয়েছে, দন্তের পরই জানা যাবে আসল ঘটনা, অপহরণ নাকি সাজানো নাটক।
জানা গেছে, গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে কৃষকরা মাঠে যাওয়ার সময় চুয়াডাঙ্গা দামুড়হুদার কলাবাড়ী-রামনগর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সামনে খেলার মাঠ থেকে বাঁচাও শব্দ শুনতে পায়। এ সময় বিদ্যালয়ের নাইটগার্ড আহসান হাবিব অজ্ঞাত ব্যক্তিকে উদ্ধারের জন্য খেলার মাঠের দিকে খুঁজতে থাকে। মাঠের শেষ দিকে বাগানের গাছের সাথে বাধা অবস্থায় একজনকে দেখতে পায়। কাছে গিয়ে গাছ থেকে ওই ব্যক্তির বাধন খুলে মাটিতে বসান। খবর পেয়ে দলিয়ারপুর ফাড়িঁ পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে তাকে উদ্ধার করে। উদ্ধারকৃত ব্যক্তি চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার আলুকদিয়া ইউনিয়নের মনিরামপুর গ্রামের আপেল উদ্দিনের ছেলে মাইক্রোবাস চালক নিজাম। উদ্ধারকৃত আহত চালককে চিকিৎসার জন্য দামুড়হুদা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।
এ বিষয়ে উদ্ধার হওয়া নিজাম বলেন, গত শুক্রবার সকালে কে বা কাহারা আমার বাসায় কাফনের কাপড়, আতর, ইত্যাদি রেখে আসে। দুপুরের বাড়ি গিয়ে সেগুলো নিয়ে চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় অভিযোগ করতে গেলে ওসি না থাকায় ফিরে আসি। রাত্রে ভাইরাভাইদের সাথে নিয়ে মাইক্রোবাসযোগে চিৎলার উদ্দেশ্যে রওনা হই। পরে ভালাইপুর মোড় থেকে ভাইরাভাইরা আমাকে ভয়ভীতি দেখিয়ে রামনগরের দিকে গাড়ি নিয়ে যেতে বলে। রামনগর স্কুলের সামনে আসলে মাঠের ভিতর গাড়ি ঢুকাতে বলে, তারপর গাড়ি থেকে নামিয়ে আমাকে লাথি মেরে গাছের সাথে বেঁধে রেখে চলে যায়।
এ বিষয়ে এলাকাবাসী জানিয়েছে, নিজাম নামে যাকে উদ্ধার করা হয়েছে সে একজন প্রতারক, শত্রুতামুলকভাবে অন্যকে ফাসাতে নিজেই এই নাটক সাজিয়েছে। প্রশাসন সঠিক তদন্ত করলে আসল রহস্য বেরিয়ে আসবে।
এ বিষয়ে দলিয়ারপুর পুলিশ ফাড়ির এসআই আলাউদ্দিন জানান, তদন্তের পরই জানা যাবে আসল ঘটনা, অপহরণ নাকি সাজানো নাটক।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।