গাংনীর ডিজেএমসি মাধ্যমিক বিদ্যালয় পরিচালনা পষর্দের ভোটে হেরে বেপরোয়া মামুনুর রশিদ প্রধান শিক্ষককে চলন্ত মোটরসাইকেল থেকে নামিয়ে হাতুড়িপেটা

240

mushref pic

গাংনী অফিস: মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার ডিজেএমসি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পরিচালা পষর্দের সভাপতির ভোটে হেরে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা মামুনর রশিদ। প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম(৪৭)কে চলন্ত মোটরসাইকেল থেকে টেনে হেচরে নামিয়ে হাতুড়ি পেটা করেছে। গতকাল রোববার সকাল নয়টার দিকে বিদ্যালয়ে যাওয়ার পথে দেবীপুর গ্রামের সড়কে এ ঘটনা ঘটে। আহত অবস্থায় রফিকুলকে উদ্ধার করে প্রথমে বামন্দী ক্লিনিকে ও পরে কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের নির্বাচনে সভাপতি ভোটে সব কয়টি ভোট তার বিরুদ্ধে যাওয়ায় মামুন নামের স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা এ হামলা চালিয়েছে বলে দাবি করেছেন প্রধান শিক্ষক। তিনি বলেন স্থানীয় একজন মুক্তিযোদ্ধাকে সকল সদস্য ভোট দিয়েছেন এতে ওই আওয়ামী লীগ নেতা মামুন আমার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে হামলা চালান। আহত প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম কল্যাণপুর গ্রামের রবকুল ইসলামের ছেলে বর্তমানে গাংনীর শিশিরপাড়ার বাসিন্দা।
জানা গেছে, গতকাল রোববার সকালে গাংনী শহর থেকে  মোটর সাইকেলযোগে বিদ্যালয়ের উদ্দেশ্যে রওনা দেন রফিকুল ইসলাম বামন্দী-তেঁতুলবাড়ীয়া সড়কে দেবীপুর গ্রামের কাছাকাছি পৌঁছালে পূর্ব প্রস্তুতি নিয়ে থাকা দেবীপুর গ্রামের আওয়ামী লীগ নেতা মাবসুর আলীর ছেলে মামুনুর রশিদ তার উপর হামলা চালায়। হাতুড়ি দিয়ে তার দুই পা ও কোমরে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে পালিয়ে যায়। স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে বামন্দীর একটি ক্লিনিকে ভর্তি নেয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতেল উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রেরণ করা হয়।
এদিকে প্রধান শিক্ষকের উপর হামলার প্রতিবাদে বিদ্যালয়ের শিক্ষক, ছাত্র-ছাত্রী ও এলাকাবাসী প্রতিবাদ জানায়। তারা বিদ্যালয়ের সামনের সড়কে মানববন্ধন ও সড়কে অগ্নি সংযোগ করে দায়ী মামুনকে দ্রুত গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করে।
বিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, সম্প্রতি গঠিত পরিচালনা পর্যদের নির্বাচনে সভাপতি হওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেন মামুন। কিন্তু নির্বাচনের মধ্য দিয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল বারি সভাপতি হন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে প্রধান শিক্ষককের উপর হামলা চালায় বলে ধারণা করছেন বিদ্যালয়ের শিক্ষকবৃন্দ।
এঘটনায় গাংনী থানায় একটি এজাহার দায়ের করেছেন বলে জানান গাংনী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার হোসেন। এদিকে বিকেলে কুষ্টিয়া থেকে গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স রফিকুল ইসলামকে নেওয়া হলে ছুটে যান গাংনী উপজেলা শিক্ষক সমিতির সভাপতি আফজাল হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম ও শিক্ষক নেতা আশরাফুজামান লালু প্রমূখ।